হাসনাত করিমই খলনায়ক

যিনি হলি আর্টিজান ভবনের ছাদে জঙ্গিদের নিয়ে মিটিং করেন, এ সময় জঙ্গি রোহানের কাঁধে ও তাহমিদের হাতে ছিল অস্ত্র, রান্নার আয়োজন করে ডিনারও সারেন তারা

তোহুর আহমদ
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত করিমই ছিলেন গুলশান হামলার অন্যতম পরিচালক। বলা যায়, খলনায়ক। তিনি নিজে ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে হামলা পরিচালনা ও মনিটরিং করেন। নানাভাবে যোগাযোগ ও তথ্য আদান-প্রদান করেন দেশ ও বিদেশের বিভিন্ন মাধ্যমে। গুরুত্বপূর্ণ এ ভূমিকা পালনের ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন একেবারে স্বাভাবিক। আর এতটাই স্বাভাবিক ছিলেন যে, বীভৎস হত্যাযজ্ঞের মধ্যে ভাত রান্নার ব্যবস্থা করে সপরিবারে রাতের খাওয়া-দাওয়াও সেরে নেন। সঙ্গে থাকা কানাডা প্রবাসী ছাত্র তাহমিদ খান ছিলেন তার অন্যতম সহযোগী। নিজ হাতে অস্ত্র চালিয়ে সেও এই নৃশংস হত্যাযজ্ঞে অংশ নেয়। বিলম্বে হলেও দুটি স্টিল ছবি ও তার মোবাইল ফোনের অধিকতর ফরেনসিক রিপোর্ট থেকে এসব চাঞ্চল্যকর ক্লু বেরিয়েবিস্তারিত

সাড়ে আট হাজার কোটি টাকাই খেলাপি ঋণ

হামিদ বিশ্বাস
তৈরি পোশাক ও টেক্সটাইল খাত খেলাপি ঋণে জর্জরিত। উচ্চ সুদে ঋণ নিয়ে অনেক প্রতিষ্ঠানই খেলাপি হয়ে পড়ছে। মাত্র এক বছরেই এ দুটি খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা। অভিযোগ রয়েছে, অধিকাংশ ঋণই দেয়া হয়েছে ঝুঁকিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক তদবিরে। অনেক প্রতিষ্ঠান ঋণের বিপরীতে তাদের সম্পদকে অতিমূল্যায়িত করেও ঋণ নিয়েছে। তাদের উদ্দেশ্য ভবিষ্যতে হয়তো এ অর্থ আর ফেরত দেয়া লাগবে না। এসব কারণে প্রকৃত বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ঋণের উচ্চ সুদই বড় বাধা। এরপরও অনেক বিনিয়োগকারী ব্যাংক থেকে ঋণ নিতে বাধ্য হন। কিন্তু ঋণের চক্রবৃদ্ধি সুদ এত বেড়ে যায় যে তা আর পরিশোধ করা যায় না। এছাড়া বেশ কিছুবিস্তারিত

ভাঙার অপেক্ষায় যত রেকর্ড

মাইকেল জনসন পুরুষ বিভাগে ২০০ ও ৪০০ মিটার দৌড়ে অপ্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তিনি। যদিও ২০০৮ বেইজিং অলিম্পিকে উসাইন বোল্ট ২০০ মিটারের রেকর্ড ভেঙে দিলেও ৪৩.১৮ সেকেন্ডে ৪০০ মিটার দৌড়ে মাইকেল জনসনের রেকর্ড প্রায় ১৭ বছর ধরে সুরক্ষিত রয়েছে এখনও হিশাম এল গুয়েরুজ ১৭ বছর আগে মরক্কোর অ্যাথলেট হিশাম এল গুয়েরুজ ১,৫০০ মিটার দৌড়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন মাত্র ৩.২৭.৬৫ সেকেন্ডে। স্পেনে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে গড়া তার সেই রেকর্ড আজও অটুট রয়েছে কেভিন ইয়ং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাথলেট কেভিন ইয়ং ৪০০ মিটার হার্ডলসে রেকর্ড গড়েছিলেন ১৯৯২ বার্সেলোনা অলিম্পিকে। এডউইন মোজেসের ৪৭.০২ সেকেন্ডের রেকর্ড ভেঙে তিনি ৪০.৭৮ সেকেন্ডে গড়েছিলেন বিশ্বরেকর্ড জাভিয়ের সোতোমেয়র নিজের রেকর্ড নিজে ভেঙেছেন। আবার নিজেই গড়েছেন। তিনি কিউবার অ্যাথলেট জাভিয়ের সোতোমেয়র।বিস্তারিত

ব্যাংককের উদ্দেশে বিজলী কন্যা

আনন্দনগর প্রতিবেদক
অবশেষে ব্যাংককের উদ্দেশে উড়াল দিলেন ঢাকাই ছবির অ্যাকশন লেডি ববি। তার এ ব্যাংকক যাত্রা স্রেফ ভ্রমণের জন্য নয়। নতুন ছবি ‘বিজলী’র শুটিংয়ের জন্যই পুরো টিম নিয়ে ব্যাংককের উদ্দেশে আজ সকালে উড়াল দিলেন তিনি। সেখানে প্রায় দুই সপ্তাহ অবস্থান করবেন তারা। বিজলী ছবিটির শুটিংও প্রায় শেষের পথে। বাকি আছে শুধু দুটি গান ও কয়েকটি সিকোয়েন্স। সেগুলো ব্যাংককের মনোরম লোকেশনে ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ববি। ব্যাংককে যাওয়ার আগে যুগান্তরকে তিনি বলেন, ‘বিজলী ছবির শুটিং শেষের পথে। আর যেটুকু কাজ বাকি রয়েছে সেটুকু সম্পূর্ণ করতেই ব্যাংককে উড়াল দিচ্ছি। আশা করি কাজ শেষ করে সুস্থ হয়ে দেশে ফিরতে পারব। সবাই আমাদের জন্য দোয়াবিস্তারিত

যুক্তরাষ্ট্রে হামলা হলে জাপানিরা বসে ‘সনি টিভি’ দেখবে : ট্রাম্প

যুগান্তর ডেস্ক
এবার জাপানের ওপর ক্ষেপেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। যুক্তরাষ্ট্রের জাপাননীতির সমালোচনা করে বলেছেন, তারা শুধু সুবিধা নেয়, বিনিময়ে কিছু দেয় না। ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে যদি কখনও হামলা হয়, জাপানিরা তখন ঘরে বসে সনি টিভি দেখবে। শুক্রবার আইওয়া অঙ্গরাজ্যে এক জনসভায় বক্তৃতাকালে তিনি এ কথা বলেন। খবর বিবিসি ও এএফপির। ট্রাম্প তার বক্তৃতায় ন্যাটোভুক্ত সেসব দেশের সমালোচনা করেন, যারা তাদের অতিরিক্ত সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও সে অনুপাতে উত্তর আটলান্টিক নিরাপত্তা জোটে (ন্যাটো) আর্থিক অনুদান দেয় না। এছাড়া জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার মতো দেশগুলো যারা যুক্তরাষ্ট্রের দেয়া নিরাপত্তা সুবিধা ভোগ করছে কিন্তু বিনিময়ে যুক্তরাষ্ট্রকে কোনো আর্থিক সুবিধা দিচ্ছে না, তাদেরও সমালোচনাবিস্তারিত

৩৬ এসআই-এএসআই বসার জন্য চেয়ার মাত্র পাঁচটি

সিএমপির সদরঘাট থানার চিত্র

চট্টগ্রাম ব্যুরো
চট্টগ্রাম মহানগরীর সদরঘাট থানায় দায়িত্বরত ১৪ এসআই ও ২২ এএসআই’র জন্য বসার চেয়ার মাত্র পাঁচটি। অবকাঠামো সংকটের কারণে দায়িত্ব পালনে হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তাদের। কেবল সদরঘাট নয়, অবকাঠামো সংকটে সিএমপির সর্বশেষ গঠিত চকবাজার, ইপিজেড ও আকবরশাহ থানার চিত্রও একই। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন না করেই তড়িঘড়ি করে থানা প্রতিষ্ঠার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে যে ভবনে সদরঘাট থানার কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে সেটি ছিল একটি পুলিশ ফাঁড়ি। সিএমপি সূত্র জানায়, ২০১৩ সালের ৭ জুন নগরীতে নতুন চারটি থানার অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী। থানাগুলো হল- সদরঘাট, চকবাজার, ইপিজেড ও আকবর শাহ। একই বছরের ৩০ মে এ চার থানার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমবিস্তারিত

দুর্নীতির সম্প্রসারণশীল হাত

বদরুদ্দীন উমর
পুলিশের এক বিস্ময়কর আবদারের কথা সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ‘গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাব বা লেনদেনের তথ্য সরাসরি পেতে চায় র‌্যাব-পুলিশ। বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ অনুসন্ধান বা তদন্তের স্বার্থে তারা এসব তথ্য পেতে চায়। এতে তদন্ত কাজে গতি আসবে। বর্তমানে এসব তথ্য সরাসরি না পাওয়ায় তাদের তদন্ত কাজে বিঘ্ন সৃষ্টি হচ্ছে বলে মনে করে আইনশৃংখলা বাহিনী’ (আমাদের সময়, ৪ আগস্ট ২০১৬)। এ ধরনের কথা পুলিশের তরফ থেকে আগে কোনোদিন শোনা যায়নি। ব্রিটিশ ও পাকিস্তানি আমলে যে পুলিশ ছিল সে পুলিশই এখনও আছে স্বাধীন বাংলাদেশে। সেই পুরাতন আমল থেকে পুলিশ একই নিয়মে কাজ করে। একই নিয়মে তারা দীর্ঘকাল ধরে ‘আইনশৃংখলা’ রক্ষা বলতেবিস্তারিত

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বাজেট ও একটি সেতুর স্বপ্ন

এ কে এম শাহনাওয়াজ
সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২০১৬-১৭ সালের বাজেট ঘোষিত হয়েছে। বাজেটের বিস্তারিত বিবরণ দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে একটি সুদৃশ্য পুস্তিকা। বাজেট বক্তৃতা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল আমার ছোট ভাই। সে-ই পুস্তিকাটি পাঠিয়েছে আমার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে তিনটি পৌরসভা রয়েছে। এগুলো হচ্ছে : নারায়ণগঞ্জ সদর, সিদ্ধিরগঞ্জ এবং কদমরসুল। এ তিনটির মধ্যে কদমরসুল পৌরসভার গুরুত্ব আলাদা। আজকের বন্দর উপজেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ নাগরিক অঞ্চলে এ পৌরসভাটি অবস্থিত। কদমরসুল পৌরসভার উন্নতি-অগ্রগতির সঙ্গে জড়িয়ে আছে বন্দর উপজেলার উন্নয়ন। উপজেলাটির অবস্থান শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব পাড়ে। অর্থাৎ নারায়ণগঞ্জ শহরের বিপরীত পাড়ে। বিভিন্ন গুরুত্ব বিবেচনায় বহু আগে থেকেই নদীর দুই পাড়কে সংযুক্ত করার জন্য একটি সেতুর দাবিবিস্তারিত

চট্টগ্রাম-বোয়ালখালী কালুরঘাট সেতু বাস্তবায়ন করুন

চট্টগ্রাম জেলার দক্ষিণে অবস্থিত বোয়াখালী উপজেলা একটি ব্যস্ততম বাণিজ্যিক উপজেলা। এখানে গড়ে উঠেছে অনেক স্কুল-কলেজ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বাণিজ্যিক কলকারখানা, যা দেশের সার্বিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। আধুনিকতা আর প্রযুক্তির পরশে এগিয়ে যাচ্ছে আজ বাংলাদেশের বিভিন্ন উপজেলা। কিন্তু কালুরঘাটের এই পুরনো সেতু বোয়ালখালী উপজেলার উন্নয়নের গতিকে স্তব্ধ করে রেখেছে। ব্যবসা-বাণিজ্য, অফিসিয়াল কাজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাজসহ মানুষের ব্যক্তিগত কাজেও সবাইকে চট্টগ্রাম শহরে আসতে হয় এই সেতুর ওপর দিয়ে। বহু বছর আগে তৈরি হওয়া কালুরঘাট সেতুটি আজ জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ। যে কোনো সময় ঘটতে পারে অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা। তাছাড়া সেতুটি সিঙ্গেল লাইনের হওয়ায় তীব্র যানজটে পড়তে হয় জনগণকে। এতে যথাসময়ে অফিসে, শহরে পড়ুয়াবিস্তারিত

প্রিন্টিংয়ের জনক গুটেনবার্গ যেভাবে প্রিন্ট করতেন

ইন্টারনেটের যুগে অনেকে স্মার্টফোনে ই-বুক পড়লেও বইয়ের গুরুত্ব কোনো অংশে কমে যায়নি। আর বইয়ের কথা এলে গুটেনবার্গের কথা আসবেই। কারণ তার কারণেই প্রকাশনা বিষয়টি আজ এত সহজ হয়ে উঠেছে। পৃথিবীতে প্রতিবছর ২২ লাখেরও বেশি বই প্রকাশিত হয়। এর মধ্যে অনেকগুলোর স্থান হয় লাইব্রেরিতে। তবে ছয়শ’ বছর আগে বই পড়তে পারাটা সৌভাগ্যের বিষয় ছিল। এরপর ১৫ শতকে একটি বিপ্লব ঘটে যায়। জার্মানির মাইনৎস শহরের গুটেনবার্গ মিউজিয়ামে সেই সময় কী ঘটেছিল, তার একটা আন্দাজ পাওয়া যায়। এশিয়া বিশেষ করে চীন ও কোরিয়ায় প্রথম মুদ্রণ প্রযুক্তির উদ্ভব ঘটে। চীনারা ১১ শতকে মুদ্রণ বিষয়টি আবিষ্কার করে। এরপর কোরীয়রা এই প্রযুক্তিকে আরও এগিয়ে নিয়ে যায়।বিস্তারিত

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের পড়াশোনা

বাংলা প্রথমপত্র

মুহম্মদ আল মাসুদ
সিনিয়র শিক্ষক, মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, মিরপুর, ঢাকা একাত্তরের দিনগুলি -জাহানারা ইমাম নিচের উদ্দীপকটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও : “সেই রেল লাইনের ধারে মেঠো পথটার পাড়ে দাঁড়িয়ে এক মধ্যবয়সী নারী এখনও রয়েছে হাত বাড়িয়ে খোকা ফিরবে ঘরে ফিরবে, কবে ফিরবে নাকি ফিরবে না। ক. জাহানারা ইমামের বড় ছেলের নাম কী? খ. জাহানারা ইমামের ভেতরে কিসের আশা জেগে ওঠে? গ. উদ্দীপকে ‘একাত্তরের দিনগুলি’ দিনপঞ্জির কোন আবহটি ফুটে উঠেছে? বর্ণনা কর। ঘ. ‘একাত্তরের দিনগুলি’ দিনপঞ্জির আলোকে উদ্দীপকের গানটির বাস্তবতা নিরূপণ কর। উত্তর - ক : জাহানারা ইমামের বড় ছেলের নাম হলো রুমী। উত্তর - খ : জাহানারা ইমামের ভেতরে স্বাধীনতা লাভের আশা জেগে ওঠে। ১৯৭১ সালে পশ্চিম পাকিস্তানিরা রাতের আঁধারে এ দেশের নিরীহ বাঙালির ওপরবিস্তারিত
আর্কাইভ
প্রিন্ট সংস্করণ অনলাইন সংস্করণ
Content loader
Content loader

আজকের আবহাওয়া

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, নিখোঁজ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আপনিও কি আতঙ্কিত বোধ করছেন না?
 হ্যাঁ না মতামত নেই

বিজ্ঞাপন

logo
শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ ইং
ফজর৬.০৫
যোহর১.১৫
আসর৪.১৫
মাগরিব৫.৩০
এশা৭.৩০
সূর্যোদয় - ৬.৪০সূর্যাস্ত - ৫.২০
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম
মেষ
বৃষ
মিথুন
কর্কট
সিংহ
কন্যা
তুলা
বৃশ্চিক
ধনু
মকর
কুম্ভ
মীন
মেষ (২১ মার্চ - ২০ এপ্রিল)
আজ সতর্ক না থাকলে আপনার জরুরি গোপন কোনো তথ্য ফাঁস হয়ে যেতে পারে। অন্যের ওপর নির্ভর করে থাকা ঠিক হবে না।
বৃষ (২১ এপ্রিল - ২১ মে)
পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আজ প্রয়োজনে কিছুটা নমনীয় হতে পারেন। অধীনস্থদের ওপর দায়িত্ব দিয়ে নির্ভর করা ঠিক হবে না।
মিথুন (২২ মে - ২১ জুন)
যৌথবিষয়ক কাজে আজ কৌশলী এবং বিরোধ এড়িয়ে চলতে হবে। পুরনো কোনো সমস্যা সমাধানে অগ্রগতি হবে।
কর্কট (২২ জুন - ২২ জুলাই)
পরিচিত কেউ আজ আপনাকে ভুল বুঝে আর্থিক ঝামেলায় ফেলতে পারে। চিন্তাভাবনা করে পদক্ষেপ নিন।
সিংহ (২৩ জুলাই - ২৩ আগস্ট)
পরিকল্পনার বাইরে কোনো কাজে হাত দেয়ার চেষ্টা না করাই ভালো। কোনো বন্ধু আপনাকে ভুল বুঝতে পারে। প্রাপ্তিযোগ শুভ। যাত্রা শুভ।
কন্যা (২৪ আগস্ট - ২৩ সেপ্টেম্বর)
ব্যবসায়ীদের জন্য দিনটি শুভ। নতুন কোনো চুক্তি সম্পাদিত হতে পারে। অধীনস্থদের ওপর নির্ভর করবেন না।
তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর - ২৩ অক্টোবর)
আর্থিক ও মানসিক সমস্যার সমাধানে কোনো আত্মীয় আজ আপনার উপকারে আসতে পারে। প্রিয়জনের স্বাস্থ্যের প্রতি নজর দিন।
বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর - ২২ নভেম্বর)
পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আজ বন্ধু বা পরিচিত কারও সহায়তা পাবেন। নিজের জরুরি কাজগুলো যথাসম্ভব দ্রুত সেরে নেয়ার চেষ্টা করুন।
ধনু (২৩ নভেম্বর - ২১ ডিসেম্বর)
দূরের কোনো আবেগপ্রবণ খবরে চিন্তাক্লিষ্ট হতে পারেন। নতুন কোনো চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করার আগে আবার যাচাই করে নেয়া ভালো।
মকর (২২ ডিসেম্বর - ২০ জানুয়ারি)
পুরনো প্রতিদ্বন্দ্বী আজ সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে। কর্মস্থলে আলোচনায় কৌশলী হোন। বিরোধ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।
কুম্ভ (২১ জানুয়ারি - ১৮ ফেব্রুয়ারি)
কর্মস্থলে আবেগ প্রবণতা পরিহার করে চলার চেষ্টা করুন।
মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি - ২০ মার্চ)
প্রভাবশালীদের মন রক্ষা করে চলতে না পারলে মানসিক অশান্তি বাড়তে পারে।

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত