¦

এইমাত্র পাওয়া

  • বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পার্শ্বে কোনাবাড়ি এলাকায় বাসে পেট্রোল বোমা হামলা: ৬ যাত্রী দগ্ধ ২ জনের অবস্থা আশংকাজনক
ধামরাইয়ে ৪ অবৈধ ড্রেজার মেশিন জব্দ : পাইপলাইন ধ্বংস

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি | প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

ধামরাইয়ের খড়ারচরে ধলেশ্বরীনদীতে অবৈধভাবে মিনি ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের অভিযোগে বুধবার ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়েছে। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) লস্কর দেবনাথ বাপ্পী ৪টি অবৈধ ড্রেজার মেশিন জব্দ চার কিলোমিটর বালু সরবরাহের পাইপ আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করেন। এ ঘটনায় ধরেশ্বরী নদীপাড়ের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ আনন্দে মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ মিছিল করে। সেই সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সামনে বালুদস্যুদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানান, ভূমি মন্ত্রণালয়, জেলা ও উপজেলা ভূমি অফিস থেকে কোনো ইজারা কিংবা কোনো অনুমতি গ্রহণ না করেই একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় এলাকার চিহ্নিত বালদস্যুরা রোয়াইল ইউনিয়নের খড়ারচর এলাকায় ধলেশ্বরী নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা মূল্যের বালু উত্তোলন করে আসছে। বালুদস্যুরা অবৈধভাবে এ বালু বিক্রি করে রাতরাতি কোটিপতি হলেও সরকার মোটা অংকের রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অপর দিকে নদীপাড়ের মানুষের বাড়িঘর, জমিজমা, কবরস্থান, শ্মশান, মসজিদ, মন্দির ও খেলার মাঠসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নদীগর্ভে বিলিন হচ্ছে। এ ব্যাপারে এলাকাবাসী ধামরাই ইউএনও এসএম রফিকুল ইসলামের কাছে অভিযোগ জানালে তিনি সহকারী কমিশনার (ভূমি) লস্কর দেবনাথ বাপ্পীকে ওই এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) লস্কর দেবনাথ বাপ্পী বুধবার সকালে ওই এলাকায় ধলেশ্বরী নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালান। এ সময় তিনি ৪টি অবৈধ ড্রেজার মেশিন জব্দ ও বালু উত্তোলনের চার কিলোমিটর ড্রেজার পাইপ আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করেন।
বাংলার মুখ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close