¦
শাহজাদপুরের সাত স্থানে আওয়ামী লীগের হামলা

শাহজাদপুর | প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৫

শাজাদপুর পৌরসভা নির্বাচনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী হালিমুল হক মিরুর ভাই মিন্টু ও পিন্টুর নেতৃত্বে ২০-২৫ জনের একটি দল পৃথক সাত স্থানে সশস্ত্র হামলা চালিয়েছে। এসময় দুই মেয়র ও দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প, মাইক, রিকশা ভাংচুর ও পোষ্টারে অগ্নিসংযোগ করা হয়।
মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এ হামলাকালে মানিক নামের একজন আহত হয়েছেন।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মেয়র প্রার্থী আব্দুর রহিমের প্রচার মাইকের রিকশা মণিরামপুরের উদায়ন স্কুলের সামনে এসে পৌঁছলে হামলাকারীরা রিকশা ও মাইক ভাংচুর করে। এ সময় তাদের বাধা দিলে রিকশা চালক মানিককে বেধরক মারপিট করে। এতে তিনি গুরুত্বর আহত হন।
এরপর হামলাকারীরা রামবাড়ী হাজিরঘাট ক্যাম্প ভাংচুর করে পোষ্টার ও সামিয়ানা ছিঁড়ে ফেলে। আইগবাড়ী পাড়কোলার দইুটি ক্যাম্প ভাংচুর করে পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলে।  এর মধ্যে একটি ক্যাম্পের পোষ্টারে অগ্নিসংযোগ করে।
এছাড়া বাড়াবিল উত্তরপাড়া বাজার এলাকার পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলে হামলাকারীরা।
মিরুর এসব সমর্থকেরা বাড়াবিল উত্তরপাড়া এলাকায় অবস্থিত বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলামের একটি ক্যাম্প ও ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নূর ইসলাম ও আব্দুর রউফের ক্যাম্প ভাংচুর ও পোষ্টার ছিঁড়ে ফেলে।
এসব ঘটনার পর শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল হক ও ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহিম বাদী হয়ে শাহজাদপুর থানায় পৃথক তিনটি জিডি মামলা দায়ের ও জেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।  
বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম এ ব্যাপারে জেলা রিটার্নিং অফিসার বরাবর অভিযোগ করেছেন।
এছাড়া এক কাউন্সিলর প্রার্থী থানায় একটি জিডি করেছেন।
এদিকে হালিমুল হক মিরু এসব হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনার সাথে তার ভাই ও সমর্থকেরা জড়িত নয় বলে দাবি করেছেন।
রিটার্নিং অফিসার ও সিরাজগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রহিম ও শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ আলী হোসেন জানান, অভিযোগ পাওয়া মাত্রই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে শাহজাদপুর থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এছাড়া ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেটকে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। তদন্তে প্রমাণ পাওয়া গেলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close