jugantor
মানবতাবিরোধী অপরাধে বন কর্মকর্তা গ্রেফতার

  বাগেরহাট প্রতিনিধি  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৯:১৭:৪১  | 

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের বন কর্তকর্তা (ফরেষ্ট রেঞ্জার) একেএম ইউসুফ আলম (৫৯)। বুধবার রাত ৮টার দিকে দুবলার চর শুঁটকি পল্লীর বন অফিস থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।
পুলিশের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা সুন্দরবন বিভাগের ওই কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে বুধবার দুপুরে শরণখোলা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন। গ্রেফতার হওয়ার আগ পর্যন্ত ইউসুফ আলম শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।
পুলিশ জানায়, গ্রেফতার হওয়া বন কর্মকর্তা জামালপুর সদর থানার চাঁনপুর হরিণাকান্দা গ্রামের মৃত আ. খালেক মাষ্টারের ছেলে। তার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে মামলা রয়েছে। মামলা নং-১৭/২০১৫ আইসিটি (১) বিডি ফরম নং-৩।
শরণখোলা থানার ওসি মো. শাহ আলম মিয়া জানান, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল থেকে বুধবার থানায় একটি ফ্যাক্স আসে। ওই বার্তায় শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা ফরেষ্ট রেঞ্জার একেএম ইউসুফ আলমকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়া হয়। ওসি আরো জানান, ফ্যাক্সবার্তা পাওয়ার পরে র‌্যাব-৮ এর সহযোগীতা চাওয়া হয়। ওইদিন রাত ৮টার দিকে সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দুবলার শুঁটকি পল্লীর বন অফিস থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।
র‌্যাব-৮ এর উপপরিচালক মেজর আদনান কবীর জানান, ইউসূফ আলম নামের একজন যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামী সুন্দরবনে লুকিয়ে আছে শরণখোলা থানা পুলিশ তাদেরকে এমন তথ্য দেয়। পরে ওইদিন রাতে র‌্যাবের উপসহকারী পরিচালক মো. আক্তারের নেতিত্ব তাকে আটক করে দুপুরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
বাগেরহাট পূর্ব বনভিাগের ডিএফও মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, স্টেশন কর্মকর্তা ইউসুফ আলম গ্রেফতারের বিষয়টি জেনেছি। মামলার কাগজপত্র পেলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।






 

সাবমিট

মানবতাবিরোধী অপরাধে বন কর্মকর্তা গ্রেফতার

 বাগেরহাট প্রতিনিধি 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০৭:১৭ পিএম  | 

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের বন কর্তকর্তা (ফরেষ্ট রেঞ্জার) একেএম ইউসুফ আলম (৫৯)। বুধবার রাত ৮টার দিকে দুবলার চর শুঁটকি পল্লীর বন অফিস থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।
পুলিশের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা সুন্দরবন বিভাগের ওই কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে বুধবার দুপুরে শরণখোলা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন। গ্রেফতার হওয়ার আগ পর্যন্ত ইউসুফ আলম শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।
পুলিশ জানায়, গ্রেফতার হওয়া বন কর্মকর্তা জামালপুর সদর থানার চাঁনপুর হরিণাকান্দা গ্রামের মৃত আ. খালেক মাষ্টারের ছেলে। তার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে মামলা রয়েছে। মামলা নং-১৭/২০১৫ আইসিটি (১) বিডি ফরম নং-৩।
শরণখোলা থানার ওসি মো. শাহ আলম মিয়া জানান, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল থেকে বুধবার থানায় একটি ফ্যাক্স আসে। ওই বার্তায় শরণখোলা স্টেশন কর্মকর্তা ফরেষ্ট রেঞ্জার একেএম ইউসুফ আলমকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেয়া হয়। ওসি আরো জানান, ফ্যাক্সবার্তা পাওয়ার পরে র‌্যাব-৮ এর সহযোগীতা চাওয়া হয়। ওইদিন রাত ৮টার দিকে সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দুবলার শুঁটকি পল্লীর বন অফিস থেকে তাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।
র‌্যাব-৮ এর উপপরিচালক মেজর আদনান কবীর জানান, ইউসূফ আলম নামের একজন যুদ্ধাপরাধ মামলার আসামী সুন্দরবনে লুকিয়ে আছে শরণখোলা থানা পুলিশ তাদেরকে এমন তথ্য দেয়। পরে ওইদিন রাতে র‌্যাবের উপসহকারী পরিচালক মো. আক্তারের নেতিত্ব তাকে আটক করে দুপুরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
বাগেরহাট পূর্ব বনভিাগের ডিএফও মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, স্টেশন কর্মকর্তা ইউসুফ আলম গ্রেফতারের বিষয়টি জেনেছি। মামলার কাগজপত্র পেলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।






 

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র