প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ফুটবলে বিমোহিত বোল্ট

ফুটবলের প্রতি তার অনুরাগ প্রকাশ্য। স্প্রিন্টে বিশ্ব জয় করে অবসরের আঙিনায় পা রেখেছেন উসাইন বোল্ট। অবকাশে তার অন্তরে ফুটবলপ্রেম জেগে উঠেছে প্রবলভাবে। ফিফা ডটকমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে স্প্রিন্টের লিজেন্ডের ফুটবল-তন্ময়তা জানা গেল নতুন করে

প্রশ্ন : জ্যামাইকা যখন প্রথম বিশ্বকাপে খেলে ১৯৯৮ সালে ফ্রান্সে, আপনার বয়স তখন ১১ বছর। সেই টুর্নামেন্ট কতটা সজীব আপনার স্মৃতিতে?

উসাইন বোল্ট : কোনোদিনও ভুলতে পারব না আমাদের বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জনের মুহূর্ত। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সেদিন জাতীয় ছুটি ঘোষণা করেছিলেন। বিশ্বকাপে আমাদের প্রথম গোল আজও আমার চোখে ভাসে। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে রবি আর্লে সেই গোল করেছিল হেডে। তারপর জ্যামাইকার শেষ ম্যাচে থিওডর হুইটমোর জোড়া গোল করেছিল জাপানের বিপক্ষে।

প্রশ্ন : স্প্রিন্ট থেকে আপনি অবসর নিয়েছেন। এবার কী ফুটবলের সঙ্গে নিজেকে জড়াবেন? কিভাবে?

বোল্ট : হ্যাঁ, এবার আমি ফুটবল খেলতে চাই। আগেও একথা বলেছি। অনেক ক্লাবও এ ব্যাপারে যোগাযোগ করেছে আমার সঙ্গে। দুর্ভাগ্যবশত, গত আগস্টে আমি হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ি। সেই থেকে অনুশীলন করতে পারিনি। আশা করি, ২০১৮-তে কয়েকটি ম্যাচ খেলতে পারব।

প্রশ্ন : কখনও কী অন্য অ্যাথলেটদের সঙ্গে ক্যাম্পে কিংবা অনুশীলনে ফুটবল খেলেছেন?

বোল্ট : শীতকালে আমি জ্যামাইকায় প্রচুর ফুটবল খেলেছি। আমার কোচ সেটা পছন্দ করতেন না। সৌভাগ্যবশত, ফুটবল খেলতে গিয়ে চোট পাইনি। তাই আমার অ্যাথলেটিক্স-প্রশিক্ষণে কখনও বিঘœ ঘটেনি।

প্রশ্ন : ২০১৬-১৭ মৌসুমের জন্য সেরা বিশ্ব একাদশ গড়তে সারা বিশ্বের ফুটবলাররা ভোট দেবেন। আপনি কিভাবে সাজাবেন বিশ্ব একাদশ?

বোল্ট : কত বড় বড় খেলোয়াড় রয়েছেন। কাজটা সহজ হবে না। অবশ্যই আমার একাদশের আক্রমণভাগে থাকবেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, লিওনেল মেসি এবং নেইমার। গোলকিপার গিয়ানলুইগি বুফন। রক্ষণে সের্গিও রামোস ও লিওনার্দো বোনুচ্চির সঙ্গে দুই ফুলব্যাক মার্সেলো এবং দানি আলভেস। মাঝমাঠে থাকবেন পল পগবা, এনগলো কান্তে এবং লিফিপ্পে কুতিনহো।

প্রশ্ন : ফিফা বর্ষসেরা পুরুষ ফুটবলারের পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় রয়েছেন তিনজন। আপনি কাকে এক নম্বর হিসেবে বেছে নেবেন এবং কেন?

বোল্ট : আমি রোনাল্ডোর পক্ষে। রোনাল্ডো, মেসি ও নেইমার তিনজনই অসাধারণ ফুটবলার। তবে গত বছর ক্রিশ্চিয়ানো লা লীগা এবং আবারও চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জিতেছে। পঞ্চমবার হয়েছে শীর্ষ গোলদাতা। বছরের পর বছর তার শীর্ষ থাকার

যোগ্যতা অতুলনীয়।

প্রশ্ন : কোচের পুরস্কারের জন্যও তিনজনের নাম রয়েছে। মাসসিমিলিয়ানো আল্লেগ্রি, আন্তনিও কন্তে এবং জিনেদিন জিদান। আপনি যদি খেলোয়াড় হতেন, তাহলে এ তিনজনের মধ্যে কার অধীনে খেলতে চাইতেন এবং কেন?

বোল্ট : আমি জিদানের প্রশিক্ষণে খেলতে চাইতাম। খেলোয়াড় জিদানকে আমি সত্যিই পছন্দ করতাম। কোচ হিসেবে তিনি নিজেকে খুব ভালোভাবে পরিণত করেছেন। পাঁচটি টুর্নামেন্টের পাঁচটি বড় ট্রফি জিতেছেন তিনি।

প্রশ্ন : এ বছর সেরা ফিফা গোলকিপারের পুরস্কার রয়েছে। এ মুহূর্তে আপনার বিবেচনায় বিশ্বের সেরা গোলকিপার কে এবং কেন?

বোল্ট : গিয়ানলুইগি বুফন। তার বয়স প্রায় ৪০। তা সত্ত্বেও তার বিপক্ষে গোল করা কঠিন। পেছনে ভালো গোলকিপার থাকলে রক্ষণের খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়। বুফনের সামনে খেলতে কারও কোনো সমস্যা হবে না। হালফিল এক অনুষ্ঠানে তার সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে। আমি অবসর নেয়ার পর বুফন আমাকে চমৎকার বার্তা পাঠিয়েছিলেন।

প্রশ্ন : বিশ্বে নিজেদের পছন্দের খেলায় যারা সেরা হতে চায়, সে সব ছেলেমেয়েকে আপনি কী পরামর্শ দেবেন?

বোল্ট : নিজেদের আশপাশে সঠিক ব্যক্তি বাছাই কর। প্রতিজ্ঞাবদ্ধ থাক। প্রচণ্ড খাটাখাটুনি কর। নিজের ওপর আস্থা রাখ। সাফল্য রাতারাতি ধরা দেবে না। তাই ধারাবাহিক হও। ফল পাবেই। আমার একটি দর্শন আছে- ‘যে কোনো কিছু সম্ভব।’ ফিফা ডটকমের সৌজন্যে।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত