সাব্বিন হাসান    |    
প্রকাশ : ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
অদম্য মনোভাবই বড় শক্তি
তাইওয়ানের রাষ্ট্রপতি সাই ইং-ওয়েন

তাইওয়ান। একটি স্বাধীন দ্বীপরাষ্ট্র। যদিও এটি চীনের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে এখনও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এমনই একটি দেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি হলেন একজন নারী। তাইওয়ান আর সাই এখন ইতিহাসের অংশ। শুধু ইতিহাস বললে একটু কম বলা হবে। বিশ্ব ইতিহাসের অংশ। বিশ্বের রাজনৈতিক আলোচনায় গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই সাই সুবক্তা হিসেবে শক্ত জায়গা করে নিয়েছেন।

বিশ্ব পরিচিতি সাই নামে। পুরো নাম সাই ইং-ওয়েন। জন্ম ৩১ আগস্ট ১৯৫৬। ন্যাশনাল তাইওয়ান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি আইন বিষয়ে স্নাতক সম্পন্ন করেন। এরপর কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় ল স্কুল থেকে আইন বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। সবশেষ ১৯৮৪ সালে লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স থেকে অর্থনীতিতে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। ব্যক্তি জীবনে সাই অবিবাহিত।

চাকরি জীবনে সাইয়ের ফেয়ার ট্রেড কমিশন, কপিরাইট কমিশন এবং ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে। তাইওয়ান ডেমোক্রেটিক প্রগ্রেসিভ পার্টির (ডিপিপি) প্রধান সাই ইং-ওয়েন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন। ২০১৬ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ৫৬ ভাগ ভোট নিয়ে ৫৯ বছরে পা দেয়া সাই ইং এখন দেশটির প্রথম নারী রাষ্ট্রপতি। আজকের এ সাফল্যের পেছনে অনেক পরাজয়ের পথ পেরিয়ে এসেছেন সাই; কিন্তু দমে জাননি কিছুতেই। ২০১২ সালের নির্বাচনেও হার মেনে নিতে হয় সাইকে। খানিকটা হতাশ হলেও প্রতিবারই নতুন উদ্যোমে সামনের পথে সাহসী আর সোচ্চার তিনি।

তাইওয়ানের তরুণ প্রজন্মের কাছে দারুণ এক প্রেরণার প্রতীক সাই। সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে উচ্চপদে কাজ করা আর উপদেষ্টা থাকায় তার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে রয়েছে সরকারের মুখোমুখি সমালোচনা করার কৌশল।

বর্তমান তাইওয়ান সাইকে উপজীব্য করে নিজেদের স্বাধীন অস্তিত্ব আর অর্জন নিয়ে বিশ্বের বুকে আরও সোচ্চার হতে চাইছে। সবশেষ ক্ষমতাসীন কুয়োমিন্টাং পার্টিও (কেএমটি) প্রার্থী এরিক চু পরাজয় মেনে নিয়ে সাইকে রাষ্ট্রপরিচালনায় স্বাগত জানিয়েছেন। অর্থাৎ নির্বাচনী ফলাফল নিয়ে দেশটিতে কোনো বিরোধ বাধার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু চীনের সঙ্গে সম্পর্কে কিছুটা টানাপড়েন আসতে পারে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

এরই মধ্যে তাইওয়ানের নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে সাই ইং-ওয়েনকে শুভেচ্ছা জানানো হচ্ছে। অচিরেই তিনি ডিপিপি দলের প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন। এছাড়া তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রী মাও চি-কুওও পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। ফলে তাইওয়ানের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি না হলেও চীন আর বৈশ্বিক রাজনীতি সামলে নেয়াই হবে সাইয়ের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

এরই মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে সাই ইং-ওয়েনের জয় তাইওয়ানের স্বাধীনতাপন্থীদের জয় এবং এতে চীনের সঙ্গে দেশটির সম্পর্ক ঝুঁকির মুখে পড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। নির্বাচন জয়ের পর এ প্রসঙ্গে সাই সাফ জানিয়েছেন, চীনের সঙ্গে স্থিতিশীল সম্পর্ক বজায় রাখা হবে। আর বেইজিংকেও অবশ্যই তাইওয়ানের গণতন্ত্রকে সম্মান জানাতে হবে। এছাড়া উভয় দেশকেই কোনো ধরনের উসকানিমূলক আচরণ না করার বিষয়ে সচেষ্ট থাকতে হবে।

এখনও তাইওয়ানকে নিজেদের একটি বিচ্ছিন্ন প্রদেশ হিসেবে বিবেচনা করে চীন। মাঝে মধ্যে এবং প্রয়োজনে শক্তি প্রয়োগ করে হলেও চীন দ্বীপরাষ্ট্র তাইওয়ানকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখার বিষয়ে সরব হয়ে ওঠে। তবে সাই ইং-ওয়েনের জয়ের খবরে চীন এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। তবে সাইয়ের নির্বাচনে জয়ী হওয়ার আগে গত নভেম্বরে তাইওয়ানের ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় সিঙ্গাপুরে। ৬০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে প্রথমবার চীন-তাইওয়ান এক ঐতিহাসিক বৈঠকে মিলিত হয়। এতে কুয়োমিন্টাং দলের রাষ্ট্রপতি মা ইং জেউ এবং চীনা রাষ্ট্রপতি ও কমিউনিস্ট পার্টির শি জিনপিংয়ের বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়ে এখনও সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি। তবে এ বৈঠককে ইতিবাচক মনে করেই নির্বাচনে অংশ নেন সাই। আর ফলাফল আসে তার পক্ষেই। প্রসঙ্গত, ৬৬ বছর আগে চীনের গৃহযুদ্ধে কমিউনিস্ট পার্টির সঙ্গে ক্ষমতাসীন কুয়োমিন্টাং দলের লড়াইয়ে ক্ষমতাসীনরা পরাজিত হয়। কুয়োমিন্টাং দলীয় নেতারা চীনের মূল ভূখণ্ড ছেড়ে তাইওয়ানে এসে আশ্রয় নেন। সেখানে নিজেদের শাসনব্যবস্থা গড়ে তোলেন তারা। অদম্য মনোবলের কারণেই সাই এত কঠিন পথে জয় ছিনিয়ে এনেছেন। তাই ভয়কে জয় করতেই সবাইকে প্রেরণা দেন সাই।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত