¦
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবাদিকতায় শ্রেষ্ঠ পুরষ্কার পেলেন মিজান মালিক

ঢাকা, ৮ এপ্রিল: | প্রকাশ : ০৮ এপ্রিল ২০১৫

যমুনা টেলিভিশনের ইনভেস্টিগেশন থ্রি-সিক্সটি ডিগ্রি ও ক্রাইম সিনের এডিটর মিজান মালিক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাংবাদিকতায় শ্রেষ্ঠ প্রতিবেদনের জন্য প্রখ্যাত সাংবাদিক ‘বজলুর রহমান স্মৃতিপদক’ পেয়েছেন। বুধবার বিকেলে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছ থেকে তিনি এ সম্মাননা পুরষ্কার গ্রহণ করেন।
মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর ২০০৮ সাল থেকে এ পুরষ্কার প্রদান করে আসছে। আসল আর নকল মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে ২০১৪ সালের ১৩ জুন যমুনা টিভির ইনভেস্টিগেশন ৩৬০ ডিগ্রিতে প্রচারিত অনুসন্ধানী প্রতিবেদন ‘যোদ্ধা ১৯৭১’এর তিনি এ পুরষ্কার পান।  
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলার ছাত্র মিজান মালিক এর আগেও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার জন্য একাধিক পুরষ্কার অর্জন করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন বিষয়ক অনুসন্ধানী রিপোর্টের জন্য ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) পুরস্কার, অপরাধ বিষয়ক রিপোর্টের জন্য পরপর দু’বার বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) এওয়ার্ড ও বিশেষ অনুসন্ধানী রিপোর্টের জন্য ২০১৩ সালে দুদক মিডিয়া এওয়ার্ড অর্জন করেন।
মিজান মালিক সাংবাদিকতার পাশাপাশি বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথেও সম্পৃক্ত রয়েছেন। তিনি নিয়মিত কবিতা ও গান লিখছেন। রবি চৌধুরীর গাওয়া গান ‘একলা হতে চাই’ এলবামের জন্য ২০০৬ সালে বাচসাস (বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি) এওয়ার্ড অর্জন করেন। এ ছাড়া এণ্ড্রুকিশোরের গাওয়া এলবামের জন্য তিনি বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক পরিষদের পুরস্কার অর্জন করেন।
তার মূল ভাবনায় এবং অনুরূপ আইচের রচনায় ও মোস্তফা কামাল রাজের পরিচালনায় নাটক ‘ক্রাইম রিপোর্টার’ সম্প্রচারিত হয় আরটিভিতে। গান, কবিতা, নাটক ছাড়াও মিজান মালিক পদ্মা সেতু নিয়ে একটি তথ্যানুসন্ধানমূলক গ্রন্থ লিখেছেন। নাম- ‘পদ্মা সেতু : পর্দার অন্তরালে’। শ্রাবণ প্রকাশনী বইটি প্রকাশ করে ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে।
উল্লেখ্য, এ বছর বজলুর রহমান স্মৃতিপদক জুরি বোর্ডের সভাপতি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বোর্ডের অপর সদস্যরা হলেন, কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, দেশ বরেন্য সাংবাদিক ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, প্রখ্যাত সাংবাদিক আবেদ খান, চ্যানেল আই এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, এটিএন বাংলার উপদেষ্টা সম্পাদক নওয়াজেশ আলী খান, কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট কমিউনিকেশনের নির্বাহী পরিচালক মুহম্মদ জাহাঙ্গীর, বাংলাদেশ রিসার্চ এন্ড পাবলিকেশন্স এর পরিচালক মেজর (অব.) এএসএম সামছুল আরেফিন, কথা সাহিত্যিক জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত, দৈনিক সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুনীরুজ্জামান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস এবং মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর এর ট্রাস্টি ডা. সারওয়ার আলী।
সংবাদপত্র ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রচারিত প্রতিবেদনের গভীরতা, গবেষণা, জনগনের অংশগ্রহন, ভাষার ব্যবহার, হৃদয়গ্রাহিতা, নির্মানশৈলী ও নান্দনিকতা প্রভৃতি মূল্যায়ন করে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে দায়িত্বশীল সাংবাদিকতার জন্য আবেদনকারি সাংবাদিকদের মধ্য থেকে প্রতিযোগীতার মাধ্যমে এ পুরষ্কার দেয়া করা হয়।
এ বছরে ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় যমুনা টিভির মিজান মালিক ছাড়াও ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সমকালের রাজিব নূরও পৃথকভাবে পুরষ্কার অর্জন করেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close