¦
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ছাত্রীকে মারধর

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, ১০ মে: | প্রকাশ : ১০ মে ২০১৫

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যায়ের হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের ছাত্রী সানিয়া জান্নাত রিমঝিমকে বেদড়ক পিটিয়ে আহত করেছে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাকিং বিভাগের ছাত্র সাদ্দাম হোসেন।

রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যায়ামাগারের পেছনে এ ঘটনা ঘটে। এসময় সেখানে উপস্থিত বেশ কিছু কর্মকর্তা-কর্মচারী ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্র ভর্তি করে। এদিকে এ ঘটনায় আহত ছাত্রী ওই ছাত্রের বিচার চেয়ে লিখিতভাবে বিভাগীয় সভাপতি এবং প্রক্টর অফিসে দরখাস্ত দিয়েছে বলে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও ছাত্রীর ভাষ্যমতে, রোববার সকাল ৮টার দিকে সানিয়াকে ফোন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যয়ামাগারের পিছনে আসার জন্য বলে সাদ্দাম। সেখানে আসার পর সানিয়াকে ব্যাক্তিগত বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকে সাদ্দাম। এসময় সাদ্দাম ৩/৪টা মেয়ের সাথে শারীরিক সম্পর্ক করেছে বলে জানায়। একপর্যায়ে সানিয়া অন্য কোন ছেলের সাথে প্রেম করছে কি না সে বিষয়ে জানতে চায়, কোনো কিছু বলেতে অসম্মতি জানালে সে ক্ষিপ্ত হয়ে সানিয়াকে চড়মেরে ফেলে দিয়ে লাথিমারতে থাকে। একপর্যায় তার হাতে থাকা গিটার দিয়ে সানিয়াকে পেটাতে থাকলে প্রাণ বাঁচাতে চিৎকার চেচামেচি করতে থাকে সানিয়া। এসময় কিছু লোক ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।
এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহয়ক-কমর্চারী সমিতির সভাপতি ওকিল উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যায়ামাগারের পেছনে এক ছাত্র ছাত্রীকে পেটাতে থাকে। এ ঘটনা দেখে আমি সেখানে এগিয়ে যাই। এসময় ওই ছাত্র আমাদের দিকে গিটার নিয়ে তেড়ে আসে। পরে অন্যদের সহযোগীতায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে ভর্তি করি।
এদিকে আহত ওই ছাত্রীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে প্রথামিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দায়িত্বরত ডা. খুরশিদা জাহান মনি।
তিনি বলেন, ওই ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে তাকে প্রাথামিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পরিস্থিতি অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া নেয়া হতে পারে। এ এঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সহকারী প্রক্টর আলতাফ হোসেন। তিনি ওই ছাত্রীর খোঁজখবর নেন। এদিকে আহত ওই ছাত্রীকে দেখতে যান তার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুস শাহীদ মিয়া এবং খালেদা জিয়া হল প্রভোস্ট প্রফেসর ড. সাইদুর রহমান।
এদিকে এঘটনার সাথে জড়িত ওই ছাত্রের বিচারের দাবিতে বিভাগীয় সভাপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর দরখাস্ত দিয়েছে আহত ছাত্রী। বেলা ১টার দিকে বেশ কয়েকজন ছাত্রীকে সাথে নিয়ে বিভাগীয় সভাপতি এবং বেলা দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত প্রক্টর বরাবর সানিয়া দরখাস্ত দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট অফিস সূত্রে জানা গেছে।
এবিষয়ে আহত ছাত্রী সানিয়া জান্নাত রিমঝিম যুগান্তরকে বলেন, সাদ্দাম হোসেনর বিচারের দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এবং বিভাগীয় সভাপতি বরাবর দরখাস্ত দিয়েছি। বিষয়টি দেখবেন বলে আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছেন।
এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. লোকমান হাকিম যুগান্তরকে বলেন, অভিযুক্ত ছাত্রের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনানুযায়ী ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষ বদ্ধপরিকর। ইতিমধ্যে পুলিশ প্রশাসনকেও বিষয়টি জানানো হয়েছে। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় যে নারীনির্যাতন সেল রয়েছে তাদেরকেও বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।
এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়েল ভারপ্রাপ্ত ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, ঘটনাটি জানার সাথে সাথে প্রক্টরিয়াল বোডিকে আহত ছাত্রীর শারীরিক খোঁজখবর এবং অভিযুক্ত ছাত্রের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছি। অপরাধী যেই হোক তাকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হবে।
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close