¦
ঘুমন্ত অবস্থায় ছাত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি, ৯ মে: | প্রকাশ : ০৯ মে ২০১৫

গোপালগঞ্জে আখি বাগচী (১৭) নামে এক কলেজ ছাত্রীকে এসিড মেরে মুখমণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে সদর উপজেলার টুঠামান্দ্রা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসিড হামলার শিকার ওই কলেজ ছাত্রীকে গুরুতর অবস্থায় প্রথমে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্র্যাকের কমিউনিটি সাপোর্ট প্রকল্পের আওতায় এসিড সারভাইভাল ফাউন্ডেশনের সহযোগীতায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে প্রেরন করা হয়েছে।

আখি কৃষ্ণপুর সপ্তদশ পল্লী মহাবিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী এবং সদর উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের টুঠামান্দ্রা গ্রামের সুভাষ বাগচীর মেয়ে।
এসিড দগ্ধ আখি বাগচী বলেন, ওইদিন রাত ৩টার দিকে রথীন ঘোষ (২৫) নামের এক যুবকের নেতৃত্বে কতিপয় দুর্বৃত্ত ঘরের দরজা খুলে ভিতরে ঢ়ুকে ঘুমন্ত অবস্থায় তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে। এতে তার মুখমণ্ডল, গলা, ডান ও বাম হাতের বেশ কিছু অংশ ঝলসে যায়। এসময় সে যন্ত্রণায় ছঠফট ও চিৎকার করলে ওই  দুর্বৃত্ত ও তার সঙ্গীরা দৌড়ে পালিয়ে যায়।
আখির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন পার্শ্ববর্তী ঘোষালকান্দি গ্রামের সুধাংশু ঘোষের ছেলে রথীন ঘোষ তাকে কলেজে যাওয়া আসার পথে উত্যক্ত করে আসছিল।
কৃষ্ণপুর সপ্তদশ পল্লী মহাবিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক শেখর চন্দ্র বিশ্বাস জানান, রথীন ঘোষ ওই মেয়েটিকে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল। এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ হয়। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের উদ্যোগে একটি সালিশ সভা হয়।
গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের সার্জারী বিভাগের কনসালটেন্ট ডাঃ অনুপ কুমার মজুমদার  জানান, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে রেফার করা হয়েছে।
 
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close