¦
জেএমবি সদস্য জাহিদের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন

ঢাকা | প্রকাশ : ১০ ডিসেম্বর ২০১৫

গাজীপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বোমা হামলা মামলায় ফাঁসির আদেশ পাওয়া নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির সদস্য মামুনুর রশিদ ওরফে জাহিদকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন দিয়েছেন হাইকোর্ট।
বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন।
রায়ের পর্যবেক্ষণে হাইকোর্ট বলেছেন, পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে বোমা বা গ্রেনেডসহ মামুনুর রশিদকে হাজির করে সংবাদ সম্মেলন করা ছিল দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ। কোনো আসামিকে আদালতে হাজির করার আগে প্রচার বা প্রদর্শনের উদ্দেশ্যে গণমাধ্যমে উপস্থিত করা থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যেন বিরত থাকে সে জন্য পুলিশের মহাপরিদর্শক প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।
আদালতে আসামীপক্ষে ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, এস এম শাহজাহান ও তাজুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ এ কে এম মনিরুজ্জামান কবীর।
রায়ের পর মনিরুজ্জামান কবীর সাংবাদিকদের বলেন, ফাঁসির রায়ের বিরুদ্ধে মামুনুর রশিদের আপিল ও ডেথ রেফারেন্সের চূড়ান্ত নিষ্পত্তি করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। রায়ে মামুনুর রশিদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।
২০০৯ সালে ফেব্রুয়ারি মাসে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জেএমবি’র  সদস্য মামুনুর রশিদ ওরফে জাহিদকে টঙ্গীর হরতইল গ্রামের একটি ভাড়া বাসা থেকে পাঁচটি হ্যান্ড গ্রেনেড, ডেটোনেটর ও বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ আটক করে পুলিশ। পরে গাজীপুরের তৎকালীন পুলিশ সুপার আব্দুল বাতেনের কার্যালয়ে গ্রেনেডসহ মামুনকে সংবাদ সম্মেলনে হাজির করা হয়।
সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে টেবিলে থাকা গ্রেনেড মামুন ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। এসময় গ্রেনেড বিস্ফোরণে সাংবাদিক, পুলিশসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। এতে পুলিশ কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ ১৩ জন আহত হন।
ওই ঘটনায় করা মামলায় ২০১২ সালের ১৩ মার্চ মামুনুর রশিদকে ফাঁসির আদেশ দেন ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪। পরে নিয়ম অনুযায়ী মামলাটি ডেথ রেফারেন্স হিসেবে হাইকোর্টে আসে।
এছাড়া মামুনুর রশিদ আপিল দায়ের করেন। আপিল ও ডেথরেফারেন্সের শুনানি শেষে হাইকোর্ট তার সাজা কমিয়ে রায় দেন।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close