¦
নড়াইলে মাশরাফিকে বিরোচিত সম্বর্ধনা

নড়াইল, ৭ এপ্রিল: | প্রকাশ : ০৭ এপ্রিল ২০১৫

নড়াইলে বীরোচিত সম্বর্ধনা দেয়া হয়েছে জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে মঙ্গলবার বিকেলে নড়াইল সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে তাকে গণ-সম্বর্ধনা দেয়া হয়।
জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি বিন মুর্তজা (কৌশিক) মঙ্গলবার বেলা ৪টা ৫ মিনিটে হেলিকপ্টরে নড়াইল শহরের কুড়িগ্রাম’র কুড়িডোব মাঠে অবতরন করেন। সেখান থেকে হাতি,ঘোড়া, ও মোটর শোভা যাত্রার মাধ্যমে তাকে সম্বর্ধনা স্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। সড়কের পাশে দাড়িয়ে থাকা হাজারো ভক্ত দর্শক তাকে ফুল ছিটিয়ে এবং হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানান। এভাবে তিন কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম কালে তিনি ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন।
অনুষ্ঠান স্থলে পৌছানো মাত্র মাশরাফি মাশরাফি শ্লোগানে শ্লোগোনে মুখরিত হয়ে উঠে গোটা অনুষ্ঠান স্থল। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্বর্ধনা জানান। অনুষ্ঠান স্থলে মাশরাফির শিশু কন্যা, পুত্র, স্ত্রী সুমি, মাতা হামিদা খানম বলাকা ও পিতা গোলাম মুর্তজা স্বপন সহ নিকট আতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।
জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আব্দুল গাফফার খান। বক্তব্য দেন নড়াইল-২ আসনের সাংসদ শেখ হাফিজুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক এ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস,পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক আশিকুর রহমান মিকু প্রমুখ।
কৃতি সন্তানের আগমন উপলক্ষে শহর সেজেছিল অপরুপ বর্ণিল সাজে। তৈরী করা হয়েছিল বিশাল মঞ্চ। শহরের প্রধান প্রধান সড়কে নির্মান করা হয়েছিল বিশাল বিশাল তোরন। ব্যানার, ফেস্টুন, জাতীয় ক্রিকেট দল এবং সবার প্রিয় মাশরাফির ছবি দিয়ে সাজানো হয়েছিল রাস্তার দুপাশ, সরকারী বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।
২০০১ সালের ২৩ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের এক দিনের ম্যাচে প্রথম নাম লেখান। বাংলাদেশের একমাত্র সফল অধিনায়ক ৩১ বছর বয়সী মাশরাফি বিন মোর্তজা। এরপর থেকে তাকে আর পিছনে তাকাতে হয়নি। একগ্রতা, কঠোর অনুশীলন, আত্মবিশ্বাস ও ছোটমামা নাহিদ এর অনুপ্রেরণায় সার্বিক সহযোগিতা এবং নড়াইলবাসীর দোয়া ও ভালবাসায় তিনি হয়ে ওঠেন বাংলাদেশ ক্রিকেট অঙ্গনের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র।
নড়াইল শহর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও নড়াইল সরকারী উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেন। পরে নড়াইল সরকারী ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্র ছিলেন। পিতা গোলাম মোর্তজা স্বপন নড়াইল শহরের মহিষখোলা গ্রামের বাসিন্দা। ব্যক্তিগত জীবনে কৌশিক বিবাহিত এক কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের পিতা। ছোটভাই সিজার সেও ক্রিকেটার, ইতিমধ্যেই বড়ভাইয়ের পদাঙ্ক অনুসরন করে এক্ষেত্রে নৈপূন্যের স্বাক্ষর রাখতে সক্ষম হয়েছেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close