¦
দেশজুড়ে শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা

ঢাকা | প্রকাশ : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫

চলতি সপ্তাহে আরেকটি শৈত্য প্রবাহ আসছে।আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, সপ্তাহের শুরুতে ঢাকা, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মাঝারী ধরনের  শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাবে ।

আবহাওয়া বিভাগ জানায়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। শ্রীমঙ্গল অঞ্চলসহ রংপুর বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে ও তা অব্যাহত থাকতে পারে। এছাড়া রাজশাহী, খুলনা ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু এলাকায় শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে।
পূর্বাভাসে বলা হয়, আগামী ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের রাতের তাপমাত্রা এক থেকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। ইতোমধ্যে রংপুর বিভাগে শৈত্য প্রবাহের কারনে জীবন যাত্রা থমকে পড়ার উপক্রম হয়েছে। দুদিনের শৈত্যপ্রবাহে রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় তাপমাত্রা হ্রাস পেয়েছে। শনিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে নীলফামারীর ডিমলায় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রী। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৩ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকার কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে।
শনিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রংপুর বিভাগের ডিমলায় ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রংপুর বিভাগের রাজারহাটে সর্বনিম্ন ৯, দিনাজপুরে ৯ দশমিক ৪, সৈয়দপুরে ৯ দশমিক ৭ ও রংপুরে ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আর শ্রীমঙ্গলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলে এক থেকে দুটি মৃদু বা মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে বলে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।
 
আরও পড়ুন: 
► দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ডিমলায় ৮.৫ ডিগ্রি
সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close