¦
কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

ঢাকা, ১৮ ফেব্রুয়ারি | প্রকাশ : ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় জামায়াতে ইসলামীর নেতা মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের মৃত্যুদন্ডের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ করেছে আপিল বিভাগ।
সংশ্লিষ্ট বিচারপতিদের স্বাক্ষরের পর সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখা বুধবার এই রায় প্রকাশ করা হয়। আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি এসকে সিনহা নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের বেঞ্চ গত ৩ নভেম্বর এই রায় ঘোষণা করে।

২০১৪ সালের ৩ নভেম্বর মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াত নেতা মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।
বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগ এ রায় ঘোষণা করেন। বেঞ্চের সদস্যরা হলেন- বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞা, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও  বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী।
২০১৩ সালের ৯ মে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াত নেতা মুহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষণা করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২।
কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে গণহত্যা, হত্যা, অপহরণ, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, নির্যাতন, লুটপাটসহ প্রসিকিউশনের আনা সাতটি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটিই সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মৃত্যুদণ্ডসহ বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয় ট্রাইব্যুনাল।
এছাড়া বাকি দুটি অভিযোগ প্রমাণ হয়নি মর্মে তাকে খালাস দেওয়া হয়।

আসামিপক্ষ পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের ১৫ দিনের মধ্যে পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) জন্য আবেদন করার সুযোগ পাবে।
নিয়ম অনুযায়ী এই রায়ের অনুলিপি হাতে পেলে এবং মৃত্যু পরোয়ানা জারির আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই সরকার সাজা কার্যকরের চূড়ান্ত প্রক্রিয়া শুরু করতে পারবে। 
ওই মৃত্যু পরোয়ানার ভিত্তিতেই সরকারের তত্ত্বাবধানে কারা কর্তৃপক্ষ সাজা কার্যকরের প্রস্তুতি নেবে। তবে রিভিউ আবেদন হলে তার নিষ্পত্তি হওয়ার আগে দণ্ড কার্যকর করা যাবে না।
আপিল বিভাগ রায় ঘোষণার সাড়ে তিন মাস পর এই পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ করা হল।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, আগামী রোববারের মধ্যে  সার্টিফায়েড কপি তৈরি হয়ে যাবে।

এ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, কামারুজ্জামানের রায় কার্যকরের ক্ষেত্রে দিন ধার্য করতে অসুবিধা নেই।  তবে কামারুজ্জামানের পক্ষ থেকে রিভিউ আবেদন দাখিল করার পরপরই মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের প্রক্রিয়া স্থগিত হয়ে যাবে।
তিনি বলেন, আজকেই আপিল বিভাগ থেকে রায়ের কপি ট্রাইব্যুনালে প্রেরণ করা হবে। তারপর ট্রাইব্যুনাল মৃত্যুপরোয়ানা জারি করবে।

 

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close