¦

এইমাত্র পাওয়া

  • রাজধানী থেকে কোকেনসহ আন্তর্জাতিক মাদক পাচারকারী চক্রের ৩ সদস্য আটক
যানজট নিরসনের উদ্যোগ

| প্রকাশ : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫

রাজধানীর আমিনবাজার থেকে কল্যাণপুর পর্যন্ত সড়কের দু’পাশে অবৈধ পার্কিং বন্ধ করে ওই এলাকাকে যানজটমুক্ত ঘোষণা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। এ উদ্যোগকে স্বাগত জানাই আমরা। উল্লেখ্য, এ এলাকার মধ্যেই অবস্থিত গাবতলী- রাজধানীর অন্যতম আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল। যত্রতত্র গাড়ি পার্কিংয়ের কারণে এ এলাকায় সর্বক্ষণ বিশৃংখল পরিস্থিতি বিরাজ করে। ফলে গাবতলীর উভয় পাশের সড়কে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজটের। কাজেই এ এলাকায় অবৈধ পার্কিং বন্ধ হওয়া জরুরি। তবে সেক্ষেত্রে শুধু যানজটমুক্ত ঘোষণা করাই যথেষ্ট নয়, এর বাস্তবায়নও নিশ্চিত করতে হবে ডিএনসিসিকে। এ ব্যাপারে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের দায়িত্বই বেশি। প্রয়োজন তাদের সক্রিয় ভূমিকা। অতীতে রাজধানীকে যানজটমুক্ত করতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হলেও সেগুলো বাস্তবায়িত হয়নি। কেন হয়নি তা খতিয়ে দেখতে হবে।
যানজট রাজধানীর অন্যতম সমস্যা। এর কারণে প্রতিদিন নগরবাসীর মূল্যবান কর্মঘণ্টাই শুধু নষ্ট হচ্ছে না, বাড়ছে পরিবেশ দূষণও। অপচয় হচ্ছে জ্বালানির। সবচেয়ে বড় বিষয়, যানজটের কারণে বাড়ছে মানুষের দুর্ভোগ। রাজধানীর যানজট কমিয়ে আনার জন্য অনেক পদক্ষেপই নেয়া প্রয়োজন। কিছু উদ্যোগ নেয়াও হয়েছে, যেমন- এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, পাতালরেল নির্মাণ, সড়কের সংখ্যা ও পরিধি বাড়ানো, প্রাইভেট কার কমিয়ে পর্যাপ্ত গণপরিবহনের ব্যবস্থা করা ইত্যাদি। তবে এর অধিকাংশই দীর্ঘমেয়াদি। তাই যেসব পদক্ষেপে যানজট দ্রুত সহনীয় পর্যায়ে আনা সম্ভব সেসবে দৃষ্টি দেয়া দরকার। এর অন্যতম হল রাজধানীর ট্রাফিক ব্যবস্থায় শৃংখলা আনা। রাজধানীতে চলাচলকারী যানবাহনগুলোর যত্রতত্র পার্কিং যানজটের বড় একটি কারণ। এই যত্রতত্র পার্কিং শুধু আমিনবাজার থেকে কল্যাণপুর পর্যন্ত সড়কের দু’পাশে নয়- রাজধানীর অন্যান্য সড়কের দু’পাশেও বন্ধ করা প্রয়োজন। আরও একটি বিষয়ে নজর দেয়া জরুরি। সেটা হল, সড়কের ওপর যত্রতত্র বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠানো-নামানো এবং স্টপেজে দীর্ঘ সময় বাস থামিয়ে রাখার প্রবণতা বন্ধ করা। বাস চালক-হেলপারদের এ প্রবণতা কঠোরভাবে বন্ধ করতে হবে। বস্তুত রাজধানীর পরিবহন সেক্টরে শৃংখলার অভাব এতই প্রকট যে, এ খাতে কর্মরতরা কোনো নিয়মই মানতে নারাজ। তাদের নিয়ম মেনে চলতে বাধ্য করা হয় না বলেই আজ এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিআরটিএ, ট্রাফিক বিভাগ এবং রাজধানীর দুই সিটি কর্পোরেশন সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে পারে। এটি করা হলে যানজট সহজেই অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব হবে।
রাজধানীর যানজট নিরসনে সড়কের অংশবিশেষ ও ফুটপাতগুলোকে হকারমুক্ত করাও জরুরি। হকারদের সড়কের পাশে ও ফুটপাতে বসতে দিয়ে কারা চাঁদা আদায় করে তা সবারই জানা। আমরা দুই সিটি কর্পোরেশনকে এদিকেও দৃষ্টি দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। আমাদের কথা হল, যানজট নিরসনে যে কাজগুলো সহজে ও দ্রুত করা সম্ভব সেগুলোতে দৃষ্টি দিন। পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপগুলোর বাস্তবায়ন চলতে থাকুক। আমাদের বিশ্বাস, এতেই সুফল মিলবে।
সম্পাদকীয় পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close