¦
দেশে গণতন্ত্রের আড়ালে রাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চলছে : বিচারপতি রউফ

ঢাকা ৬ মে: | প্রকাশ : ০৬ মে ২০১৫

সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ বলেছেন, বর্তমান সরকার সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে গণতন্ত্রের আড়ালে রাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে। সংবিধান পরিবর্তন করা না হলে এভাবে একের পর এক গণমাধ্যম বন্ধ হতেই থাকবে।

তিনি বলেন, জনগণকে ক্ষমতার উৎস বললেও বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে তাদেরকে ধোঁকা দেওয়া হচ্ছে। ক্ষমতা জনগণের মধ্যে আনতে হবে। এটা সম্ভব না হলে গণমাধ্যমসহ কেউই নিরাপদ নয়।
বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে দিগন্ত টেলিভিশন সাময়িক সম্প্রচার নিষেধাজ্ঞার আঁধারে দুঃসহ দুই বছর শীর্ষক প্রতিবাদী সংহতি সম্মিলনে তিনি এ কথা বলেন।
সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক রুহুল আমিন গাজী বলেন, কিছু দিন আগে মুক্ত মিডিয়া দিবসের অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী মিডিয়ার অনেক সমলোচনা করেছেন। কিন্তু যে সকল মিডিয়া বন্ধ আছে সে সর্ম্পকে তিনি কোনো কথা বলেননি। এটা খুবই দুঃখজনক।
সাংবাদিক ও কলামিস্ট মাহফুজ উল্লাহ বলেন, যে সমাজে ভিন্ন মত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকে না সে সমাজ বেশি দিন টিকে থাকে না। যারা টেবিলে বসে বক্তব্য রাখেন তারা কখনো বন্ধ গনমাধ্যম খুলতে পারে না।
কলামিস্ট ও কবি ফরহাদ মজহার বলেন, বাংলাদেশের মিডিয়া বন্ধের জন্য শুধুমাত্র শেখ হাসিনা দায়ী নয়, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদীরা জড়িত। এটা ফেলস্টেট এর গভীর ষড়যন্ত্র। পঞ্চদশ সংশোধনীর মানে হচ্ছে নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়া যাবে না।
তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে উদার রাজনীতি করা অসম্ভব। ক্ষমতাসীনদের কপালেও দুর্ভোগ আছে। খুব তাড়াতাড়ি বাংলাদেশে শান্তি আসবে না, সামনে আরো কঠিন সময় অতিক্রম করতে হবে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন এমন পরিস্থিতি বিরাজ করছে প্রিয় নবীর (সা.) বিরুদ্ধে কথা বললে কিছু হয় না অথচ বঙ্গবন্ধু ও হাসিনার বিরুদ্ধে কথা বললে খবর আছে। কিছু গণমাধ্যম সন্ত্রাসী মিডিয়া হিসেবে কাজ করছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।
প্রতিবাদী সংহতি সম্মিলনে জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সুকোমল বড়ুয়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শাখোয়াত হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন, প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
 
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close