¦
তিস্তার পানি নিয়ে আস্থা রাখুন: মমতা [ভিডিওসহ]

ঢাকা, ২০ ফেব্রুয়ারি | প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি বললেন, দুই বাংলার মধ্যে কোনো বিভেদ থাকবে না। অমিমাংসিত তিস্তা ইস্যু সমাধানের আশ্বাস দিয়ে মমতা বললেন, তিস্তার পানি বণ্টন বিষয়ে আস্থা রাখুন। এবিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা করা হবে। কিছু সমস্যা আছে তবে এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করবেন না।
তিনি বলেন, কাঁটা তারের বেড়া দিয়ে সম্পর্কের ভাগাভাগি আনা যায় না। বাংলাদেশকে আমরা ছাড়তে পারি না। তেমনি বাংলাদেশও আমাদের ছাড়তে পারে না।
শুক্রবার দুপুরে হোটেল সোনারগাঁওয়ে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মমতা ব্যানার্জি। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও ভারতের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা যোগ দেন।
মমতা বলেন, কোনো বাধা থাকবে না। মনের দরজা খুলে দিতে হবে। সব শুনব এবং আমি হয়তো সব বলতে পারি না, জবাব দেব।
এসময় তিনি বলেন, শুধু তিস্তা কেন গঙ্গা, পদ্মা, মেঘনা নিয়ে আমরা ভাগাভাগি হতে দেব না। আমি মাটির মানুষ। আমার দিক থেকে স্থলসীমান্ত সমস্যা সমাধান করে দিয়েছি। তিস্তায়ও আস্থা রাখুন।

তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশে আসতে পেরে খুবই খুশি। ভাষা আন্দোলনের এই আবেগের দিনে এসে আমরা আপ্লুত।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে মমতা বলেন, আমাদের এপার বাংলা ওপার বাংলা, দুই বাংলার মধ্যে যতই রাজনৈতিক এবং ভৌগলিক বাউন্ডারি থাকুক, মনের কোনো বাউন্ডারি নেই।
চলচ্চিত্র পরিচালক নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু দুই দেশের মধ্যে চলচ্চিত্র বিনিময়ের আহ্বান জানান।

মমতা বলেন, টিভি চ্যানেল নিয়ে একটি দাবি আছে। আমাদের দিক থেকে কোনো অসুবিধা নেই।ভারত এখানে চাইলে বাংলাদেশে চ্যানেলগুলো ব্যবসায়িকভাবে আসতে পারে।
মমতা আরও বলেন, কলকতার রাজারহাটে তিনি জমি দেবেন। সেখানে বাংলাদেশ সরকার সেখানে একটি ভবন করুক। যেখানে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস থাকবে। তিনি বলেন, দুই দেশের সিনেমা শিল্প নিয়ে অনেক জট রয়েছে। আমি সেগুলো খোলার চেষ্টা করছি। এই জট খুলতে তিনি বাংলাদেশ থেকে তিনজন ও ভারত থেকে তিনজন নিয়ে একটি কমিটি করার প্রস্তাব দেন।

বৈঠকী বাংলায় দুই বাংলার সাহিত্য, সংস্কৃতি ও বিনোদন জগতের সমাবেশ হয়। গান,কবিতায় ভরপুর হয়ে ওঠে অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে  সঙ্গীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ও নচিকেতা গান পরিবেশন করেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close