¦
যশোরে ভোট শেষ হওয়ার আগেই গণনা শেষ

যশোর ব্যুরো | প্রকাশ : ৩০ ডিসেম্বর ২০১৫

যশোর সরকারি এমএম কলেজে কলাভবন কেন্দ্রে ভোট শেষ হওয়ার আগেই গণনা শুরু করায় ব্যালট পেপার জব্দ করা হয়েছে। বুধবার দুপুর ৩টার আগেই ভোট গণনা শেষ করা হয় ওই কেন্দ্রে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ সোহেল হাসান কেন্দ্রে গিয়ে ব্যালট পেপার ও নির্বাচনের সরঞ্জাম জব্দ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিয়ে যায়।  
ওই কেন্দ্রে ৫ হাজার ৫৪৭ ভোটার ছিল। শতভাগ ভোট গ্রহণ (কাস্ট) দেখানো হয় । এর মধ্যে পুরুষ ২৭১৯  ও মহিলা ২৮২৮ ভোট রয়েছে।
স্টাইকিং ফোর্সের প্রধান ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ সোহেল হাসান বলেন, বেলা ৩টার দিকে অন্যান্য কেন্দ্রে যখন ভোট গ্রহণ চলছিল তখন এমএম কলেজ কলাভবন কেন্দ্রে গণনা শেষ করে ফেলেছেন প্রিজাইডিং অফিসার। তিনি একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারও দেন। বিষয়টি  জানতে পেরে কেন্দ্রে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি।
বিষয়টি লিখিতভাবে নির্বাচন কমিশনকে জানানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশন এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।
এ বিষয়ে সরকারি এমএম কলেজের কলাভবন কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার সহকারী অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, শতভাগ ভোট গ্রহণ (কাস্ট) সম্পন্ন হওয়ায় সব প্রার্থীর এজেন্টদের মতামতের ভিত্তিতে ভোট গণনা শুরু করা হয়।
এদিকে সরকারি এমএম কলেজের ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া নিয়ে বিতর্ক ছিল সকাল থেকেই। ওই কেন্দ্রে ভোটের আগের দিন রাতেই সিল মেরে ব্যালট বাক্স ভরার অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী মারুফুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এসএম কামরুজ্জামান চুন্নু।
৫ নম্বর ওয়ার্ডের সরকারি এমএম কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেন প্রমীলা বিবি, তানজিলা বেগম ও সুফিয়া খাতুন। তারা ভোট কেন্দ্রে এসে জানতে পারেন তাদের ভোট দেয়া হয়ে গেছে। অধিকাংশে সাধারণ ভোটাররা বঞ্চিত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভোটের আগের রাতেই ক্ষমতাসীন দলের ক্যাডাররা ভোট কেটে নেন।
বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে যশোরে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মারুফুল ইসলাম বলেছেন, মঙ্গলবার রাতেই সরকারি কলেজ কেন্দ্রসহ ১৯টি কেন্দ্রে ৬০ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। বাকী ভোট বুধবার দিনের বেলায় ডাকাতি হয়েছে।
আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম কামরুজ্জামান চুন্নু বুধবার বেলা ১টার দিকে প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন, নৌকার প্রার্থীর ক্যাডাররা ১৯টি কেন্দ্রে ভোট কেটে নিয়েছে। ভোটের আগের রাতে নৌকায় সিল মেরে বাক্স ভরে রাখা হয়েছিল।

সর্বশেষ খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close