jugantor
রাজনগর ও কমলগঞ্জে চা শ্রমিকদের কর্মবিরতি পালন

  যুগান্তর ডেস্ক  

২০ অক্টোবর ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

দুর্গাপূজা উপলক্ষে উৎসব ভাতা না পাওয়ায় মৌলভীবাজারের রাজনগর ও কমলগঞ্জে চা বাগানের শ্রমিকরা সোমবার কর্মবিরতি পালন করেছেন। যুগান্তর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

কুলাউড়া : মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মাথিউরা চা বাগানের শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করেছেন। চুক্তি অনুযায়ী দৈনিক মজুরি ও উৎসব ভাতা না পাওয়ায় শ্রমিকরা এ কর্মবিরতির ডাক দেন। সোমবার সকাল ৮টা থেকে শ্রমিকরা ২নং বাংলোর সামনে জড়ো হয়ে ১১টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন করেন। পরে বাগানের সহকারী ব্যবস্থাপক প্রাপ্য মজুরি দেয়ার আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা কাজে ফিরে যান।

জানা যায়, বাংলাদেশীয় চা সংসদ (বিটিএ) এবং চা শ্রমিক ইউনিয়নের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির অনুযায়ী চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে শ্রমিকদের দৈনিক মজুরির ৬৯ টাকা পরিবর্তে ৮৫ টাকা ধার্য করা হয়। সেই হিসেবে মালিকপক্ষের কাছে চলতি মাস পর্যন্ত তাদের প্রত্যেকের ১৫০০ টাকা পাওনা হয়েছে। এছাড়াও চুক্তি অনুযায়ী দুর্গাপূজায় শ্রমিকদের উৎসব ভাতার ৫০ শতাংশ হাজার ১৩৬০ টাকা দেয়ার কথা। উপজেলার অন্যান্য বাগানের শ্রমিকরা পূজার আগে বকেয়া মজুরিসহ উৎসব ভাতা পেলেও মাথিউরা চা বাগানের ৬১৮ জন শ্রমিক তাদের পাওনা বুঝে পনয়নি। ফলে এ নিয়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা গতকাল সকাল সহকারী বাগান ব্যবস্থাপকের বাংলোর সামনে জড়ো হয়ে কর্মবিরতি পালন করে। পরে বিশ্বজিৎ পুরকায়স্থ মঙ্গলবারের মধ্যে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও উৎসব ভাতা পরিশোধের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে কাজে যোগ দেন।

কমলগঞ্জ : দুর্গাপূজা উপলক্ষে চা বাগানের শ্রমিকরা উৎসব বোনাস পেয়ে থাকেন। কিন্তু এ বছর চা বাগানের শ্রমিকদের দুর্গাপূজায় উৎসব প্রদানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন চা বাগান থেকে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এনটিসির (ন্যাশনাল টি কোম্পানি) চা বাগানগুলোতে পূর্বের হারে টাকা প্রদান করায় শ্রমিকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়ায় সোমবার সকাল থেকেই শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করছেন। কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানের শ্রমিক রাম লাম্মা রাজভর, দেওরাছড়া চা বাগানের মল্লিক মিয়াসহ আরও অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, তাদের আইনানুযায়ী ন্যায্য বোনাস হতে বঞ্চিত করা হয়েছে। ধলই ভ্যালী কমিটির সাবেক সভাপতি গরানা অলমিক বলেন, চা শ্রমিকদের উৎসব ভাতা ১৮২৩ টাকা পাওয়ার কথা। কিন্তু ৫-৬ দিন আগে এনটিসির চা বাগানে পূর্বের হারে ৮৯৭ টাকা প্রদান করা হয়েছে। এতে শ্রমিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। ফলে কমলগঞ্জে এনটিসির কুরমা, চাম্পারায়, পাত্রখোলাসহ বিভিন্ন চা বাগানে শ্রমিকরা সকাল থেকেই কর্মবিরতি পালন করেন।



সাবমিট

রাজনগর ও কমলগঞ্জে চা শ্রমিকদের কর্মবিরতি পালন

 যুগান্তর ডেস্ক 
২০ অক্টোবর ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 
দুর্গাপূজা উপলক্ষে উৎসব ভাতা না পাওয়ায় মৌলভীবাজারের রাজনগর ও কমলগঞ্জে চা বাগানের শ্রমিকরা সোমবার কর্মবিরতি পালন করেছেন। যুগান্তর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

কুলাউড়া : মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার মাথিউরা চা বাগানের শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করেছেন। চুক্তি অনুযায়ী দৈনিক মজুরি ও উৎসব ভাতা না পাওয়ায় শ্রমিকরা এ কর্মবিরতির ডাক দেন। সোমবার সকাল ৮টা থেকে শ্রমিকরা ২নং বাংলোর সামনে জড়ো হয়ে ১১টা পর্যন্ত কর্মবিরতি পালন করেন। পরে বাগানের সহকারী ব্যবস্থাপক প্রাপ্য মজুরি দেয়ার আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা কাজে ফিরে যান।

জানা যায়, বাংলাদেশীয় চা সংসদ (বিটিএ) এবং চা শ্রমিক ইউনিয়নের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির অনুযায়ী চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে শ্রমিকদের দৈনিক মজুরির ৬৯ টাকা পরিবর্তে ৮৫ টাকা ধার্য করা হয়। সেই হিসেবে মালিকপক্ষের কাছে চলতি মাস পর্যন্ত তাদের প্রত্যেকের ১৫০০ টাকা পাওনা হয়েছে। এছাড়াও চুক্তি অনুযায়ী দুর্গাপূজায় শ্রমিকদের উৎসব ভাতার ৫০ শতাংশ হাজার ১৩৬০ টাকা দেয়ার কথা। উপজেলার অন্যান্য বাগানের শ্রমিকরা পূজার আগে বকেয়া মজুরিসহ উৎসব ভাতা পেলেও মাথিউরা চা বাগানের ৬১৮ জন শ্রমিক তাদের পাওনা বুঝে পনয়নি। ফলে এ নিয়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা গতকাল সকাল সহকারী বাগান ব্যবস্থাপকের বাংলোর সামনে জড়ো হয়ে কর্মবিরতি পালন করে। পরে বিশ্বজিৎ পুরকায়স্থ মঙ্গলবারের মধ্যে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও উৎসব ভাতা পরিশোধের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে কাজে যোগ দেন।

কমলগঞ্জ : দুর্গাপূজা উপলক্ষে চা বাগানের শ্রমিকরা উৎসব বোনাস পেয়ে থাকেন। কিন্তু এ বছর চা বাগানের শ্রমিকদের দুর্গাপূজায় উৎসব প্রদানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন চা বাগান থেকে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এনটিসির (ন্যাশনাল টি কোম্পানি) চা বাগানগুলোতে পূর্বের হারে টাকা প্রদান করায় শ্রমিকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়ায় সোমবার সকাল থেকেই শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করছেন। কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা বাগানের শ্রমিক রাম লাম্মা রাজভর, দেওরাছড়া চা বাগানের মল্লিক মিয়াসহ আরও অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, তাদের আইনানুযায়ী ন্যায্য বোনাস হতে বঞ্চিত করা হয়েছে। ধলই ভ্যালী কমিটির সাবেক সভাপতি গরানা অলমিক বলেন, চা শ্রমিকদের উৎসব ভাতা ১৮২৩ টাকা পাওয়ার কথা। কিন্তু ৫-৬ দিন আগে এনটিসির চা বাগানে পূর্বের হারে ৮৯৭ টাকা প্রদান করা হয়েছে। এতে শ্রমিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। ফলে কমলগঞ্জে এনটিসির কুরমা, চাম্পারায়, পাত্রখোলাসহ বিভিন্ন চা বাগানে শ্রমিকরা সকাল থেকেই কর্মবিরতি পালন করেন।



 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র