ক্ষমতাসীনদের ডুবাচ্ছে অতি উৎসাহীরা

তালিকা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে

শেখ মামুনূর রশীদ
অতি উৎসাহীদের একের পর এক বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে বারবার বেকায়দায় পড়ছে শাসক দল আওয়ামী লীগ। ‘নব্য আওয়ামী লীগার’ বলে পরিচিত এই অতি উৎসাহীদের মধ্যে রয়েছে সাবেক ও বর্তমান আমলা, আইনজীবী, শিক্ষক, চিকিৎসক, প্রকৌশলীসহ পুলিশ প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা। কে কত বড় আওয়ামী লীগার, কে কতটা সরকারের কাছের- তা প্রমাণ করতে, সবার নজর কাড়তে, লাইম লাইটে আসতে নিজ উদ্যোগেই এরা একের পর এক বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্ম দিচ্ছেন। বিষয়টি দিন দিন এমন পর্যায়ে চলে যাচ্ছে- খোদ সরকার প্রধানকেই এসব ইস্যুতে হস্তক্ষেপ করতে হচ্ছে। এমনকি কোনো কোনো ঘটনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীও জানেন না। বিষয়টি নিয়ে বেশ চিন্তিত দলটির হাইকমান্ড। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে অনুপ্রবেশকারী অতি উৎসাহীদের তালিকা তৈরির কাজবিস্তারিত

প্রশাসনে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ চান ইসি কর্মকর্তারা

আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব * ভোটের সময় ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা * সমভোটে লটারি নয়, পুনঃভোট * আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংজ্ঞায় সশস্ত্র বাহিনী অন্তর্ভুক্ত * বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণার বিষয় স্পষ্ট

যুগান্তর রিপোর্ট
জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় প্রশাসনের ওপর কমিশনের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-১৯৭২ (আরপিও) সংশোধনের প্রস্তাব করেছেন ইলেকশন কমিশনের (ইসি) মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তারা। তারা নির্বাচনে আচরণবিধি প্রতিপালন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা চেয়েছেন। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণার বিষয়টি স্পষ্ট করার কথাও প্রস্তাবে বলা হয়েছে। সমভোট প্রাপ্তদের মধ্যে বিজয়ী ঘোষণার জন্য লটারি প্রথা বাতিল করে পুনঃভোট আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছেন কর্মকর্তারা। আমলাদের অবসরের পর নির্বাচনে অংশ নেয়ার সময় তিন বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর করা, সশস্ত্র বাহিনীকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংজ্ঞায় আনা, প্রার্থীদের জামানতের টাকা বাড়ানো, কোনো প্রার্থী নিজেকে স্বশিক্ষিত বলে দাবি করলেও সেজন্য সনদ নেয়ার বিধান চালুসহ গুচ্ছ প্রস্তাব করেছেন তারা। এসব প্রস্তাববিস্তারিত

সিএ প্রতিনিধি দল ঢাকায় চট্টগ্রামে যাবে আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার
বেতন-ভাতা নিয়ে বোর্ডের সঙ্গে যে দ্বন্দ্ব চলছে, সেটি না মিটলে দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে আগামী মাসে বাংলাদেশ সফরে আসবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। স্মিথ-ওয়ার্নারদের বাংলাদেশ সফর বয়কটের শঙ্কার মধ্যেই নিরাপত্তা পরিস্থিতি ও ভেন্যুর সুযোগ-সুবিধা পর্যবেক্ষণ করতে মঙ্গলবার ঢাকায় এসেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) প্রতিনিধি দল। এদিন প্রথম টেস্টের ভেন্যু মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামও ঘুরে দেখেছে সিএ’র পাঁচ সদস্যের দলটি। দু’দিনের সফরে ঢাকায় আসা সিএ’র প্রতিনিধি দলে আছেন নিরাপত্তাপ্রধান শন ক্যারল। তার সফরসঙ্গী হিসেবে আছেন লজিস্টিক বিভাগের কর্মকর্তারা। মিরপুরে তারা স্টেডিয়ামের মূল মাঠ, ড্রেসিংরুম, ইনডোর, জিম ও একাডেমি মাঠ পরিদর্শন করেছেন। তবে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেননি। মিরপুরে কাল ব্যস্ত সময়বিস্তারিত

আবারও অশ্লীল সিনেমা!

আনন্দনগর প্রতিবেদক
আন্দোলন, নিষেধাজ্ঞা আর কাদা ছোড়াছুড়ি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্র শিল্পের ধারক-বাহকরা। এ সুযোগে আবার আসন পাতছে অশ্লীল ছবিগুলো। কম বাজেটে মানহীন গল্প, নির্মাণ ও নায়ক নায়িকা নিয়ে শুটিং করেই মুক্তি দিচ্ছেন অনেক ছবি। ছবির পোস্টার আর ট্রেলার দেখেই আন্দাজ করা যায় কেমন হবে ছবিগুলো। সম্প্রতি মুক্তির ঘোষণা দেয়া ‘মধু হই হই বিষ খাওয়াইলা’ নামের একটি ছবির বিরুদ্ধে এমন অভিযোগই করেছেন দর্শকরা। ছবির আইটেম গান ও ট্রেলার দেখে অনেকেই অভিযোগ তুলেছেন- আবারও আসছে অশ্লীল সিনেমা। এটি পরিচালনা করেছেন জসীম উদ্দিন জাকির। ছবিটির নাম নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। ছবির এমন একটি নাম কেন? দর্শকরাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা করছেন ছবির ট্রেলার, নামবিস্তারিত

বন্যায় ভাসছে এশিয়া

ঝুঁকিতে ১৩ কোটি ৭০ লাখ মানুষ * এ অঞ্চলে বন্যার জন্য গঙ্গা, ব্রহ্মপুত্র ও ইয়াংসিকিয়াং নদী দায়ী * ১৯৫০ সাল থেকে বন্যায় চীন, ভারত ও বাংলাদেশে মারা গেছে ২২ লাখ মানুষ

যুগান্তর ডেস্ক
বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের ওপর দিয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ যখন আঘাত হানে তখন পাঁচ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হন। জুনে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে দুই মেয়েসহ আশ্রয় নেন ২৮ বছর বয়সী খোরশেদা খাতুন। জাতিসংঘ শিশু তহবিলের কর্মীদের তিনি জানান, ‘আরও অনেকের মতো ঘূর্ণিঝড়ে তার বাড়িঘর বিনষ্ট হয়েছে। ঘরের পলিথিনের ছাউনি উড়ে গেছে। ক্ষেতের ফসল তলিয়ে গেছে। কিছু না নিয়েই এখানে চলে এসেছি আমি।’ এর কয়েক সপ্তাহ পর দক্ষিণ চীনের হিমালয় এলাকার এক কোটি ২০ লাখ মানুষকে বন্যার কারণে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়। এ বছর চীনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের ঝিয়াংঝি প্রদেশে বন্যায় ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৩ কোটি ডলার। এর পাশের প্রদেশ হুনানে ৫৩ হাজারবিস্তারিত

ব্যবসা-বাণিজ্যে মন্দা

ইয়াসিন রহমান
পুরান ঢাকার শ্যামবাজার ক্রমেই জৌলুস হারাচ্ছে। একসময়ের একক আধিপত্য করা পাইকারি বাজার এখন নানা সমস্যায় জর্জরিত। এতে পাইকারি পণ্যের বৃহৎ এ বাজারে কমছে ব্যবসা-বাণিজ্য। এজন্য যানজট, রাস্তার বেহাল দশা, ট্রাকে চাঁদাবাজি, দুষ্ট সিন্ডিকেট এবং বাজার অব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন কারণকে দায়ী করছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যে বড় ভূমিকা রাখা এ পাইকারি বাজারের উন্নয়নে সরকারের সমন্বিত পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে আসা উচিত। এতে ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়া ব্যবসায়ীরা মোটা অংকের বিনিয়োগ লোকসানের ঝুঁকি থেকে বাঁচবে। পাশাপাশি কয়েক হাজার মানুষের কর্মসংস্থান রক্ষা পাবে। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, শ্যামবাজারজুড়ে ময়লা-আবর্জনার স্তূপ। হাটের আবর্জনায় ভরে গেছে বুড়িগঙ্গার তীর। রাস্তা বা ফুটপাতে যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনার ছড়াছড়ি। এছাড়া বাজারের রাস্তাগুলোবিস্তারিত

পানিবন্দি ভবদহের মানুষ

টানা বর্ষণে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

যশোর ব্যুরো, মনিরামপুর, অভয়নগর ও কেশবপুর প্রতিনিধি
কয়েক দিনের টানা বর্ষণে ভবদহ অঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর পদক্ষেপ না নেয়ায় হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। অসহায় মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে রাস্তার পাশে টংঘর ও আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছেন। মাছের ঘের ভেসে গেছে। যশোরের অভয়নগর, মনিরামপুর ও কেশবপুর উপজেলার (ভবদহ অঞ্চল) জলাবদ্ধ এলাকায় কয়েকশ’ কোটি টাকার মাছ, ফসল, বাড়িঘর ও সড়কের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এ অঞ্চলের নদী ও খালের পলি অপসারণে টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট (টিআরএম) চালু না হওয়ায় এবারও স্থায়ী জলাবদ্ধতার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। জানা গেছে, কয়েক দিনের টানা বর্ষণে মনিরামপুর উপজেলার অন্তত ৯ ইউনিয়নের অর্ধশত গ্রামের প্রায় পাঁচ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। শ্যামকুড় ইউনিয়নের হাসাডাঙ্গা,বিস্তারিত

আমরা কি গমে পুরোপুরি আমদানিনির্ভর হতে যাচ্ছি?

আবদুল লতিফ মন্ডল
সম্প্রতি চালের সংকট ও রেকর্ড মূল্যে আমরা অনেকটা দিশেহারা হয়ে পড়ায় দ্বিতীয় প্রধান খাদ্যশস্য গমের আমদানি যে অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে, তা আমাদের নজর এড়িয়ে গেছে। গত ১৮ বছরে একদিকে যখন দেশে গমের উৎপাদন কমেছে প্রায় ৩২ শতাংশ, তখন অন্যদিকে বিগত ১৬ বছরে গমের আমদানি বেড়েছে ১১ গুণ। গম উৎপাদনে ধস এবং আমদানি রেকর্ড পরিমাণে বৃদ্ধির কারণ পর্যালোচনা করাই এ নিবন্ধের উদ্দেশ্য। আমাদের খাদ্যশস্যের তালিকায় চালের পরের অবস্থানে থাকা গমের চাহিদা ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হাউসহোল্ড ইনকাম অ্যান্ড এক্সপেন্ডিচার সার্ভে ২০১০ অনুযায়ী ২০০৫ সালের মাথাপিছু দৈনিক খাদ্য হিসেবে গমের ব্যবহার ১২ দশমিক শূন্য ৮ গ্রাম থেকে বেড়েবিস্তারিত

হাতির পায়ে দড়ি

আশরাফুল আলম পিনটু
একদিন এক লোক রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ দাঁড়িয়ে পড়লেন একটা হাতি দেখে। হাতিটা বাঁধা ছিল একটা বাড়ির সামনে। লোকটি খুব অবাক হলেন। অত বড় একটা প্রাণীকে সামান্য একটা ছোট দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। তাও আবার শুধু সামনের একটা পা! লোহার কোনো শিকল নয়! নয় কোনো খাঁচা। এটা বোঝাই যায়, হাতিটা যে কোনো সময় পায়ের দড়ি ছিঁড়ে ফেলতে পারে। পালিয়ে যেতে পারে আটক জীবন থেকে। কিন্তু কী কারণে হাতিটা তা করছে না। লোকটা কাছেই হাতির মালিককে দেখতে পেলেন। তার কাছে জানতে চাইলেন, পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা না করে হাতিটা কেন ওখানে অমন দাঁড়িয়ে আছে। হাতির মালিক বললেন, ‘হাতিটা যখন খুব ছোট ছিল কিংবা তরুণবিস্তারিত

পদার্থবিজ্ঞান * তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি

পদার্থবিজ্ঞান

মো. বদরুল ইসলাম
সহকারী শিক্ষক, সরকারি বিজ্ঞান কলেজ সংযুক্ত হাই স্কুল, তেজগাঁও, ঢাকা জ্ঞানমূলক ও অনুধাবনমূলক প্রশ্ন ও উত্তর দ্বিতীয় অধ্যায়-গতি [পূর্বে প্রকাশিত অংশের পর] ৭৫। অসম দ্রুতি কাকে বলে? উত্তর : কোনো বস্তু তার গতিকালে যদি সমান সময়ে সমান দূরত্ব অতিক্রম না করে তা হলে সেই দ্রুতিকে অসম দ্রুতি বলে। ৭৬। সুষম ত্বরণ কাকে বলে? উত্তর : কোনো বস্তুর বেগ যদি নির্দিষ্ট দিকে সবসময় একই হারে বাড়তে থাকে তা হলে সেই ত্বরণকে সুষম ত্বরণ বলে। যেমন অভিকর্ষের প্রভাবে মুক্তভাবে পড়ন্ত বস্তুর ত্বরণ। ৭৭। অসম ত্বরণ কাকে বলে? উত্তর : কোনো বস্তুর বেগ বৃদ্ধির হার যদি সমান না থাকে, তা হলে সে ত্বরণকে অসম ত্বরণ বলে। সাইকেল, রিকশার ত্বরণ অসম ত্বরণ। ৭৮। অভিকর্ষবিস্তারিত

ভালো মানুষ হওয়ার পাশাপাশি ভালো ফলাফলও দরকার

সোলায়মান মোহাম্মদ
আর্কাইভ
প্রিন্ট সংস্করণ অনলাইন সংস্করণ
Content loader
Content loader

আজকের আবহাওয়া

আজকের প্রশ্ন

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, নিখোঁজ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আপনিও কি আতঙ্কিত বোধ করছেন না?
 হ্যাঁ না মতামত নেই

বিজ্ঞাপন

logo
বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ ইং
ফজর৬.০৫
যোহর১.১৫
আসর৪.১৫
মাগরিব৫.৩০
এশা৭.৩০
সূর্যোদয় - ৬.৪০সূর্যাস্ত - ৫.২০
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম
মেষ
বৃষ
মিথুন
কর্কট
সিংহ
কন্যা
তুলা
বৃশ্চিক
ধনু
মকর
কুম্ভ
মীন
মেষ (২১ মার্চ - ২০ এপ্রিল)
পারিবারিক কোনো শত্রু আজ সক্রিয় হয়ে উঠতে পারে। ব্যয় নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন। রোমান্স ও বিয়ে শুভ হতে পারে। যাত্রা শুভ।
বৃষ (২১ এপ্রিল - ২১ মে)
দূরের কোনো ভালো খবর আপনাকে আবেগপ্রবণ করে তুলতে পারে। জমি সংক্রান্ত বিষয়ে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন। যাত্রা শুভ। কেনাকাটা শুভ।
মিথুন (২২ মে - ২১ জুন)
কাজে মনোযোগী হলে মানসিক শান্তি পাবেন। অধীনস্থদের ওপর দায়িত্ব অর্পণের আগে ভাবুন। যাত্রা শুভ। বিয়ের আলোচনায় সতর্ক থাকুন।
কর্কট (২২ জুন - ২২ জুলাই)
কাউকেই নিজের কোনো কাজে নাক গলাতে দেবেন না। পরিকল্পনা বাস্তবায়নে চিন্তাভাবনা করে সিদ্ধান্ত নিন। পারিবারিক কাজ দিনের শুরুতে সেরে নিন।
সিংহ (২৩ জুলাই - ২৩ আগস্ট)
দূরের যোগাযোগের ক্ষেত্রে আর্থিক বিষয় প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করতে পারে। বয়স্কদের স্বাস্থ্যের প্রতি নজর দিন। লেনদেনে সতর্ক থাকুন। প্রেম ও বিয়ে শুভ।
কন্যা (২৪ আগস্ট - ২৩ সেপ্টেম্বর)
পদস্থ কারও জন্য আজ জটিল কোনো সমস্যা নিরসনে বাধার সৃষ্টি হতে পারে। নিজের কাজে মনোযোগী হোন। দূরের যাত্রায় সঙ্গী সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।
তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর - ২৩ অক্টোবর)
কর্মস্থলে আজ বয়স্কদের সহযোগিতা পাবেন। প্রশাসনিক কাজে কারও ওপর নির্ভর করা ঠিক হবে না। যাত্রা শুভ। প্রেম ও রোমান্স শুভ।
বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর - ২২ নভেম্বর)
যোগাযোগ ও জনসংযোগ শুভ হতে পারে। নতুন কোনো কাজে হাত দেয়ার আগে ভালোভাবে যাচাই করে নিন। কেনাকাটায় চাকচিক্যে ভুলবেন না।
ধনু (২৩ নভেম্বর - ২১ ডিসেম্বর)
নতুন কোনো যোগাযোগ আর্থিক ব্যাপারে সফলতা আনতে পারে। নিজের সব কাজে গুরুত্ব দিন। পারিবারিক সমস্যা সমাধনে নিজেই উদ্যোগ নিন।
মকর (২২ ডিসেম্বর - ২০ জানুয়ারি)
ঝুঁকিপূর্ণ কাজে আজ হাত দেবেন না। বন্ধুদের সঙ্গে সময়টা ভালো যাবে। প্রাপ্তিযোগ শুভ। বিশ্রাম ও রোমান্স শুভ। দূরের যাত্রায় পানাহারে সতর্ক থাকুন।
কুম্ভ (২১ জানুয়ারি - ১৮ ফেব্রুয়ারি)
আত্মীয়স্বজনের কারণে ব্যয় বৃদ্ধি পাবে। কোনো কারণে উত্তেজনা বৃদ্ধি পাবে। যানবাহনে সতর্ক থাকুন। কেনাকাটায় চাকচিক্যে ভুলে গেলে বিপদ হতে পারে।
মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি - ২০ মার্চ)
কোনো কারণে অধীনস্থ কেউ মানসিক অশান্তির কারণ হতে পারে। যোগোযোগ ও জনসংযোগ শুভ। যাত্রা শুভ।

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত