¦
শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় পুলিশ সার্জেন্ট বরখাস্ত

ঢাকা, ১০ মে | প্রকাশ : ১০ মে ২০১৫

জাহাঙ্গিরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক লাঞ্চনার ঘটনায় সার্জেন্ট ইমরান বরখাস্ত করা হয়েছে। আজ দুপুর ২টায় তাকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কন্ট্রোল রুমে ক্লোজড করা হয়েছে। ডিএমপির মিডিয়া উইং জানায়, জাবির গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক রাকিব আহমদকে লাঞ্চনার ঘটনা তদন্তে পৃথক দুটি কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে তিনদিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) এক শিক্ষককে তার মা-বাবার সামনে পেটায় পুলিশ সার্জেন্ট। পুলিশের মারধরের শিকার শিক্ষক রাকিব আহমদ জাবির গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারি অধ্যাপক।
শনিবার রাত ১০টার দিকে উত্তরার হাউস বিল্ডিং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
রাকিব আহমেদ বলেন, শনিবার রাত ১০টার দিকে সিলেট যাওয়ার জন্য তিনি তার মা-বাবাকে নিয়ে ব্যক্তিগত গাড়িযোগে বিমানবন্দর রেলস্টেশনে যাচ্ছিলেন। উত্তরা হাউস বিল্ডিং এলাকায় পৌঁছালে ইমরান নামে ট্রাফিক পুলিশের একজন  সার্জেন্ট গাড়ি থামাতে সিগনাল দেন। তার সিগনালটি খেয়াল না করায় তিনি সামনে এসে গাড়িটি আটকিয়ে গাড়ির কাগজপত্র চান।
কাগজপত্র হাতে নেয়ার পর সার্জেন্ট ইমরান গাড়ি জব্দ করা হবে জানান। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষক রাকিব তাকে অনুরোধ করে জানান, তিনি বাবাসহ সিলেট যাচ্ছেন। ট্রেন ১০টা ২০ মিনিটে। তিনি ওই কর্মকর্তাকে গাড়ির কাগজপত্র রেখে দিয়ে এবং চাইলে মামলা করতে পারেন জানিয়ে তাদের রেলস্টেশন পর্যন্ত যাওয়ার সুযোগ করে দিতে অনুরোধ করেন। এরপরও পুলিশের ওই সার্জেন্ট রাজি হচ্ছিলেন না।
শিক্ষক রাকিব আরো জানান, পরে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বলে পরিচয় দিলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সার্জেন্ট ইমরান। একপর্যায়ে মা-বাবার সামনে আমার গলা চেপে ধরে লাঠি দিয়ে আঘাত করেন ও অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন পুলিশের ওই সার্জেন্ট। এসময় ট্রাফিক পুলিশের আরো দুই সদস্য কাছে এসে আমাকে নিয়ে পুলিশ বক্সে আটকিয়ে রাখেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close