jugantor
সীতাকুণ্ডে আ’লীগ থেকে দুই মেয়র প্রার্থীর পদত্যাগ

  সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১৯:২৬:৫৫  | 

সীতাকুণ্ডে পৌরসভা নির্বাচনে দলের মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে দুই মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করেছেন। বুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার তাদের পদত্যাগের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
বুধবার রাতে পদত্যাগ করেন নায়েক (অবঃ) শফিউল আলম (বর্তমান মেয়র)।  আর বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করেছেন সিরাজ উদ-দৌলা ছট্টু। তারা নির্বাচনে সতন্ত্র প্রাথী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে জানিয়েছেন।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে,  নায়েক (অবঃ) শফিউল আলম বুধবার উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদকের হাতে পদত্যাগ পত্র জমা দেন। বৃহস্পতিবার পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজ উদ-দৌলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. ইসহাকের হাতে পদত্যাগ পত্র জমা দেন।
পদত্যাগ পত্রে নায়েক শফি দল ছাড়ার নেপথ্যে শারীরিক অসুস্থতার কথা উল্লেখ করেন। অন্যদিকে সিরাজ উদ-দৌলা কারণ হিসেবে বলেন, অসুস্থতা ও পারিবারিক কারণেই তিনি দল ছাড়ছেন।
পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে নায়েক শফি ও সিরাজ উদ-দৌলা দু’জনেই প্রতিবেদককে পদত্যাগের কথা নিশ্চিত করেন। তবে তারা আসন্ন পৌর নির্বাচনে প্রার্থী হবেন বলে জানান।
নায়েক শফি নাগরিক কমিটির ব্যানারে এবং সিরাজ উদ্ দৌলা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন।
প্রসঙ্গত এবারের পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদিউল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা নায়েক শফি ও সিরাজ উদ্ দৌলা।
দল প্রথমে নায়েক (অবঃ) শফিউল আলমকে মনোনয়ন প্রদান করলেও পরে তা পরিবর্তন করে বদিউল আলমকে প্রার্থী ঘোষণা করে। ফলে নায়েক শফি ও সিরাজ উদ-দৌলা দু’জনেই দলের উপর ক্ষিপ্ত হন।
এ নিয়ে দলের সাথে তাদের মতানৈক্য বাড়ছিলো। শেষ পর্যন্ত তারা দল থেকে পদত্যাগ করলেন।

সাবমিট

সীতাকুণ্ডে আ’লীগ থেকে দুই মেয়র প্রার্থীর পদত্যাগ

 সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০৭:২৬ পিএম  | 

সীতাকুণ্ডে পৌরসভা নির্বাচনে দলের মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে দুই মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগ করেছেন। বুধবার রাতে ও বৃহস্পতিবার তাদের পদত্যাগের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।
বুধবার রাতে পদত্যাগ করেন নায়েক (অবঃ) শফিউল আলম (বর্তমান মেয়র)।  আর বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করেছেন সিরাজ উদ-দৌলা ছট্টু। তারা নির্বাচনে সতন্ত্র প্রাথী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে জানিয়েছেন।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে,  নায়েক (অবঃ) শফিউল আলম বুধবার উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদকের হাতে পদত্যাগ পত্র জমা দেন। বৃহস্পতিবার পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিরাজ উদ-দৌলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. ইসহাকের হাতে পদত্যাগ পত্র জমা দেন।
পদত্যাগ পত্রে নায়েক শফি দল ছাড়ার নেপথ্যে শারীরিক অসুস্থতার কথা উল্লেখ করেন। অন্যদিকে সিরাজ উদ-দৌলা কারণ হিসেবে বলেন, অসুস্থতা ও পারিবারিক কারণেই তিনি দল ছাড়ছেন।
পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে নায়েক শফি ও সিরাজ উদ-দৌলা দু’জনেই প্রতিবেদককে পদত্যাগের কথা নিশ্চিত করেন। তবে তারা আসন্ন পৌর নির্বাচনে প্রার্থী হবেন বলে জানান।
নায়েক শফি নাগরিক কমিটির ব্যানারে এবং সিরাজ উদ্ দৌলা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন।
প্রসঙ্গত এবারের পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদিউল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা নায়েক শফি ও সিরাজ উদ্ দৌলা।
দল প্রথমে নায়েক (অবঃ) শফিউল আলমকে মনোনয়ন প্রদান করলেও পরে তা পরিবর্তন করে বদিউল আলমকে প্রার্থী ঘোষণা করে। ফলে নায়েক শফি ও সিরাজ উদ-দৌলা দু’জনেই দলের উপর ক্ষিপ্ত হন।
এ নিয়ে দলের সাথে তাদের মতানৈক্য বাড়ছিলো। শেষ পর্যন্ত তারা দল থেকে পদত্যাগ করলেন।

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র