jugantor
হত্যার দায় প্রধানমন্ত্রীকে নিতে হবে: শাহ মোয়াজ্জেম

  ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি:  

২৮ জানুয়ারি ২০১৪, ১৪:১৯:৪৯  | 

সারা দেশে ছাত্রদল-ছাত্রশিবির ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে ক্রসফায়ারের নামে প্রকাশ্যে হত্যা করা হচ্ছে। শিবির বলে যাদের হত্যা করা হচ্ছে তারা পাকিস্তানি নয় বাংলাদেশি। এ হত্যার দায় প্রধানমন্ত্রীকে নিতে হবে। মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ভূমিদল’ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক উপ- প্রধানমন্ত্রী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন এ কথা বলেন।
সারা দেশে যেভাবে ছাত্রদল-ছাত্রশিবির ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে ক্রসফায়ারের নামে প্রকাশ্যে হত্যার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে একদিন কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে বলে মন্তব্য করে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ’৭১-র সময় তাদের অধিকাংশেরই জন্ম হয়নি। আমি শিবিরের পক্ষে কথা বলছি না। তবে মানবতার পক্ষে কথা বলছি। পাখির মতো গুলি করে মানুষ হত্যা করা হচ্ছে, কোন সভ্য সমাজে এটা চলতে পারে না।
প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আপনি (শেখ হাসিনা) এখন প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। কিন্তু আপনার রাগ এখনও কমেনি। গত ৫ জানুয়ারি একটি প্রহসনমূলক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আপনি ক্ষমতায় এসেছেন। কিন্তু জনগণের উপর আপনার রাগ এখন বন্ধ করুন। মানুষ হত্যা আর নয়, এখন ক্ষমতার মোহ ত্যাগ করে মানুষ হত্যা বন্ধ করুন। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে আপনি পাকিস্তানে চলে যেতে বলেন। কিন্তু আমি আপনাকে বলতে চাই, বাংলাদেশ ছেড়ে বেগম খালেদা জিয়া যাবে না, আপনি যাবেন ।
বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করেন, গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে আওয়ামী লীগ ও আন্তর্জাতিক মহল ষড়যন্ত্র করেছে, যাতে বেগম জিয়া নির্বাচনে অংশগ্রহন না করে এবং ক্ষমতায় আসতে না পারেন। নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত ৫ জানুয়ারি বাংলাদেশে কোন নির্বাচন হয়নি। কারণ এই নির্বাচনে জনগণ অংশগ্রহণ করেননি, এই নির্বাচন ছিল বিরোধী দলবিহীন একটি প্রহসন মূলক নির্বাচন।

সাবমিট

হত্যার দায় প্রধানমন্ত্রীকে নিতে হবে: শাহ মোয়াজ্জেম

 ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি: 
২৮ জানুয়ারি ২০১৪, ০২:১৯ পিএম  | 

সারা দেশে ছাত্রদল-ছাত্রশিবির ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে ক্রসফায়ারের নামে প্রকাশ্যে হত্যা করা হচ্ছে। শিবির বলে যাদের হত্যা করা হচ্ছে তারা পাকিস্তানি নয় বাংলাদেশি। এ হত্যার দায় প্রধানমন্ত্রীকে নিতে হবে। মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ভূমিদল’ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক উপ- প্রধানমন্ত্রী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন এ কথা বলেন।
সারা দেশে যেভাবে ছাত্রদল-ছাত্রশিবির ও বিরোধী দলের নেতাকর্মীকে ক্রসফায়ারের নামে প্রকাশ্যে হত্যার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে একদিন কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে বলে মন্তব্য করে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ’৭১-র সময় তাদের অধিকাংশেরই জন্ম হয়নি। আমি শিবিরের পক্ষে কথা বলছি না। তবে মানবতার পক্ষে কথা বলছি। পাখির মতো গুলি করে মানুষ হত্যা করা হচ্ছে, কোন সভ্য সমাজে এটা চলতে পারে না।
প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আপনি (শেখ হাসিনা) এখন প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। কিন্তু আপনার রাগ এখনও কমেনি। গত ৫ জানুয়ারি একটি প্রহসনমূলক নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আপনি ক্ষমতায় এসেছেন। কিন্তু জনগণের উপর আপনার রাগ এখন বন্ধ করুন। মানুষ হত্যা আর নয়, এখন ক্ষমতার মোহ ত্যাগ করে মানুষ হত্যা বন্ধ করুন। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে আপনি পাকিস্তানে চলে যেতে বলেন। কিন্তু আমি আপনাকে বলতে চাই, বাংলাদেশ ছেড়ে বেগম খালেদা জিয়া যাবে না, আপনি যাবেন ।
বিএনপির এই নেতা অভিযোগ করেন, গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে আওয়ামী লীগ ও আন্তর্জাতিক মহল ষড়যন্ত্র করেছে, যাতে বেগম জিয়া নির্বাচনে অংশগ্রহন না করে এবং ক্ষমতায় আসতে না পারেন। নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত ৫ জানুয়ারি বাংলাদেশে কোন নির্বাচন হয়নি। কারণ এই নির্বাচনে জনগণ অংশগ্রহণ করেননি, এই নির্বাচন ছিল বিরোধী দলবিহীন একটি প্রহসন মূলক নির্বাচন।

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র