প্রকাশ : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
রিয়ালকে উড়িয়ে শিরোপায় এক হাত বার্সার
বার্সেলোনা ৩, ০ রিয়াল মাদ্রিদ
শুরুটা তেড়েফুঁড়েই করেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। দ্বিতীয় মিনিটেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর হেড খুঁজে নিয়েছিল বার্সেলোনার জাল। গোলটি বাতিল হয়ে যায় অফসাইডে। ১০ মিনিটে গোলের আরেকটি সুবর্ণ সুযোগ হেলায় নষ্ট করলেন রিয়ালের পর্তুগিজ যুবরাজ। এরপর সময় যত গড়িয়েছে, কোণঠাসা বার্সেলোনার খেলার ধার ততই বেড়েছে। ক্রমেই ম্রিয়মাণ হতে থাকা রিয়াল শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনার কাছে অসহায় আত্মসমর্পণই করল। শনিবার বার্নাব্যুতে বছরের শেষ এল ক্লাসিকোতে দশজনের রিয়ালকে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত করে কার্যত শিরোপায় এক হাত দিয়েই ফেলল বার্সেলোনা। লা লীগার শিরোপা দৌড়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ১৪ পয়েন্টে এগিয়ে থেকে বছর শেষ করল কাতালানরা। ১৭ ম্যাচে ৪৫ পয়েন্ট নিয়ে লীগের শীর্ষে বার্সা। ১৬ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল পড়ে থাকল চারে। বাঁচা-মরার ক্লাসিকোতে হেরে শিরোপা রেস থেকে কার্যত ছিটকে গেল জিনেদিন জিদানের দল। চিরশত্রুদের ডেরায় বার্সার দুরন্ত জয়ের নায়ক মেসি, সুয়ারেজ ও ভিদাল।
প্রথমার্ধে বেশিরভাগ সময় বল দখলে রাখার পাশাপাশি আক্রমণেও এগিয়ে ছিল রিয়াল। কিন্তু বিরতির পর পাল্টে যায় চিত্রপট। একের পর এক আক্রমণে স্বাগতিক রক্ষণভাগকে ব্যতিব্যস্ত করে তোলে অতিথিরা। তারই মাঝে ১০ মিনিটের ব্যবধানে দু’বার জালে বল পাঠিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বার্সেলোনা। ৫৪ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। মাঝমাঠের কাছ থেকে ইভান রাকিতিচ বল পায়ে ছুটে ডানদিকে রবার্তোকে বাড়ান। স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের পাস বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢোকা লুইস সুয়ারেজ পেয়ে নিচু শটে নাভাসকে পরাস্ত করেন। গোল খেয়ে যেন কিছুটা খেই হারিয়ে বসে রিয়ালের খেলোয়াড়রা। মেজাজ হারিয়েই হয়তো সুয়ারেজকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখেন রামোস। এর খানিক পরই চরম ধাক্কা খায় তারা। ক্ষণিকের জন্য রিয়ালের রক্ষণ উন্মুক্ত হয়ে পড়ে। সেই সুযোগে বাঁ-দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢোকা সুয়ারেজের শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান নাভাস, কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি। সতীর্থের পা ঘুরে আসা ফিরতি বল পেয়ে উরুগুয়ের স্ট্রাইকারের দ্বিতীয় প্রচেষ্টা পোস্টে লাগে। তারই ফিরতি বলে জটলার মধ্যে পাউলিনহোর করা হেড হাত দিয়ে ঠেকানোর দায়ে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন দানি কারবাহাল। পেনাল্টি পায় বার্সেলোনা। সফল স্পটকিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। ক্লাসিকোয় এ নিয়ে সর্বোচ্চ ২৫ গোল করলেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।
আক্রমণের ধার বাড়াতে ৭২ মিনিটে মাতেও কোভাসিচের জায়গায় গ্যারেথ বেল ও কাসেমিরোকে তুলে মার্কো আসেনসিওকে নামান রিয়াল কোচ জিদান। আক্রমণভাগের শক্তি বাড়ায় বাকি সময়ে বার্সেলোনার রক্ষণে চাপ বাড়াতেও সক্ষম হয় রিয়াল। বেল, রোনাল্ডোরা বেশ কিছু সুযোগও তৈরি করেছিলেন, কিন্তু কাক্সিক্ষত গোলের দেখা মেলেনি। উল্টো ইনজুরি টাইমে মেসির পাস থেকে স্বাগতিকদের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন অ্যালেক্স ভিদাল। মৌসুমের শুরুতে স্প্যানিশ সুপার কাপের দুই লেগে রিয়ালের কাছে হারের মধুর প্রতিশোধ নিয়ে বড়দিনের ছুটিতে গেল বার্সা। আর ব্যক্তিগত শ্রেষ্ঠত্বের দ্বৈরথে মেসির কাছে হেরে রোনাল্ডোর বড়দিনের আনন্দ মাটি হয়ে গেল! এএফপি/ওয়েবসাইট।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত