¦
ঢাকার বাইরের পরিস্থিতি খুবই খারাপ: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা ৭ ফেব্রুয়ারি : | প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত (ফাইল ছবি)

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, অর্থনৈতিক ক্ষতি নিয়ন্ত্রণের জন্য ঢাকার বাইরের জেলাগুলোকে সচল করার চিন্তা ভাবনা চলছে। ঢাকার সঙ্গে অন্য জেলাগুলো বিচ্ছিন্ন আছে। ঢাকার চেয়ে জেলাগুলোর 'পরিস্থিতি খুবই খারাপ' বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

শনিবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে ‘বাংলাদেশের আর্থসামাজিক অগ্রযাত্রা এবং সামষ্টিক অর্থনীতির সাম্প্রতিক অবস্থান’ বিষয়ক সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
অর্থমন্ত্রী বলেন, হরতাল-অবরোধের ফলে ঢাকায় কিছু বোঝা যায় না। কিন্তু রাজধানীর বাইরে জেলাগুলোতে পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করেছে।তিনি ঢাকার বাইরের জেলাগুলোকে সচল রাখার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশ সচল রাখতে গিয়ে অতিরিক্ত বরাদ্দ দিতে হচ্ছে।তবে কী পরিমাণ অতিরিক্ত বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে, তা এখনই বলব না।
দেশের সাম্প্রতিক পরিস্থিতির উত্তরণ কবে হবে- এব্যাপারে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘নো বডি নোউজ।
 তিনি সাংবাদিকদের পাল্টা জানতে চান, ‘আপনারা বলতে পারবেন? গত জানুয়ারিতে আমি আশা করেছিলাম, এক সপ্তাহের মধ্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসবে। এমন আশা তো করতেই পারি।
দেশ কি এ অবস্থার মধ্য দিয়েই যাবে এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ অদ্ভুত দেশ, চাইলেই হরতাল-অবরোধ হয়। তবে এর মধ্যেও মোট দেশজ উৎপাদনের প্রবৃদ্ধির হার (জিডিপি) ৬ শতাংশের ওপর থাকছে। সাম্প্রতিক সহিংস পরিস্থিতিতে অর্থনীতির কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, সে চিত্র আগামী মার্চে সমন্বয় কাউন্সিলের বৈঠকে তুলে ধরা হবে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এ আন্দোলন যারা করছে, তারা বাংলাদেশের শত্রু। তিনি সচেতন ব্যক্তিদের এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।
সংবাদ সম্মেলনে অর্থ সচিব মাহবুব আহমেদ, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব এম আসলাম আলম, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান ও অথনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মেজবাহউদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close