যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
প্রেমিকাকে লেখা ওবামার আবেগময়ী চিঠি প্রকাশ
পৃথিবীতে নিজের অবস্থান, অর্থ, বিত্ত, শ্রেণি ও বর্ণ পরিচয় নিয়ে উদ্বেগে ছিলেন কলেজপড়ুয়া বারাক ওবামা। শঙ্কা ছিল কমিউনিটি সংগঠক হিসেবে কাজ করার মতো যথেষ্ট টাকা তিনি জোগাড় করতে পারবেন কিনা। সাবেক প্রেমিকা আলেকসান্দ্রা ম্যাকনিয়রের পাশে কতটা মানানসই, সে প্রশ্নও ছিল তরুণ ওবামার মনে। উনিশশ’ আশির দশকে ম্যাকনিয়রকে লেখা প্রেমপত্রের পাতায় পাতায় রয়েছে ভবিষ্যতের মার্কিন প্রেসিডেন্টের হৃদয়ের সেই দোলাচলের বিবরণ। তিন বছর ধরে এমরি বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্কাইভে সংরক্ষিত ৩০ পৃষ্ঠার নয়টি চিঠি সম্প্রতি গবেষকদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে।
বিবিসি জানায়, ১৯৮২ থেকে ১৯৮৪ সালের মধ্যে ম্যাকনিয়রকে চিঠিগুলো লেখেন ওবামা। ক্যালিফোর্নিয়ায় একই কলেজে পড়ার সময় তাদের পরিচয়। ওবামার সঙ্গে মিশেলের পরিচয় হয় আরও পাঁচ বছর পর, যা পরে পরিণয়ে গড়ায়। শুরুর দিকের এক চিঠিতে ওবামা লেখেন, ম্যাকনিয়রকে নিয়ে তার ভাবনা যেন বাতাসের মতো বিস্তৃত, ম্যাকনিয়রের প্রতি তার আস্থা সাগরের মতই গভীর। সেই ভালোবাসা অমূল্য, বড় বেশি বেদনাময়। টানা হাতে লেখা চিঠিগুলোতে ওবামা তার প্রেমিকাকে সম্বোধন করেছেন ‘প্রিয় অ্যালেক্স’ বলে। আর চিঠির শেষ হয়েছে ‘লাভ, বারাক’ শব্দ দুটো দিয়ে।
চিঠি লেখার ওই দিনগুলোতেই ক্যালিফোর্নিয়া থেকে নিউইয়র্কের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চলে যান ওবামা। সেখান থেকে যান শৈশবের দেশ ইন্দোনেশিয়ায়। পরে বিজনেস ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশনে চাকরি নেন। দূর থেকে ম্যাকনিয়রের সঙ্গে ওবামার এ প্রেম ধীরে ধীরে ফিকে হতে থাকে। ১৯৮৩ সালে এক চিঠিতে তিনি লেখেন, ‘প্রায়ই তোমার কথা ভাবি। তবে আমার অনুভূতি আসলে কি বলছে, আমি নিশ্চিত নই। মনে হয়, যা পাওয়ার নয় তাই আমরা চাই। সেই চাওয়াই আমাদের মিলিয়ে দেয়, সেটাই আমাদের বিচ্ছেদ ঘটায়।’ এমরি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুয়ার্ট এ রোজ ম্যানুস্ক্রিপ্ট, আর্কাইভস অ্যান্ড রেয়ার বুক লাইব্রেরির পরিচালক রোজমেরি ম্যাগি বলেন, ‘চিঠিগুলো এক তরুণের অভিযাত্রার গল্প বলছে, যে খুঁজে বেড়াচ্ছে বেঁচে থাকার অর্থ, জীবনের উদ্দেশ্য আর আগামী দিনের দিকনিশানা। যে বুঝতে চাইছে, সময়ের বুকে কোথায় হবে তার স্বতন্ত্র অবস্থান।’



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত