¦
নরেন্দ্র মোদিকে স্বাগত জানাবে বিএনপি

ঢাকা, ২০ মে: | প্রকাশ : ২০ মে ২০১৫

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরে আসবেন আগামী জুনে। এসময় নরেন্দ্র মোদিকে স্বাগত জানানোরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। বুধবার বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় দলটির স্থায়ী কমিটি সদস্য মাহবুবুর রহমান এ কথা জানান।
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলার অভিযোগপত্র প্রত্যাহারের দাবিতে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। সংগঠনটির সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, গণস্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
মাহবুবুর রহমান বলেন, শুনেছি- ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জুন মাসে ঢাকা সফরে আসছেন। দীর্ঘ প্রত্যাশিত এই সফর হতে যাচ্ছে। আশা করি এই সফরে দুই দেশের অমীমাংসিত সমস্যার সমাধান হবে। আমরা তার আগমনকে স্বাগত জানাই।
তিনি বলেন, এই সফরের মধ্য দিয়ে দুই দেশের বাণিজ্য বৈষম্য দূরীকরণ, সীমান্ত হত্যা বন্ধ, পানি সমস্যাসহ অমীমাংসিত সমস্যার সমাধান আসবে। দুই দেশের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন রয়েছে, এই সফরের মধ্য দিয়ে তা আরও মজবুত হবে।
সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ৪১ বছর পর সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের পথ উন্মুক্ত হওয়ায় নরেন্দ্র মোদীর সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, দীর্ঘ কয়েক যুগ পর ভারতের মোদী সরকারেরর আমলেই এই সংশোধন আসায় আমরা তাদের অভিনন্দন জানিয়েছি। টিপাইমুখে বাঁধ নিমার্ণ ও ব্রক্ষপুত্র আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্প বাংলাদেশের পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলবে বলে এসব প্রকল্প বন্ধের জন্য ভারতের প্রতি দাবি তিনি।
বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমরা সব দলের অংশগ্রহণমূলক একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নিবার্চন চাই। ভারতেও নির্বাচন হয়েছে, হচ্ছে। সেখানের নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে কোনো রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে আপত্তি আসে না। তিনি বলেন, আমরা মনে করি, ভারতের গণতন্ত্র, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ও নিবার্চনের বিষয়ে আমাদের সরকারের অনেক কিছু তাদের কাছ থেকে শেখার আছে।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গাড়ি পোড়ানোর মতো মামলা দেয়া হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিরুদ্ধে আজ তিনটি মামলায় পুলিশ ৩০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিল। এভাবে দলের বড় বড় নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের কারাগারে আটকিয়ে রাখা হয়েছে। সারাদেশে বিএনপিসহ বিরোধী দলের ১৬ হাজার ৫২০ নেতাকর্মী কারাগারে বন্দি ও ১৫ হাজার  মামলায় তিন লাখের বেশি নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close