¦
খিলগাঁওয়ে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

প্রিন্ট সংস্করণ, ৯ এপ্রিল: | প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৫

আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে রাজধানীর খিলগাঁওয়ে এক যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে আরেক যুবলীগ নেতা। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে খিলগাঁও জোড়পুকুর মাঠের পাশে মোল্লা আরিফকে গুলি করা হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাত ১১টায় তিনি মারা যান।
তবে মৃত্যুর আগে তিনি হত্যাকারীদের নাম বলে গেছেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে মহানগর (দক্ষিণ) যুবলীগ নেতা শুভ, ইমরান, মিঠু ও আরিফ তাকে গুলি করে। তার দুই পা ও পেটে গুলি লাগে। খবর পেয়ে মা মাজেদা বেগমসহ তার স্বজনরা হাসপাতালে ছুটে যান। কান্নায় ভেঙে পড়েন মা মাজেদা বেগম। তার আর্তনাদে হাসপাতালের বাতাস ভারি হয়ে ওঠে। স্বজনদের কোনো সান্ত্বনা তাকে শান্ত করতে পারছিল না।
তিনি বলেন, যারা আমার বুক খালি করল আমি তাদের বিচার চাই। যারা খুন করেছে তারা এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী।
খিলগাঁও থানার ওসি জিয়া মো. মোস্তাফিজ ভূঁইয়া রাত ১২টায় যুগান্তরকে জানান, এখনও থানায় মামলা হয়নি। মোল্লা আরিফকে একাধিক গুলি করা হয়েছে। তবে তিনি কারও কাছ থেকে দুর্বৃত্তদের নাম শোনেননি বলে জানান।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানিয়েছে, জোড়পুকুর মাঠের পাশ দিয়ে মোল্লা আরিফ যাচ্ছিলেন। এ সময় দুটি মোটরসাইকেলে এসে চার যুবক তাকে একাধিক গুলি করে পালিয়ে যায়। পায়ে ও পেটে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্থানীয় কয়েকজন মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
আহত অবস্থায় মোল্লা আরিফ হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, তিনি খিলগাঁও ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের নেতা শুভ, ইমরান, মিঠু ও আরিফ তাকে গুলি করেছে। তবে কী কারণে তাকে গুলি করেছে সেটা তিনি বলেননি। শুধু বলেছেন, পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাকে গুলি করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, গোড়ান টেম্পোস্ট্যান্ড, রামপুরা বাসস্ট্যান্ড, বনশ্রী বাসস্ট্যান্ড ও দক্ষীণ বনশ্রী রুটের চাঁদাবাজি এবং আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মহানগর যুবলীগ নেতা রাউফন আরেফিন শুভর সঙ্গে মোল্লা আরিফের প্রায় তিন মাস ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। মাসখানেক আগে মোল্লা আরিফ লোকজন নিয়ে শুভকে ছুরিকাঘাত করে। ওই ঘটনার জের ধরে শুভ তাকে গুলি করতে পারে বলে স্থানীয় সূত্রটি জানায়। তার বাসা রাজধানীর ৮৪, উত্তর গোড়ান। বাবার নাম মনজিল হোসেন। বাবা থাকেন গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায়। স্ত্রী, এক ছেলে, এক মেয়ে ও মা মাজেদা বেগমকে নিয়ে উত্তর গোড়ানে থাকতেন মোল্লা আরিফ।
 

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close