যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২১ আগস্ট, ২০১৬ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
ওমরানের খবরে কাঁদলেন সিএনএন উপস্থাপিকা

মার্কিন টিভি নেটওয়ার্ক সিএনএন-এর সম্পাদকীয় নীতি নিয়ে যত বিতর্কই থাক না কেন, ওই প্রতিষ্ঠানের পেশাদারিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা কঠিন। কিন্তু সেই পেশাদারিত্বকে ছাপিয়ে শুক্রবার এক মানবিক বোধ উঁকি দিয়েছিল সিএনএন-এর স্টুডিওতে। বিপন্ন মানবতার প্রতীক হয়ে ওঠা সিরীয় শিশু ওমরান দাকনিশের খবর পড়তে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন সেখানকার এক সংবাদ উপস্থাপিকা। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

শুক্রবার টেলিভিশনে সংবাদ উপস্থাপন করছিলেন কেট বোল্ডুয়ান। একপর্যায়ে আসে সিরিয়া প্রসঙ্গ। সংবাদটি আলেপ্পোতে যুদ্ধবিরতির তথ্য দিয়ে শুরু হয়... প্রতিবেদকের ভয়েস ওভারের পাশাপাশি টেলিভিশন স্ক্রিনে দেখা যায় ওমর ডাকনিশকে কোলে করে একটি উদ্ধারকারী ক্যারাভানে তুলছেন একজন উদ্ধারকর্মী... ঠিক এই পর্যায়ে ব্যক্তিগত আবেগ গোপন করতে ব্যর্থ হন কেট বোল্ডুয়ান।

বুধবার আলেপ্পো শহরে সামরিক বাহিনীর বিমান হামলায় আহত শিশুদের একজন পাঁচ বছরের শিশু ওমরান দাকনিশের এক ছবি ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেটে। ওই ছবিতে দেখা যায়, ওমরানের মাথা থেকে হাঁটু পর্যন্ত ধুলায় ভরে গেছে। হামলায় ওমরান এতটা স্তব্ধ হয়ে পড়েছে যে তার কপাল থেকে যে রক্ত ঝরছে সেদিকে তার খেয়ালই নেই। ছবিটি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়। তুরস্ক উপকূলে ভেসে ওঠা সিরীয় শরণার্থী শিশু আয়লানের মতো ওমরানও যেন আরেক বিপন্ন মানবতার প্রতীক হয়ে ওঠে। সেই ওমরানের প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন কেট। বলেন, ‘যে বিষয়টি আমাকে সবচেয়ে হতভম্ব করেছে তা হচ্ছে, আমরা এখানে কাঁদছি, কিন্তু ওখানে কোনো কান্নাও নেই। সে একবারের জন্যও কাঁদেনি। ছেলেটা পুরোপুরি স্তব্ধ হয়ে গেছে।’ এসব বলার সময় কেটের চোখ পানিতে পুরোপুরি ভরে ওঠে ও কণ্ঠস্বর বারবার কেঁপে যায়। এই উদ্ধার অভিযানে অন্তত তিনজন নিহত হওয়ার তথ্য জানানোর পর তিনি আর সংবাদ পাঠ অব্যাহত রাখতে পারেননি। ‘ও ওমরান, ও বেঁচে আছে। আমরা আপনাদের জানাতে চাই’ বলে তখনকার মতো খবর শেষ করেন কেট।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত