¦
রাজনগরে যাত্রার নামে অশ্লীলতা রুখে দিয়েছে এলাকাবাসী

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০১৫

জেলার রাজনগর উপজেলার ফেঞ্চুগঞ্জ-মৌলভীবাজার সড়কের পাশে নন্দিউড়া গ্রামে যাত্রার নামে অশ্লীল নাচ-গান ও জুয়ার আসরের আয়োজন এলাকাবাসীর প্রতিরোধে বন্ধ হয়ে গেছে। এ আয়োজন নিয়ে দুটি পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নিলে কিছুদিন ধরে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এলাকার সাধারণ মানুষ উপজেলার চৌধুরী বাজারে সমবেত হয়ে বিক্ষোভ করে। গ্রামবাসীর অভিযোগ, রাজনগর উপজেলার নন্দিউড়া গ্রামে সম্প্রতি আরও একটি যাত্রাপ্যান্ডেল চালানো হয়। ৩৬ দিন ধরে চলা ওই প্যান্ডেলে যাত্রাগানের নামে অশ্লীল নাচ এবং জুয়া-হাউজি চালানো হয়েছে। এটি শেষ হওয়ার পরপর একই এলাকায় কিছুদিন থেকে আরও একটি প্যান্ডেল তৈরির কাজ চলছিল। এতে নন্দিউড়াসহ আশপাশের সাত-আটটি গ্রামের লোকজন বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। জানা যায়, আয়োজকরা জেলা প্রশাসনের অনুমোদনের আগেই সেখানে প্যান্ডেল নির্মাণ শুরু করেছিল। সোমবার রাতে নন্দিউড়া গ্রামের পার্শবর্তী চৌধুরী বাজারে ভুজবল, মজিদপুর, উত্তর দাসপাড়া, দক্ষিণ দাসপাড়া, নন্দিউড়া ও ভবানীপুর গ্রামের লোকজন নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে সভা করেন। এ সভাটি আহ্বান করেন রাজনগর ইউপির মেম্বার আবদুল হাকিম। সভায় এলাকায় যাত্রার নামে অশ্লীল নাচ ও জুয়া-হাউজি বন্ধের দাবি ওঠে। সভা শেষে এলাকাবাসী একটি বিক্ষোভ মিছিল করে। এরপর মসজিদের মাইক থেকে গ্রামবাসীকে জড়ো হওয়ার আহ্বান জানালে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে থাকে। লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে চৌধুরী বাজারে সমবেত হয়। খবর পেয়ে রাজনগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করে। মঙ্গলবার দুপুরে প্রশাসনের নির্দেশে প্যান্ডেলটি ভেঙে দেয়া হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে রাজনগর থানার ওসি শামসুজ্জোহা পিপিএম বলেন, গ্রামবাসী যাত্রাগান আয়োজনের বিরোধিতা করায় এলাকায় কয়েকদিন ধরে উত্তেজনা ছিল। আইনশৃংখলা পরিস্থিতির অবনতির আশংকায় আয়োজকদের প্যান্ডেল ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বাংলার মুখ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close