¦
করিমগঞ্জের রাজাকার কমান্ডারের গ্রেফতারি পরোয়ানা

কিশোরগঞ্জ ব্যুরো, ২২ ফেব্রুয়ারি | প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

অবশেষে করিমগঞ্জের কুখ্যাত রাজাকার কমান্ডার আব্দুল মান্নান (গাজী মান্নান) সহ হাফিজউদ্দিন ও আজহারুল ইসলাম নামে তিন রাজাকারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন। আর ইতোপূর্বে একই যুদ্ধাপরাধ মামলায় গ্রেফতারকৃত অ্যাডভোকেট সামছুদ্দিনকে একদিন জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি আনোয়ারুল হকের সমন্বয়ে গঠিত ট্রাইব্যুনাল-১ গতকাল রোববার এসব আদেশ দেন বলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।
তদন্ত কর্মকর্তা আরও জানান, ইতোপূর্বে গ্রেফতারকৃত করিমগঞ্জ গ্রামের অ্যাডভোকেট সামছুদ্দিনের একই মামলায় গাজী মান্নান, হাফিজউদ্দিন এবং আজহারুল ইসলাম আসামি। তাদের বিরুদ্ধে একত্তরে মুক্তিযোদ্ধার বাবা আব্দুল বারেক, মিয়া হোসেন, মো. হাবিবুল্লাহ, শেখ চান্দু মিয়া, শেখ মালেক, আফতাবউদ্দিন, সিরাজউদ্দিন, আব্দুল জব্বার ও আব্দুল মালেককে গুলি করে হত্যাসহ নির্যাতন ও লুটপাটের ৫টি অভিযোগ আনা হয়েছিল। অ্যাডভোকেট সামছুদ্দিন গত বছর ২৭ নভেম্বর নান্দাইল থেকে আটক হয়ে বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। তার বড়ভাই ক্যাপ্টেন (অব.) নাছিরউদ্দিন আহম্মেদও একই মামলার আসামি। তবে গ্রেফতারি পরোয়ানা নিয়ে তিনি পলাতক আছেন। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রমতে, একাত্তরে মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী অনেক যুদ্ধে অংশ নিয়েও মারা না যাওয়ায় গর্ব ভরে রাজাকার কমান্ডার আব্দুল মান্নান নিজের নামের শেষে ‘গাজী’ উপাধি যুক্ত করে। এছাড়াও রাজাকার কমান্ডার মান্নানের বিরুদ্ধে করিমগঞ্জ উপজেলার মোলামখারচর খালপাড়া গ্রামের আবদুল ওয়াহেদের ছেলে কৃষক রুপালী মিয়া (৪৫) ও নোয়াবাদের কালিপুর গ্রামের অলি মামুদের ছেলে কিশোরগঞ্জ গুরুদয়াল কলেজের স্নাতক শ্রেণীর ছাত্র আবু বকর সিদ্দিককে বাড়ি থেকে ধরে এনে হত্যার অভিযোগ রয়েছে।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close