¦
রাসিক মেয়রকে বরখাস্তের আদেশ চেয়ে পুলিশের চিঠি!

রাজশাহী ব্যুরো, ২৮ ফেব্রুয়ারি: | প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল খুব শীঘ্রই সাময়িক বরখাস্তের আদেশ চেয়ে সদর দপ্তরে চিঠি পাঠিয়েছেন মহানগর পুলিশ কমিশনার। মেয়র পদে বহাল থাকলে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলোর তদন্ত প্রভাবিত হতে পারে বলেও ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
গত ২৩ জানুয়ারি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে এই চিঠি পুলিশ সদর দপ্তরে পাঠানো হয়। তবে বিষয়টি শুক্রবার রাতে জানাজানি হয়। এদিকে, ওই চিঠি ইতিমধ্যে পুলিশ সদর দপ্তর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবের কাছে পাঠিয়েও দিয়েছে বলে জানা গেছে।
তবে অভিজ্ঞমহল বলছেন, প্রয়োজন মনে করলে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় তাকে বরখাস্তের আদেশ দিতে পারেন। তাছাড়া, বুলবুল বিরোধী দলেরও নেতা নন যে, প্রশাসনে প্রভাব খাটাতে পারেন। পুলিশ তাকে গ্রেফতারে ব্যর্থ হয়েই এই চিঠি পাঠিয়েছে বলে মন্তব্য মহলটির।
আরএমপির একটি সুত্র জানিয়েছে, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নামে পুলিশ কনস্টেবল সিদ্ধার্থ সরকার হত্যাসহ বিস্ফোরক আইনে দায়ের করা অন্তত পাঁচটি মামলা রয়েছে। এসব মামলার তথ্য দিয়ে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল মেয়র পদে কর্মরত থাকলে মামলাগুলো প্রভাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এছাড়া তিনি আত্মগোপনে থেকেও রাষ্ট্রবিরোধী বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকান্ডে মদদ ও নির্দেশনা দিয়ে আসছেন। এজন্য তাকে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে।
রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. শামসুদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, সিটি মেয়র মোহাম্মদ মোসদ্দেক হোসেন বুলবুলকে দ্রুত সাময়িক বরখাস্ত করতে ২৩ জানুয়ারী পুলিশ সদর দফতরে চিঠি দেয়া হয়েছে। কারণ তিনি মেয়র পতে বহাল থাকলে মামলার তদন্ত বাধাগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
উল্লেখ্য,  ২০১৩ সালের ১৫ জুন সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন বিএনপি নেতা বুলবুল।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close