¦
এইচএসসি পরীক্ষা শুরু

ঢাকা, ১ এপ্রিল: | প্রকাশ : ০১ এপ্রিল ২০১৫

অবরোধ ও রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যেই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হল আজ। এই পরীক্ষায় সারা দেশে প্রায় পৌনে ১১ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। সকাল ১০টায় দেশের বাইরের ৭টি কেন্দ্রসহ সারা দেশে একযোগে ওই পরীক্ষা শুরু হয়। চলে ১টা পর্যন্ত। প্রথম দিন এইচএসসিতে বাংলা প্রথমপত্র, আলিমে কোরআন মজিদ এবং কারিগরিতে বাংলা-২ বিষয়ের পরীক্ষা।
পরীক্ষাকে সামনে রেখে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রথমবারের মতো মঙ্গলবার শুভেচ্ছা বিবৃতি দিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে দেয়া এই বিবৃতিতে তিনি তাদের সফল ও সুন্দর পরীক্ষা কামনা করেন। পাশাপাশি হরতাল-অবরোধের মতো রাজনৈতিক কর্মসূচির মধ্যেও পরীক্ষা চালিয়ে যাওয়ার যৌক্তিকতা তুলে ধরেন। তিনি তাদেরকে প্রশ্ন ফাঁসের গুজবের পেছনে না ছোটার পরামর্শ দিয়ে বলেন, প্রশ্ন ফাঁস হবে না।
এর আগে পরীক্ষা উপলক্ষে সোমবার দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে শিক্ষামন্ত্রী সুষ্ঠু, সুন্দর, নিরাপদে ও আনন্দঘন পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণে বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট এবং দেশবাসীর সহায়তা কামনা করেন। কমপক্ষে পরীক্ষার দিনগুলো হরতাল না দেয়ার জন্য ২০ দলীয় জোটের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।
এবার ৮টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসিসহ ডিআইবিএস (ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ), মাদ্রাসায় আলিম ও কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসি ভোকেশনাল, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা এবং ডিপ্লামা-ইন-কমার্স পরীক্ষা রয়েছে। এসব পরীক্ষায় সর্বমোট ১০ লাখ ৭৩ হাজার ৮৮৪ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।
গত বছর পরীক্ষার্থী ছিল ১১ লাখ ৪১ হাজার ৩৭৪ জন। এদের মধ্যে ছাত্র ৫ লাখ ৭০ হাজার ৯৯৩ ও ছাত্রী ৫ লাখ ২ হাজার ৮৯১ জন। মোট ২ হাজার ৪১৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে পরীক্ষা। দেশের বাইরে নতুন দু’টিসহ মোট ৭টি কেন্দ্রে ২৪১ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।
ঘোষণা অনুযায়ী আজ তত্ত্বীয় (লিখিত) পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হবে ১১ জুন। ব্যবহারিক পরীক্ষা ১৩ জুন শুরু হয়ে শেষ হবে ২২ জুন।
নিয়ন্ত্রণ কক্ষ : পরীক্ষা উপলক্ষে বিভিন্ন বোর্ডে একটি করে এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একটি ‘নিয়ন্ত্রণ কক্ষ’ খোলা হয়েছে। এ কক্ষ থেকে সার্বক্ষণিকভাবে সারা দেশের এইচএসসি ও সমমানের সব পরীক্ষা তদারকি করা হবে। এসব কেন্দ্রের প্রধান কাজ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়ে কঠোর নজরদারি করা। মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়েছে, প্রশ্ন ফাঁসহ পরীক্ষার বিষয়ে যে কোনো অপরাধের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ১৭২২ নম্বর কক্ষে তথ্য জানাতে। নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ফোন নম্বর ৯৫৪৯৩৯৬। মোবাইল নম্বর-০১৭৭৭-৭০৭৭০৫, ০১৭৭৭-৭০৭৭০৬।
শিক্ষামন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিবৃতি : শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সম্ভাব্য হরতালের মধ্যে পরীক্ষা চালিয়ে যাওয়ার যৌক্তিকতা তুলে ধরে এতে বলা হয়, তোমাদের ৩০ কর্মদিবসের পরীক্ষা শুধু শুক্র-শনিবারে নিতে গেলে চার-পাঁচ মাস লেগে যাবে। সেটি সম্ভব নয়। পরীক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের দাবি, মতামত ও পরামর্শের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমরা যে কোনো পরিস্থিতিতে রুটিনমাফিক পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। এর কোনো ব্যত্যয় হবে না। শুধু ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের কারণে ২৬, ২৭ ও ২৮ এপ্রিলের পরীক্ষাগুলো স্থগিত করেছি। নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যেই পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।
 

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close