¦
বুড়িগঙ্গায় ট্রলার ডুবিতে নিহত ৮, নিখোজ ৪

ফতুল্লা, ২ মার্চ: | প্রকাশ : ০২ এপ্রিল ২০১৫

ফাইল ফটো

ফতুল্লার আলীগঞ্জ ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে বুড়িগঙ্গা নদীতে বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবিতে আটজনের মৃতুদেহ উদ্ধার করেছে ডুবরী দল। নিখোজ রয়েছে আরো চারজন। বৃহস্পতিবার ১২টায় মতলবের লেংটার মেলা থেকে ঢাকা লালবাগ যাওয়ার পথে এঘটনা ঘটে। নিখোজদের খোজে কোস্ট গার্ড ও ফায়ার সাভির্স এর ডুবরী দল নদীতে অনুসন্ধান অব্যাহত আছে।
নিহতরা হলো- রুবেল (২০), জাকির (২৮), রুবেল (২৫), সাগর (১১), করমজান বিবি (৫৫), কাজল (২৮), হৃদয় (১৮)। এছাড়া হাসপাতালে নেয়ার পথে ছমির (৩৮) নামে আরেক জনের মৃত্যু হয়।
এদের মধ্যে রুবেল লালবাগ শহীদ নগর এলাকার ওহাব মিয়ার ছেলে একই এলাকার নুরুদ্দিন মিয়ার ছেলে জাকির, হাফেজ মিয়ার ছেলে রুবেল, মিজানের ছেলে সাগর, লাট মিয়ার ছেলে মাংস বিক্রেতা (কসাই) ছমির, মৃত. আয়ুব আলীর স্ত্রী করমজান বিবি, আজিজের ছেলে হৃদয়। এছাড়া নিহত স্বপন ও কাজলের আত্মীয় স্বজন পাওয়া যায়নি।
পাগলা কোস্ট গার্ড স্টেশনের পেটি অফিসার মোস্তফিজ যুগান্তরকে জানান, উদ্ধার করা লাশের মধ্যে ছয়জন পুরুষ একজন নারী ও একজন শিশু। ডুবে যাওয়া ট্রলারটি উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার অভিযান অব্যহত আছে।
নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক এবিএম মমতাজউদ্দিন জানান, এখনো ৩/৪ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে স্বজনদের দাবি। ফায়ার সার্ভিসের সাত সদস্যের একটি ডুবুরী দল কাজ করছে।  
কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) আবুল বাশার মোঃ ফকির জামান জানান, ঘাতক ট্রলারের নাম সাথীবুল বাহার-২। তাকে আটকের জন্য অভিযান চলছে।
নিহত সমিরের ছেলে তমাল জানান, লেংটার মেলা থেকে ঢাকা লালবাগ যাওয়ার পথে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ ও আলীগঞ্জ এলাকা বরাবর আসা মাত্র আমাদের ট্রলারের তেল ফুরিয়ে যায়। এসময় ঢাকা থেকে ফতুল্লাগামী একটি বালুবাহী ট্রলার আমাদের ট্রলারকে ধাক্কা দেয়। এতে মুহুর্তেই আমাদের ট্রলারটি ডুবে যায়। আমাদের ট্রলারে ওই সময় ৬০-৭০জন লোক ছিল। এদের মধ্যে থেকে আমার বাবাসহ ১২-১৪ জন নিখোঁজ হয়।
নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক আনিছুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান,  ট্রলার ডুবির ঘটনাটি ফতুল্লা-কেরানীগঞ্জের মধ্যবর্তী স্থানে। তবে ঘটনাস্থল ঢাকার দক্ষিন কেরানীগঞ্জ। এব্যাপারে কেরানীগঞ্জ জেলা প্রশাসন ব্যবস্থা নিবেন।
ঢাকা জেলা প্রশাসক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন ঘটনাস্থলে এসে জানান, সরকারের পক্ষ থেকে দাফনের জন্য নিহতের পরিবারদের হাতে ২০ হাজার টাকা করে তুলে দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close