¦
চট্টগ্রামের ১০ পৌরসভায় কেন্দ্র দখল-জাল ভোট

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশ : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৫

সংঘাত-সংঘর্ষ ও কেন্দ্র দখলের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামের ১০ পৌরসভার নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। সাতকানিয়ায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষে নূরুল আমিন (৪৬) নামে একজন নিহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ১০ টা ৪৫ মিনিটের দিকে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্রের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নূরুল আমিনকে বিএনপি কর্মী বলে দাবি করেছে দলটি।
এছাড়া, বেশ কয়েকটি পৌরসভায় বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। কোন কোন কেন্দ্রে বিএনপি ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীদের পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। কোন কোন কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থীদের ব্যালট পেপার পেলেও মেয়র প্রার্থীর ব্যালট পেপার পাননি বলে অভিযোগ করেছেন ভোটাররা।
এছাড়া বাঁশখালীসহ বেশ কয়েকটি পৌরসভায় দু’পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘাত-সংঘর্ষ ও গোলাগুলি হয়। সীতাকুণ্ড পৌরসভায় জাল ভোট দেয়ার চেষ্টা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির দায়ে ছয় জনকে আটক করা হয়েছে। চন্দনাইশে ভোট গ্রহণ শুরুর আগেই ব্যালট পেপার ছিঁড়ে বাক্স ভর্তি করার কারণে তিনটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে।
মিরসরাই : মিরসরাই পৌরসভা নির্বাচনের বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে বিএনপি এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী রফিকুল পারভেজ। তিনি বলেন- ১, ২, ৩, ৬, ৮ ও ৯ নম্বর কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না। প্রচুর জাল ভোট পড়ছে। আওয়ামী সমর্থকরা আমাদের এজেন্টদের ভোটকেন্দ্রে থাকতে দিচ্ছেনা। এদিকে বেলা ১২টার দিকে মিরসরাই পৌরসভার শান্তিরহাট মাদ্রাসা কেন্দ্রের বাইরে দুই কাউন্সিলর প্রার্থী নবী-মজিবুর রহমানের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
বারৈয়ারহাট : সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বারৈয়ারহাট পৌরসভার চিনকি আস্তানা সিএনবি বাংলো কেন্দ্রের বাইরে প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। কাউন্সিলর প্রার্থী বসর-শাহাদাত-আজিজুল হকের সমর্থকদের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে বিজিবি ও পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
সীতাকুন্ড : সীতাকুন্ড পৌরসভার নুনাছড়া ভোট কেন্দ্রে সকালে বিএনপির মেয়র প্রার্থী সৈয়দ আবুল মনসুরের উপর হামলা করেছে আওয়ামী লীগ সমর্থিতরা। এ সময় তার প্রাইভেট কারও ভাঙচুর করা হয়। সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা ভোটকেন্দ্র দখল করেছেন অভিযোগ এনে ৭টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিতের দাবি জানিয়েছেন বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী আবুল মনছুর। সীতাকুণ্ড পৌরসভা নির্বাচনে জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা ও বিশৃঙ্খলার দায়ে ছয় জনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন সিরাজ, রুবেল, সুমন, জামশেদ, নাজিম উদ্দিন ও মো. সোহেল। বুধবার সকালে সীতাকুন্ড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ কেন্দ্র এবং সীতাকুণ্ড সরকারি আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়।
সন্দ্বীপ : ভোটকেন্দ্র দখল ও জাল ভোট দেয়ার প্রতিবাদে ভোট বর্জন করেছেন সন্দ্বীপ পৌরসভা নির্বাচনের বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লাহ বাহাদুর। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কেন্দ্র দখল ও ভোট জালিয়াতির প্রতিবাদে নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন বিএনপি প্রার্থী আজমত উল্লাহ বাহাদুর।
সাতকানিয়া : সাতকানিয়ায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষে নূরুল আমিন (৪৬) নামে একজন নিহত হয়েছেন। বুধবার সকাল ১০ টা ৪৫ মিনিটের দিকে সাতকানিয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্রের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নূরুল আমিনকে বিএনপি কর্মী বলে দাবি করেছে দলটি। তবে আওয়ামী লীগ বলেছে নিহত নূরুল আমিন দলের মনোনীত মেয়র প্রার্থী জোবায়েরের সমর্থক। কর্মী হত্যা, ভোটকেন্দ্র দখল ও জাল ভোট দেয়ার প্রতিবাদে ভোট বর্জন করেছেন সাতকানিয়া পৌরসভার বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাজি রফিকুল আলম। বুধবার দুপুর ১ টার দিকে রফিকুল আলমের বাস ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেয়া হয়। হাজি রফিকের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট শেখ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সাতকানিয়া কলেজ কেন্দ্রে এক বিএনপি কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে ভোটকেন্দ্র দখল করেছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী। তারা কেন্দ্র থেকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। জাল ভোট দিচ্ছে। এভাবে নির্বাচন হতে পারেনা। তাই বিএনপি এ নির্বাচন বর্জন করেছে। নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন তিনি।
চন্দনাইশ : পুলিশের তালিকায় ঝুঁকিপূর্ণ পৌরসভা হিসেবে চিহ্নিত চন্দনাইশ পৌরসভার ১৬টি কেন্দ্রের মধ্যে তিনটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। ভোট গ্রহণের আগেই ব্যালেটে সিল মারার অভিযোগে দুটি এবং ভোট শুরু ২ ঘণ্টার মধ্যে একটি কেন্দ্রে গোলযোগ বাধায় ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নির্বাচন কমিশন সচিব সিরাজুল ইসলামের নির্দেশে রিটার্নিং অফিসার এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শারমীন এ আদেশ দেন। ভোট গ্রহণের আগেই স্থগিত হওয়া কেন্দ্র দুটি হলো, গাছবাড়িয়া এ এন জে উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র ও আসলাতুন চৌধুরী ফোরকানিয়া মাদরাসা কেন্দ্র। আর সকাল ১০টার দিকে ভোট গ্রহণ স্থগিত হওয়া কেন্দ্রটি হচ্ছে, বদুরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র।
রাঙ্গুনিয়া : ভোটকেন্দ্র দখল ও জাল ভোট দেয়ার প্রতিবাদে ভোট বর্জন করেছেন রাঙ্গুনিয়ার বিএনপি প্রার্থী মো. হেলাল উদ্দিন খান। নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন তিনি। নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার দাবি জানান তিনি। তিনি অভিযোগ করেন, বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে ভোটকেন্দ্র দখল করেছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী। তারা কেন্দ্র থেকে আমাদের এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। বুধবার সকাল দশটায় রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।
রাউজান : রাউজানে বিএনপির মেয়র প্রার্থী কাজী আবদুল্লাহ আল হাছান নির্বাচনী মাঠ নিজের প্রতিকূলে দেখে পৌর এলাকা ত্যাগ করেছেন। রাউজানে প্রহসনের নির্বাচন হচ্ছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, সরকার দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষণার নীলনকশা চূড়ান্ত। এর আগে সব ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এমনকি সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরদেরও বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে
বাঁশখালী : বাঁশখালী পৌরসভায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ৩ কেন্দ্রে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া বাঁশখালীর সব কেন্দ্রে সরকার দলীয় প্রার্থী বহিরাগতদের মাধ্যমে জাল ভোট দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কামরুল ইসলাম হোসাইনী। তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ১০ টায় ৫ ওয়ার্ড রহুল্লাহ পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সরকার দলীয় প্রার্থীর ফাঁকা গুলি বর্ষন করে। এতে ভোট দিতে আসা ভোটারদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। লাইন থেকে ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়ে।
পটিয়া : শশাঙ্কমালা স্কুল কেন্দ্র থেকে সাংবাদকিদের বের করে দেয় সরকার দলীয় প্রার্থীর সমর্থকরা। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজন চক্রবর্তী বেল ২ টার দিকে গিয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের শাসিয়ে কেন্দ্র থেকে বের করে দেন। এসময় তার সঙ্গে বহিরাগত বেশ কিছু সন্ত্রাসীও ছিলেন। বেলা ১ টা পর্যন্ত বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে ভোট গ্রহণ চললেও এরপর থেকে সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন কেন্দ্রের দখল নিয়ে নেয়।
 

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close