¦
২০ দলের বিক্ষোভ রোববার- অবরোধও চলবে

ঢাকা, ৪ এপ্রিল: | প্রকাশ : ০৪ এপ্রিল ২০১৫

রোববার সারাদেশে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। পাশাপাশি অবরোধ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে জোট। শনিবার সন্ধ্যায় জোটের পক্ষে এক বিবৃতিতে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদসহ গুমকৃত সব বিরোধী নেতাকর্মীদের অবিলম্বে অক্ষত অবস্থা ফেরত, শীর্ষ নেতৃবৃন্দসহ নেতাকর্মীদের মুক্তি ও গণগ্রেপ্তারসহ মামলা-হামলা বন্ধ করে দেশে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা এবং নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থার অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দাবিতে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।
কর্মসূচি সফল করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে এতে বলা হয়, চলমান অবরোধের পাশাপাশি রবিবার সারাদেশে জেলা, উপজেলা, থানা, পৌরসভা ও সকল মহানগরের থানায় থানায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।
বরকত উল্লাহ বলেন, একদিকে ২৮ এপ্রিল তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচন, অন্যদিকে বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতারে পুলিশের অযাচিত বাড়াবাড়ি গোটা নির্বাচনী পরিবেশকে প্রশ্নবিদ্ধ, কলুষিত ও আতঙ্কিত করে তুলেছে। তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় নির্বাচনসহ স্থানীয় যেকোনো নির্বাচনের ক্ষেত্রে সরকার নির্বাচন কমিশনের যেকোনো পরামর্শ ও নির্দেশনা মানবে এটাই বিধান। কিন্তু ‘ইসির নির্দেশ মানতে সংসদ সচিবালয় বাধ্য নয়’ মর্মে ইসিতে প্রেরিত চিঠি একদিকে যেমন নির্বাচন কমিশনকে বিস্মিত করেছে, অন্যদিকে সমগ্র দেশবাসীও হতাশ হয়েছে।
বিএনপি মুখপাত্র বলেন, সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করার ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন ব্যর্থতার পরিচয় দিলে কোনো মতেই সরকার ও নির্বাচন কমিশন দায় এড়িয়ে যেতে পারে না। কমিশন কর্তৃক সরকার সমর্থিত প্রার্থী ও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের নিয়ে ক্রমাগত বিমাতাসুলভ আচরণ নির্বাচনী পরিবেশকে আরো বেশি মাত্রায় সন্দেহপ্রবণ করে তুলেছে।
তিনি আরো বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবিলম্বে সালাহ উদ্দিনসহ গুমকৃত নেতাকর্মীদেরকে জনসমক্ষে হাজির করে উৎকণ্ঠিত পরিবারগুলোকে আশার আলো দেখাবে। পাশাপাশি গণদাবি অনুযায়ী নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ব্যবস্থার অধীনে অবিলম্বে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণ করে দেশব্যাপী চলমান মহাসংকট থেকে উত্তরণে ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী উদ্যোগী হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন বরকত উল্লাহ।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর