¦
পারস্পরিক আস্থা বাড়ানোর তাগিদ কূটনীতিকদের

ঢাকা, ৩ মার্চ: | প্রকাশ : ০৩ মার্চ ২০১৫

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাটসহ প্রভাবশালী কয়েকটি দেশের রাষ্ট্রদূত বিএনপি চেয়ারপারস বেগম খালেদা জিয়ার সাথে বৈঠক করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী বৈঠক শেষে কুটনীতিকরা রাত ৮টা ৩৫ মিনিটে গুলশান কার্যালয় থেকে বের হয়ে যান। বৈঠকে চলমান সংকট নিরসনে দেশের প্রধান দুই দলকে পারস্পরিক আস্থার সম্পর্ক বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। তারা বলেন, এই আস্থার অভাবেই নিরাপত্তা ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে।
বৈঠক শেষে গ্রেগ উইলকক সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশের বন্ধু হিসেবে বিএনপির চেয়ারপারসনের সঙ্গে তারা বৈঠক করতে আসেন। তারা মনে করেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার রক্ষায় রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রয়োজন। চলমান সহিংসতা কমাতে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে আস্থার সম্পর্ক বাড়াতে হবে। এজন্য আলোচনার তাগিদ দিয়েছেন তারা। তিনি বলেন, সহিংসতা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। এর কারণে নিরাপত্তা ও মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে। এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে খালেদা জিয়ার সাথে তাদের কথা হয়েছে।
রাতে ঢাকার অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে যান ১৫টি দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনারেরা এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত। তাদের মধ্যে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ফ্রান্স, কানাডা, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, দক্ষিণ কোরিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, জার্মানি, জাপান, ডেনমার্ক ও অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার ও রাষ্ট্রদূতেরা। দুই ঘণ্টার বৈঠক শেষে অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ উইলকক সাংবাদিকদের কাছে কূটনীতিকদের মনোভাব তুলে ধরেন।
অস্ট্রেলীয় হাইকমিশনের বিবৃতিতে বলা হয়, ১ মার্চ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকের ধারাবাহিকতায় বিএনপির চেয়ারপারসনের সঙ্গে এ বৈঠক হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক ঘটনা নিয়ে জাতিসংঘ ও আমাদের আগের বিবৃতির কথা মনে করে দিয়ে আমরা বাংলাদেশের চলমান সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছি। নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, প্রবৃদ্ধি, মানবাধিকার এবং গণতন্ত্রের স্বার্থে বাংলাদেশের রাজনৈতিক সংঘাত কমিয়ে আনার জন্য আস্থার সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়েছি।
মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টা ৩৬ মিনিটে বার্নিকাটের নেতৃত্বে কূটনীতিকরা খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাত করতে কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। প্রতিনিধিদলে ইইউভুক্ত ফ্রান্স, ইতালী, সুইডেন, ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস বৃটেনের রাষ্ট্রদূত ছাড়াও চীন ও অষ্টে্লিয়ার রাষ্ট্রদূতরা উপস্থিত ছিলেন। কূটনীতিকরা যখন খালেদার কার্যালয়ে যান তখন তাদের স্বাগত জানান বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস। পরে কূটনীতিকদের দোতলায় নিয়ে যান বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা না দেয়ায় গত ২৫ ফেব্রুয়ারি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। ইতোমধ্যে গত রোববার মহানগর মূখ্য হাকিমের আদালত খালেদা জিয়ার কার্যালয় তল্লাশির নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে আগামীকাল বুধবার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের বিচারাধীন দুটি দুর্নীতির মামলার তারিখ রয়েছে। বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত বিশেষ আদালতে হাজিরার তারিখ রয়েছে খালেদা জিয়ার।
এ অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আকস্মিকভাবেই খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে গেলেন কুটনীতিকরা।এসময় তারা বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে বৈঠকও করেন। বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানও উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close