¦
বুড়িগঙ্গায় ট্রলারডুবিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১

ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি, ৩ এপ্রিল | প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল ২০১৫

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার আলীগঞ্জ ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকার মধ্যবর্তী স্থানে বুড়িগঙ্গা নদীতে বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবিতে নিহতের সংখ্যা ১১ তে দাঁড়িয়েছে। এদিকে যারা নিখোঁজ রয়েছেন তাদের স্বজনরা এখন নদীর তীরে প্রতীক্ষার প্রহর গুনছেন।
শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় ট্রলার ডুবির দেড়শ গজ দূর থেকে এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জমেলা খাতুন মৃত. আব্দুর রশিদের স্ত্রী। তার ছেলে করিম লাশ শনাক্ত করেন। এছাড়া এদিন সন্ধ্যায় আরো দুইজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা ১১জনে দাঁড়ালো।
ফায়ার সার্ভিসের ডুবরী হুমায়ন কবীর যুগান্তরকে জানান, অভিযান অব্যাহত আছে। নিখোঁজদের পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা হয়েছে। তাদের আলীগঞ্জ খেলার মাঠে অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে। নিখোঁজরা হলেন, লালবাগ শহীদ নগর এলাকার রাজকুমারের ছেলে রাসেল(২২), একই এলাকার কোরবান আলীর ছেলে আলমগীর(৩০), মৃত. ওহাদ আলীর ছেলে সামাদ মিয়া(২০), মানিক মিয়ার ছেলে কাজল(২৮) ও মৃত. হোসেন আলীর ছেলে জালাল(৫৫)।
নিখোঁজ রাসেলের মা নাজমা কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানান, তার ছেলে মতিঝিল একটি ব্যাংকে নতুন চাকরী পেয়ে ২মাস পূর্বে বিয়ে করেছে। এলাকার অনেকের সঙ্গে একটি ট্রলারে করে লেংটার মেলায় আসেন। ওই ট্রলারের ৮জনের লাশ বাড়ি নিয়ে গেছেন। কিন্তু আমার ছেলে এখনো বাড়ি যায়নি।
জালালের ভাই আলাউদ্দিন জানান, আমার ভাইয়ে স্ত্রী আর ৬ মাসের একটি ছেলে আছে। এলাকায় ৮টি লাশ গিয়েছে কিন্তু আমার ভাইয়ের সন্ধান কেউ দিতে পারেনি।
নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক এবিএম মমতাজউদ্দিন জানান, ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ভোর থেকে অনুসন্ধান করছে।
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close