¦
খালেদাকে গ্রেফতার করলে সরকারের 'রাজনৈতিক অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া' হবে

ঢাকা ২৩ জানুয়ারি : | প্রকাশ : ২৩ জানুয়ারি ২০১৫

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করলে বর্তমান সরকারের 'রাজনৈতিক অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া' সম্পন্ন হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, 'ভোটারবিহীন সরকার মনে করছে বেগম জিয়াকে গ্রেফতর করলেই বোধ হয় ২০ দলের আন্দোলনে ভাটা পড়বে। কিন্তু তারা ভুলে গেছে কথিত বন্দুকযুদ্ধ ও ক্রসফায়ারের পরও আন্দোলনকারীরা যখন হরতাল-অবরোধে অগ্রগামী, তখন বেগম জিয়াকে গ্রেফতারের পরিণতি হবে বর্তমান অবৈধ সরকারের জন্য রাজনৈতিক অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া।'
শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে রুহুল কবির রিজভী এসব কথা বলেন।
রিজভী বলেন, বর্তমান অবৈধ সরকারের প্রধান থেকে শুরু করে অন্য সদস্য ও শাসকদলের উচ্চপর্যায়ের নেতৃবৃন্দের বক্তব্য বিবৃতি শুনলে মনে হয়, কে কত নিম্ন রুচির ভাষা প্রয়োগ করতে পারে, সেটারই প্রতিযোগিতা করছে। মহান জাতীয় সংসদকে যেন আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় কার্যালয় কিংবা আওয়ামী মহাজোট সরকারের ক্লাব ঘরে পরিণত করা হয়েছে। সেখানে গান-বাজনা থেকে শুরু করে জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে গালিগালাজ এবং বর্তমান চলমান আন্দোলন দমানোর হুমকিধমকির প্রতিযোগিতা চলছে।
বিবৃতিতে রিজভী অভিযোগ করে বলেন, ছয় বছর ধরে বিএনপিকে ধ্বংস করতে এমন কোনো বেপরোয়া নিষ্ঠুরতা নেই, 'যা এই অবৈধ সরকার করেনি। আওয়ামী লীগের প্রকাশ্য কর্মসূচি ছিল বিএনপিসহ আন্দোলনরত বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গুম করা কিংবা বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে গুলি করে লাশ অজ্ঞাত স্থানে ফেলে দেওয়া। আওয়ামী শাসন আর মরণের বার্তা যেন সমার্থক। তিনি বলেন, জনগণের কণ্ঠনালি কেটে গণতন্ত্রকে কবরস্থ করার ঐতিহ্য এ দেশে একমাত্র আওয়ামী লীগেরই। সে জন্য নতুন রূপে নয়, আসল রূপেই বাকশালকে চূড়ান্তরূপে দাঁড় করানো হয়েছে। আর এ জন্যই খালেদা জিয়াকে বন্দী করার নানা ফন্দি আঁটা থেকে শুরু করে গণমাধ্যমকে শুধু সরকারের বার্তা প্রচারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর বাগ স্বাধীনতার আইনগত অধিকারকে তো আগেই শূলে চড়ানো হয়েছে।'
খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করতে আইনি প্রক্রিয়া দেখা হচ্ছে বলে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, এখন একদলীয় রাষ্ট্র, একদলীয় জাতীয় সংসদ, একদলীয় নির্বাচন, একদলীয় জনপ্রশাসন এবং একদলীয় বিচারব্যবস্থা বিরাজমান। সুতরাং সমগ্র রাষ্ট্রকেই আওয়ামীকরণ করা হয়েছে। এই ব্যবস্থায় আইনি প্রক্রিয়ার অর্থ হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রীর জারিকৃত ফরমানের ধারাবাহিক বাস্তবায়ন। অর্থাৎ গ্রেপ্তার থেকে শুরু করে বিচারের রায় পর্যন্ত। কিন্তু জনগণও যে বিচারক, আওয়ামী লীগ যেন সেটা ভুলে না যায়। আওয়ামী নেতারা ভুলে গেছে, দেশের মালিক জনগণ। কোনো ভোটারবিহীন সরকার বা সংসদ নয়। অসভ্য আস্ফালনকারীরা নিশ্চয় জনগণের স্মৃতি থেকে মুছে যাবে না।
 
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close