যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২৪ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
প্রেসিডেন্টকে উপেক্ষা
রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত মার্কিন কংগ্রেসের
যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের উভয় দলীয় নেতারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা জারি করার ব্যাপারে একমত হয়েছেন। মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ ও রাশিয়ার প্রতিবেশী দেশের প্রতি আগ্রাসী আচরণের শাস্তিস্বরূপ এ নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। কংগ্রেসের সিনেট ও প্রতিনিধি পরিষদ উভয় কক্ষের সদস্যদের উত্থাপিত এ বিলটি পাস হলে মস্কোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ক্ষেত্রে সর্বময় ক্ষমতা কংগ্রেসের হাতে চলে আসবে। নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে সীমিত হয়ে পড়বে ট্রাম্পের ক্ষমতা। ফলে নতুন এ বিলটি আইনে পরিণত করতে ট্রাম্প অনুমোদন দেবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় থেকে যাচ্ছে। চলতি মাস শেষ হওয়ার আগেই বিলটি ট্রাম্পের দফতরে পাঠানো হবে। খবর সিএনএনের।
শনিবার সিনেট ও প্রতিনিধি পরিষদের সদস্যরা নতুন এ নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে সম্মত হন। এতে রাশিয়া ছাড়াও উত্তর কোরিয়া ও ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ওই বিলটি পাস হলে মস্কোর ওপর সহজেই নিষেধাজ্ঞা আরোপের ক্ষমতা পাবে কংগ্রেস। নিউইয়র্ক টাইমস লিখেছে, ট্রাম্পকে শিগগিরই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি এ বিলটি নাকচ করে দিতে পারেন। এমনটা হলে সেটি হবে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আঁতাতের অভিযোগে ঘি ঠেলে দেয়া। অথবা তার প্রশাসনের বিরোধিতা থাকলেও ট্রাম্প এ বিলটিকে স্বাক্ষর করতে পারেন। সিনেটের পররাষ্ট্র সম্পর্কবিষয়ক কমিটির শীর্ষ ডেমোক্রেট সদস্য বেঞ্জামিন এল কারডিন বলেন, ‘ঐক্যবদ্ধ কংগ্রেস আমেরিকার নাগরিক ও আমাদের মিত্রদের পক্ষ থেকে পুতিনকে একটি স্পষ্ট বার্তা দিতে চায়। এ বার্তা প্রেরণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সহযোগিতা আমাদের প্রয়োজন।’
এ বিলটির উদ্দেশ্য শুধু মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ নয়, বরং অধিকৃত ক্রিমিয়ায় সামরিক আগ্রাসী পদক্ষেপ এবং সেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে রাশিয়াকে শাস্তি দেয়া। এর মাধ্যমে ক্রিমিয়ায় মানবাধিকার লঙ্ঘন, সিরিয়ায় বাশার আল আসাদ সরকারকে অস্ত্রশস্ত্র সরবরাহ এবং সাইবার নিরাপত্তাকে ধ্বংসের চেষ্টার কারণে রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আনা হবে। মার্কিন কংগ্রেসের নতুন এ আইনটির ব্যাপারে পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানান, ‘এটি উচ্চমাত্রায় নেতিবাচক।’ এর বেশি কিছু জানাননি তিনি। প্রকাশ্যে হোয়াইট হাউসও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি। নতুন এ বিলটি নিয়ে মঙ্গলবার প্রতিনিধি পরিষদে ভোটাভুটি হবে বলে জানিয়েছেন হাউস মেজরিটি নেতা রিপাবলিকান কেভিন ম্যাককার্থি। তিনি ও হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির চেয়ারম্যান রিপাবলিকান নেতা অ্যাড রইসি এক বিবৃতিতে বলেন, রাশিয়া, উত্তর কোরিয়া ও ইরান পৃথকভাবে তাদের প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য হুমকি এবং তারা সক্রিয়ভাবে আমেরিকার স্বার্থকে ক্ষুণœ করছে। হাউস স্পিকার পল রায়ানের নারী মুখপাত্র অ্যাশলি স্ট্রং বলেন, এ বিলটির মাধ্যমে বিশ্বের তিন খারাপ খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে নেয়া হবে কার্যকর পদক্ষেপ। এর কয়েক মাস আগে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ প্রতিনিধি পরিষদে ৪১৯-১ ভোটে অনুমোদিত হয়। এছাড়া রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেটেও গত জুনে ইরান ও রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার একটি বিল ৯৮-২ ভোটে পাস হয়।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত