¦
তিনদিন পর কবর দেয়া হলো আদিবাসীর লাশ

রাজশাহী ব্যুরো, ২৬ মার্চ: | প্রকাশ : ২৬ মার্চ ২০১৫

রাজশাহীর তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউপির বিনোদপুর শুকানদিঘী পাড়ার আদিবাসী পল্লীর বাসিন্দাদের কবরস্থান না থাকায় মৃত্যুর তিনদিন পর পুকুরপাড়ে এক কবর দিতে হল এক আদিবাসীকে। এ ঘটনায় আদিবাসীদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। খবর পেয়ে জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্র নাথ সরেন ও দপ্তর সম্পাদক সুভাষ হেমব্রম বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত গোউর উঁরাওকে খাস জমিতে কবরস্থ করেন।
আদিবাসীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউপির বিনোদপুর শুকানদিঘী গ্রামের ২৩টি আদিবাসী পরিবার দীর্ঘদিন ধরে খাস জমিতে বসবাস করেন। কিন্তু তাদের কোনো কবরস্থান না থাকায় কেউ মারা গেলে বাড়ির আঙ্গিণায় কবর দেয়া হতো এতদিন। আদিবাসীরা তাদের জন্য একটি কবরস্থানের ব্যবস্থা করতে ইউপি চেয়ারম্যানসহ প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে।
এদিকে বিনোদপুর শুকানদিঘী গ্রামের মৃত ভোটলা উঁরাওয়ের পুত্র গৌউর উঁরাও (৮৫) দীর্ঘদিন অসুস্থ্য থাকার পর গত মঙ্গলবার বিকেলে মারা যান। কিন্তু কবরস্থান না থাকায় গত তিনদিন ধরে তাকে কবরস্থ করতে পারেননি আদিবাসীরা। আদিবাসীরা তার বাড়ির আঙ্গিণাতেও তাকে কবর দিতে পারেননি জায়গার অভাবে।
এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় আদিবাসী পরিষদের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির হস্তক্ষেপে এলাকার পুকুরপাড়ের খাস জমিতে গৌউর উঁরাওকে কবরস্থ করেন। এই তিনদিন গৌউরের লাশ পড়ে ছিল ঘরের মধ্যে।   
এব্যাপারে মৃত গৌউর উঁরাও এর ভাগ্নে হরেন উরাও বলেন, তাদের কোন কবরস্থান না থাকায় এবং বাড়ির পার্শে কোন জায়গাও না থাকায় আমার মামাকে কবর দেয়ার জন্য গত মঙ্গলবার গ্রামের পার্শ্ববর্তী পুকুর পাড়ের খাস জমিতে কবর খননের কাজ শুরু করা হয়েছিল। কিন্তু  চিমনা গ্রামের জোহুর আলীর পুত্র মোজাম্মেল হক তাতে  বাধা দেয়। পর দিন বুধবার সকালে আবার কবর খননের কাজ শুরু হলে মোজাম্মেলের লোকজন আমাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন। ফলে আমরা গৌউর উঁরাও এর লাশ কবরস্থ করতে পারছিলাম না।
আদিবাসীরা আরো জানান উপায়ন্তর না পেয়ে তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানীকে ঘটনাটি জানানো হয়। তিনি লোকজন পাঠিয়ে খাস জমিতে কবর খনন করে লাশ কবরস্থ করার ব্যবস্থা করেন।  
তানোর উপজেলা আ’লীগ সভাপতি গোলাম রাব্বানী বলেন আমি সকালে ঢাকা যাওয়ার পথে আদিবাসীরা মোবাইল ফোনে আমাকে জানায়। আমি খাস জমিতে লাশ কবরস্থ করতে বলেছি। যদি জায়গাটি লীজ দেওয়া হয়ে থাকে সেই জমি দখলমুক্ত সেখানে আদিবাসীদের কবরস্থান করা হবে।
এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে তানোর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনীরুজ্জামান ভূঁক্রা বলেন বিষয়টি আমার জানা নেই। আদিবাসীদের লাশ কবরস্থ করতে কেউ বাধা দিয়ে থাকলে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close