¦
আজিমপুর থেকে দু'মাস পর নওহাটা পৌর মেয়রের লাশ উত্তোলন

রাজশাহী ৩ মার্চ : | প্রকাশ : ০৩ মার্চ ২০১৫

রাজশাহীর নওহাটা পৌরসভার মেয়র ও আ'লীগ নেতা আব্দুল গফুরের লাশ দু মাস পর আজিমপুর গোরস্থান খেকে উত্তোলন করেছে পুলিশ। ঢাকার অপহরণ করে হত্যার পর ভাই পরিচয়ে তার লাশ রাজধানীর আজিমপুর গোরস্থানে দাফন করেছিল কথিত প্রেমিকা মিম।

রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে মেয়র গফুরের কথিত প্রেমিকা ডা. জান্নাতুন সালমা মিম পুলিশকে এ তথ্য দেয়ার পর মঙ্গলবার বিকেলে লাশ উত্তোলন করা হয়।
মঙ্গলবার ডা. মীমকে নিয়ে আজিমপুর গোরস্থানে পৌছে বিকেল ৩টায় লাশ উত্তোলন করে পবা থানা পুলিশ।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, আজিমপুর গোরস্থানের রেজিস্ট্রারে উল্লেখ রয়েছে, গত ৩ জানুয়ারি মারা গেছেন মেয়র গফুর। আর তার লাশ দাফন করা হয় ৬ জানুয়ারি। এর আগে লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে রাখা ছিলো। দাফনের সময় ডা. মীম মেয়র গফুরকে তার ভাই হিসেবে পরিচয় দিয়ে লাশ গোপনে দাফন করে।
তিনি  জানান, জিজ্ঞাসাবাদে ডা. মীম মেয়র আব্দুল গফুরকে হত্যার দায় স্বীকার করেন।
কিন্তু পরে তাকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি নিতে আদালতে নেয়া হলে তা অস্বীকার করেন।
সর্বশেষ গত সোমবার তাকে আরো ৭ দিনের রিমান্ডে নেয়ার পর আব্দুল গফুরকে হত্যার কথা স্বীকার করে। এরপর মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আজিমপুর গোরস্থানে নিয়ে লাশ উত্তোলন করা হয়।
পরিবারের ভাষ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন মেয়র আব্দুল গফুর। গত ২ জানুয়ারি পর্যন্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগও হয় তার। এরপর আর যোগাযোগ না হওয়ায় গত ১৯ জানুয়ারি মেয়রের স্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা পারুল বাদী হয়ে পবা থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন।
পরে এ ঘটনায় ঢাকা ও নওগাঁ থেকে সন্দেহভাজন ওই দুই বোনকে আটক করে পুলিশ। এদের মধ্যে বড়বোন ডা. জান্নাতুন সালমা মীমের সঙ্গে মেয়র আবুল গফুরের অনৈতিক সম্পর্ক ছিলো।
 
 
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close