jugantor
ইসিতে মহিলা দলের অভিযোগ
চুড়ি ফ্রক প্রতীক নারীর জন্য অপমানকর

  ঢাকা  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৭:৩৮:২৩  | 

পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য নির্বাচন কমিশনের বরাদ্দ দেয়া চুড়ি, ফ্রক, পুতুল ইত্যাদি প্রতীক নারীদের জন্য অপমানকর বলে মন্তব্য করেছে জাতীয়বাদী মহিলা দল। তারা বলছেন, এর মাধ্যমে নারীকে অবমূল্যায়ন ও অসম্মান করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে এসব প্রতীক বরাদ্দের প্রতিবাদ জানান মহিলা দলের ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল। পরে প্রতিনিধি দলের প্রধান জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন সুলতানা বলেন, নারীদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রতীক অত্যন্ত লজ্জাজনক, দুঃখজনক ও অসম্মানজনক।
সচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে শিরীন সুলতানা ইসি সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে মহিলা প্রাথীদের সংরক্ষিত আসনের জন্য চুড়ি, ফ্রক ও পুতুলসহ যে সব প্রতীক দেয়া হয়েছে এগুলোতে নারীদের জন্য অপমানকর, অবমূল্যায়ন ও অসম্মান করা হয়েছে। সারাবিশ্বে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য নারী সমাজে গৌরবোজ্জ্বল কারণে নারীরা সম্মানিত হচ্ছে। পৌরসভা নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দের ক্ষেত্রে নারীদেরকে যেভাবে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে তাতে গোটা জাতি হতবাক ও বিস্মিত। এতে করে নারী জাতিকে নির্বাচন কমিশন আদিম যুগে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মহিলা দল মনে করে এ ধরনের প্রতীক বরাদ্দের মাধ্যমে নারীদের অপমান ও মর্যাদায় আঘাত করা হয়েছে।
ইসির পক্ষে প্রতীক পরিবর্তনের কোনো আশ্বাস দেয়া হয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে শিরীন শারমিন বলেন, কমিশনের পক্ষে আমাদের জানানো হয়েছে, সময় স্বল্পতার কারণে এবার পরিবর্তন করা সম্ভব না। আমরা বলেছি, আপনারা সিটি নির্বাচনেও কথা দিয়েছিলেন কিন্তু আমরা অবাক বিস্ময়ে লক্ষ্য করলাম এবারও আপনারা এ ধরনের প্রতীক বরাদ্দ  রেখেছেন। তারা আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন আগামীতে এ ধরনের প্রতীক নারীদের দেয়া হবে না।
প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন, সহ-সভাপতি রাবেয়া সিরাজ, যুগ্ম-সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, সাংগঠানিক সম্পাদক বিলকিস ইসলাম, নির্বাহী সদস্য রহিমা শিকদার, লায়লা বেগম ও ঢাকা মহানগরের সেক্রেটারি ফরিদা ইয়াসমিন।

সাবমিট
ইসিতে মহিলা দলের অভিযোগ

চুড়ি ফ্রক প্রতীক নারীর জন্য অপমানকর

 ঢাকা 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০৫:৩৮ পিএম  | 

পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য নির্বাচন কমিশনের বরাদ্দ দেয়া চুড়ি, ফ্রক, পুতুল ইত্যাদি প্রতীক নারীদের জন্য অপমানকর বলে মন্তব্য করেছে জাতীয়বাদী মহিলা দল। তারা বলছেন, এর মাধ্যমে নারীকে অবমূল্যায়ন ও অসম্মান করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিব মো. সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে এসব প্রতীক বরাদ্দের প্রতিবাদ জানান মহিলা দলের ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল। পরে প্রতিনিধি দলের প্রধান জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন সুলতানা বলেন, নারীদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রতীক অত্যন্ত লজ্জাজনক, দুঃখজনক ও অসম্মানজনক।
সচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে শিরীন সুলতানা ইসি সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে মহিলা প্রাথীদের সংরক্ষিত আসনের জন্য চুড়ি, ফ্রক ও পুতুলসহ যে সব প্রতীক দেয়া হয়েছে এগুলোতে নারীদের জন্য অপমানকর, অবমূল্যায়ন ও অসম্মান করা হয়েছে। সারাবিশ্বে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য নারী সমাজে গৌরবোজ্জ্বল কারণে নারীরা সম্মানিত হচ্ছে। পৌরসভা নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দের ক্ষেত্রে নারীদেরকে যেভাবে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে তাতে গোটা জাতি হতবাক ও বিস্মিত। এতে করে নারী জাতিকে নির্বাচন কমিশন আদিম যুগে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মহিলা দল মনে করে এ ধরনের প্রতীক বরাদ্দের মাধ্যমে নারীদের অপমান ও মর্যাদায় আঘাত করা হয়েছে।
ইসির পক্ষে প্রতীক পরিবর্তনের কোনো আশ্বাস দেয়া হয়েছে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে শিরীন শারমিন বলেন, কমিশনের পক্ষে আমাদের জানানো হয়েছে, সময় স্বল্পতার কারণে এবার পরিবর্তন করা সম্ভব না। আমরা বলেছি, আপনারা সিটি নির্বাচনেও কথা দিয়েছিলেন কিন্তু আমরা অবাক বিস্ময়ে লক্ষ্য করলাম এবারও আপনারা এ ধরনের প্রতীক বরাদ্দ  রেখেছেন। তারা আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন আগামীতে এ ধরনের প্রতীক নারীদের দেয়া হবে না।
প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা হলেন, সহ-সভাপতি রাবেয়া সিরাজ, যুগ্ম-সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, সাংগঠানিক সম্পাদক বিলকিস ইসলাম, নির্বাহী সদস্য রহিমা শিকদার, লায়লা বেগম ও ঢাকা মহানগরের সেক্রেটারি ফরিদা ইয়াসমিন।

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র