¦

এইমাত্র পাওয়া

  • হালনাগাদ ভোটার তালিকার খসড়া প্রকাশ; নতুন ভোটার ৪৩ লাখ ৬৮ হাজার ৪৭ জন
রাজীব হত্যা মামলার রায়

| প্রকাশ : ০২ জানুয়ারি ২০১৬

বৃহস্পতিবার ব্লগার ও প্রকৌশলী রাজীব হায়দার শোভন হত্যা মামলার রায় হয়েছে। হত্যাকাণ্ডের প্রায় তিন বছর পর ঢাকার ৩ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল এ রায় দিয়েছে। ট্রাইব্যুনাল ২ আসামির মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে একজনের, বাকি ছয়জনকে দেয়া হয়েছে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড। বলে নেয়া যায়, নিহত রাজীব মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে ওঠা গণজাগরণ মঞ্চের একজন সংগঠক ছিলেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্লগে তিনি ‘থাবা বাবা’ নামে লেখালেখি করতেন।
একের পর এক ব্লগার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতদের স্বজন ও দেশবাসী হত্যাকারীদের বিচার নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে আসছিল তিন বছর ধরে। এ প্রেক্ষাপটে এই প্রথম একজন ব্লগার হত্যা মামলার রায় ঘোষিত হল। সেদিক থেকে এ রায় একটি বড় ঘটনাই বটে। বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসার ক্ষেত্রে রায়টি ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে নিঃসন্দেহে। অবশ্য প্রশ্ন একটা থেকেই যাচ্ছে। রায়ে সন্তুষ্ট হতে পারেনি অনেকেই। রাজীবের পরিবারও মেনে নিতে পারেনি রায়। তার বাবা রায় সরাসরি প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, এটি প্রভাবিত রায়। তার মতে, ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী ছিল রানা নামের এক বিশ্ববিদ্যালয়-ছাত্র। তাকে পুলিশ আজও ধরতে পারেনি। তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে আরও বলেছেন, অভিযুক্তদের অন্তত পাঁচজন হত্যার দায় স্বীকার করলেও সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়নি। এ প্রসঙ্গে আমাদের বক্তব্য হল, ট্রাইব্যুনালের রায়ে যদি কোনো অসঙ্গতি থেকে থাকে, উচ্চ আদালতে তার নিরসন হওয়ার সুযোগ রয়েছে। রাজীবের পরিবারের সদস্যদের আমরা উচ্চ আদালতের রায় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলব।
দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি মোটেও ভালো নয়। মানবাধিকার লংঘনের দায় শুধু যে জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের ঘাড়ে বর্তায় তা নয়, আইনশৃংখলা বাহিনীও এই দায় এড়াতে পারে না। মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা ও আইন সালিশ কেন্দ্র ২০১৫ সালকে রাজনৈতিক সহিংসতা ও মানবাধিকার লংঘনের বছর হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। এ বছর আইনশৃংখলা বাহিনীর ‘ক্রসফায়ার’ ও ‘হেফাজতে’ ১৯২ ব্যক্তি মারা গেছেন বলে জানিয়েছে সংস্থা দুটি। আমরা মনি করি, মানবাধিকার যে বা যারাই লংঘন করুক, কোনো অবস্থাতেই তাদের দায়মুক্ত রাখা চলবে না।
রাজীব দেশের প্রথম ব্লগার, যিনি ঘাতকের হাতে নিহত হয়েছেন। তার হত্যার মধ্য দিয়ে জাতি তার এক মেধাবী সন্তানকে হারিয়েছে। তার হত্যাকাণ্ডের বিচার মুক্তচিন্তার মানুষদের যারা হত্যা করতে চায়, তাদের কিছুটা হলেও নিবৃত্ত করবে বলে আমাদের বিশ্বাস। তাই এ রায়কে গত বছরের সর্বশেষ শুভ সংবাদ বলতে হয়।
সম্পাদকীয় পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close