¦
অভিজিৎ হত্যা: বুয়েট শিক্ষক ফারসীমকে জিজ্ঞাসাবাদ

ঢাকা, ২৪ মার্চ: | প্রকাশ : ২৪ মার্চ ২০১৫

লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে বুয়েট শিক্ষক তারিক ফারসীম মান্নানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে  জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এর পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তবে প্রয়োজনে তারিক ফারসীম মান্নানকে আবারো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা গেছে।
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার কৃষ্ণপদ রায় জানান, মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে তাকে মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। তাকে শুধুমাত্র জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
গত ২০ মার্চ একটি অনুষ্ঠানে অভিজিতের বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অজয় রায় বুয়েটের এই শিক্ষকের বিষয়ে সন্দেহের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, তাকে হত্যার পর আমি এ ব্যাপারে খোঁজখবর নিই। যেদিন তাকে হত্যা করা হয় সেদিন হাসিন মান্নান নামের বুয়েটের একজন শিক্ষক তাকে মেসেজ করে। সেদিন অভিজিতের একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন হয়।
অভিজিতের বাবার এমন মন্তব্যের পর গত ২২ মার্চ ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, প্রয়োজন হলে বুয়েট শিক্ষক তারিক ফারসীম মান্নানকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। অভিজৎ রায় হত্যা মামলায় দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি না হলেও এর তদন্তে যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে বলেও ওইদিন দাবি করেছিলেন মনিরুল ইসলাম।
গত ২৬ ফেব্রুয়ারি রাত পৌনে ৯টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলন চত্বরের উল্টো পাশে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান সংলগ্ন ফুটপাতে কুপিয়ে হত্যা করা হয় লেখক অভিজিৎকে। হামলায় আহত হন অভিজিতের স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাও। দেশে কয়দিন চিকিৎসা নিয়ে পরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যান। অভিজিৎ হত্যাকাণ্ডের পরদিন অধ্যাপক অজয় রায় শাহাবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close