¦
বোমা তৈরীর সময় যুবদল নেতার হাত বিচ্ছিন্ন

রংপুর ব্যুরো, ১০ মার্চ: | প্রকাশ : ১০ মার্চ ২০১৫

নগরীর রবার্টসনগঞ্জ মহল্লায় গোপনে বোমা তৈরীর সময় বিস্ফোরিত হয়ে যুবদল নেতা ফিরোজ সরকার বিপ্লবের(২৯) হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় পালিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তাকে পুলিশ হেফাজতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায় মঙ্গলবার বিকেল অনুমান সাড়ে ৩টার সময় রবার্টসনগঞ্জ মহল্লায় সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা আমিনুল ইসলামের ছেলে যুবদল নেতা মোহাম্মদ রাসেল(২৮) এর বাসায় কয়েকজন মিলে ওই বোমা তৈরী করছিল। এ সময় অসতর্কতার কারনে হাতে তৈরী দুইটি বোমা বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরনের বিকট শব্দে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
প্রতিবেশিরা বিষয়টি তৎক্ষনিক টহল পুলিশের উপ-পরিদর্শক হারেস শিকদারকে জানায়। পুলিশ আসার আগেই সেখান থেকে যুবদল নেতা মোহাম্মদ রাসেল, জেলা যুবদলেরসহ সাংগঠনিক সম্পাদক ফিরোজ সরকার বিপ্লবসহ তার সঙ্গিরা পালিয়ে যায়। পুলিশ পরে ওই বাড়ীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে সেখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বোমা তৈরীর সরঞ্জাম, জর্দার কোটা, বোমা তৈরীর বিস্ফোরক-গান পাউডার, লোহার টুকরা, পাথর কুচিসহ কয়েকটি হাতে তৈরী বোমা উদ্ধার করে।
ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়ার পথে পুলিশ নগরীর টাউন হলের কাছ থেকে যুবদল নেতা ফিরোজ সরকার বিপ্লবকে গুরুতর আহত অবস্থায় গ্রেফতার করে।
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানায়, তার ডান হাতের কব্জিসহ বেশ কিছু অংশ বোমার আঘাতে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।
কোতয়ালী থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, নগরীতে বড় ধরনের নাশকতা ঘটানোর জন্য তারা ওই বোমা তৈরী করছিল। আটক যুবদল নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এ ঘটনা উদঘাটন করা হবে।
এদিকে রংপুরে নাশকতার আশংকায় পুলিশ বিএনপি ও জামায়াতের ১০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে জামায়াতের পাঁচ ও বিএনপির পাঁচ নেতাকর্মী রয়েছেন। সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত রংপুর পুলিশ মিঠাপুকুর, পীরগাছা ও রংপুর কোতয়ালী থানা এলাকায় বিভিন্ন মহল্লায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close