¦
নাগেশ্বরীতে টুপি তৈরিতে ভাগ্যের পরিবর্তন

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি | প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

জোবায়ের সিদ্দিকী স্বপন, নাগেশ্বরী (কুড়িগ্রাম) থেকে
সর্বগ্রাসী দুধকুমারের ভাঙনে জর্জরিত নাগেশ্বরী উপজেলার বেরুবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানপাড়া গ্রাম। এখানে প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাস করে। পুরুষরা বছরের বেশিরভাগ সময় মৌসুমী শ্রমিক হিসেবে দেশের বিভিন্ন জেলায় কাজের সন্ধানে যায়। বউ-ঝিরা স্বল্প পারিশ্রমিকে মাঠে হাড়ভাঙা পরিশ্রম ও অন্যের বাড়িতে কাজ করে সামান্য আয়ে সংসার চালানোর চেষ্টা করেন। কাজ না পেলে পরিবার নিয়ে দিন কাটে অতিকষ্টে। টানাটানির সংসারে রোজকার এ কষ্টে নাকাল গ্রামবাসীরা সর্বদা অন্যের মুখোপেক্ষী হয়ে থাকত। পথ খুঁজতে থাকে উত্তরণের। ঠিক এ সময় তাদের পাশে এসে দাঁড়ায় আরডিআরএস বাংলাদেশ সমন্বিত মঙ্গা নিরসন প্রকল্প (প্রাইম)। সংস্থাটি এলাকার ১৫ জন মহিলাকে টুপি তৈরির ১৫ দিনের প্রশিক্ষণ দেয়। পরবর্তীতে তাদের দেখে উৎসাহিত হয়ে গ্রামের অনেক মহিলাই টুপি তৈরির কাজ শুরু করেন। বর্তমানে ওই গ্রামের প্রায় ৭০ শতাংশ মহিলা টুপি তৈরি করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। বেরুবাড়ী চেয়ারম্যানপাড়া গ্রামটি এখন টুপির গ্রাম হিসেবে পরিচিত।
মিনারা, আছিয়া, আমেনা, বুলবুলি, রাশিদা, হাফিজাসহ টুপি তৈরির সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বলেন, কামের ফাকে টুপির কাজ কইরা আয় বাড়ান যায়, অভাবের সংসারে ট্যাহা দেওন যায় হেইডা আমাগোরে জানাই আছিল না। ঘরে বইয়া কাম শ্যাষে ৩০০-৪০০ ট্যাহা আয় কইরা ভালাই লাগতাছে। আমরা যাগোর কাছে টুপি দেই হেরাই টুপি তৈয়ারির ব্যাবাক জিনিস দিয়া থাহে। আমরা শুদুই কাম কইরা দেই, আর ট্যাহা নেই। আরডিআরএস বাংলাদেশ নাগেশ্বরী শাখার আইজিএ ইমপ্লিমেন্টেশন অফিসার (প্রাইম) শাহীন মিয়া বলেন, আরডিআরএস বাংলাদেশ সমন্বিত মঙ্গা নিরসন প্রকল্পের (প্রাইম) মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দিয়ে আমরাই উদ্যোক্তাদের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ করে দিয়েছি। যাতে তারা সহজেই উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে সরঞ্জামাদি নিয়ে টুপি তৈরি শেষে নির্দিষ্ট মজুরিতে তাদের কাছে সেগুলো তুলে দিতে পারেন। এখানে তৈরি টুপিগুলো ওমানসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে রফতানি হচ্ছে।
বাংলার মুখ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close