¦
একুশের চেতনা প্রাণের উদ্দীপনায়

কবি আল মাহমুদ | প্রকাশ : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

কবি আল মাহমুদ অমর একুশে সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা বাংলা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছি, বাংলা ভাষাকে রক্ষা করেছি, বাংলা ভাষাকে বাঁচিয়েও রাখব আমরাই।’ তিনি বলেন, ‘পাঠের কোনো বিকল্প নেই। বই পড়ার মধ্য দিয়ে আমরা জীবন ও জগৎকে বুঝতে শিখি। উপলব্ধি করতে পারি নিজের অন্তর্নিহিত সৃজনশীলতার রূপ। বুঝতে পারি কল্যাণ-অকল্যাণের পার্থক্য। বই আমাদের আলোর পথে চালিত করে।’ দেশের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদ অমর একুশের বইমেলা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আরও বলেন, ‘বইমেলার জন্য আমার ভেতর একটি প্রতীক্ষা কাজ করে। বইমেলাকে কেন্দ্র করে একটা অন্তর্গত তাড়না অনুভব করি। প্রকাশকদের আনাগোনা, বইয়ের জন্য তাদের চাপও আমার ভেতর একটা সৃজনশীল উদ্দীপনা সৃষ্টি করে।’ কবি আল মাহমুদ বলেন, বই নিয়ে মেলা বলা যায় সারা পৃথিবীতেই প্রচলিত কিন্তু আমাদের অমর একুশের গ্রন্থমেলা তা থেকে আবেগ অনুভূতি এবং চেতনার প্রসঙ্গে একেবারে ভিন্নমাত্রার। এর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িয়ে আছে দেশের প্রতি প্রগাঢ় অনুরাগ। দেখ একুশের বইমেলা কিন্তু ক্রমাগত ছড়িয়ে যাচ্ছে দেশের ভেতরে যেমন তেমন বহির্বিশ্বে। যেন এটি বাঙালির বই পার্বণ। কবি আল মাহমুদ বলেন, বইমেলার মাসব্যাপী আয়োজনের সঙ্গে আমার মনে হয় যোগ করা প্রয়োজন, বাঙালির জীবনে সর্বব্যাপী বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি চর্চার উদ্যোগ-উদ্দীপনা। এই মাসে আমরা যেন আত্মনুসন্ধান, আত্মজিজ্ঞাসা ও আত্মসমীক্ষার মুখোমুখি হয়ে খুঁজে পেতে পারি আমাদের প্রকৃত পরিচয়। কবি বলেন, তুমি জানো, গত শতকের আশির দশকে আমি একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলাম, ভবিষ্যতে ঢাকাই হবে বাংলা সাহিত্যের রাজধানী। তখন অনেকে এ প্রসঙ্গে বিতর্ক করেছিলেন। ধীরে ধীরে আমার কথাটি দেখ স্পষ্টরূপে প্রতীয়মান হচ্ছে। হিন্দির দাপটে কলকাতা থেকে বাংলা বিতাড়িত প্রায়, কলকাতার লেখকরা ঢাকামুখী, সময় বদলে যাচ্ছে কিন্তু তাতে আত্মতৃপ্তির বা আত্মশ্লাঘা অনুভবের কিছু নেই। হিন্দির দাপট কিন্তু বাংলাদেশেও দেখা যাচ্ছে। আকাশ সংস্কৃতির যুগে স্যাটেলাইটের সহায়তায় বাংলাদেশের ঘরে ঘরে এখন হিন্দির অধিষ্ঠান ঘটে চলেছে। এ থেকে রক্ষা পেতে এবং আত্মবিকাশের জন্য আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের শিক্ষাকে ব্যাপকভাবে চর্চায় আনতে হবে। জগৎজোড়া এখন মেধার লড়াই- মেধাবী জাতি গঠনের মাধ্যমে মেধার লড়াইয়ে অবতীর্ণ হতে হবে। একুশে ফেব্র“য়ারির চেতনা সে কারণেই ওতপ্রোত আমাদের জীবনে। অমর একুশের বইমেলা তাই শুধু লেখক, প্রকাশক, পাঠকেরই মেলা নয় বরং বাঙালিত্বের চেতনার মেলা। আমার বিশ্বাস আমার মতোই অনেকেই বইমেলার প্রতীক্ষায় থাকে প্রাণে উদ্দীপনা অনুভবের জন্য। এবারের বইমেলায় কবি আল মাহমুদের নতুন কবিতার বই ‘তোমার গন্ধে ফুল ফুটেছে’। বেরুচ্ছে প্রবন্ধের বই দিনযাপন। আবার ছাপা হচ্ছে সোনালী কাবিন এবং আল মাহমুদের একশ’ কবিতা। আল মাহমুদের নির্বাচিত কিশোর সমগ্র প্রভৃতি। গ্রন্থনায় শুচি সৈয়দ
 

প্রথম পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close