¦
শুক্রবার ভোর পর্যন্ত বাড়ল হরতাল

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

অবরোধের মধ্যে দেশব্যাপী টানা ৭২ ঘণ্টার হরতাল শেষ না হতেই শুক্রবার ভোর ৬টা পর্যন্ত তা বাড়ানো হয়েছে। আজ বুধবার ভোর ৬টায় পূর্বঘোষিত হরতাল শেষ হওয়ার কথা ছিল। এই কর্মসূচি শেষ হওয়ার আগেই মঙ্গলবার নতুন করে আরও ৪৮ ঘণ্টার হরতালের ডাক দেয় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। জোটের পক্ষে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ এক বিবৃতিতে হরতালের সময়সীমা বাড়ানোর এই ঘোষণা দেন।
বিবৃতিতে বলা হয়, দেশব্যাপী ক্রসফায়ারের মাধ্যমে অসংখ্য নেতাকর্মীকে হত্যা, গুলি করে পঙ্গু ও আহত করা, দেশব্যাপী বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীসহ নিরীহ জনগণকে গণগ্রেফতার, জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, বিচার ব্যবস্থায় হস্তক্ষেপ ও কুক্ষিগতকরণ, সাংবাদিক নির্যাতন ও সংবাদ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ, জনগণের মৌলিক ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি, অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের সিনিয়র নেতা এবং সব রাজবন্দির মুক্তির দাবিতে ও এখনও পর্যন্ত অবৈধ সরকার গণদাবি মেনে না নেয়ায় হরতাল বর্ধিত করা হয়েছে। গণদাবির বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের আন্দোলন থেকে পিছ পা হবে না ২০ দলীয় জোট।
এদিকে রাত ৯টার পর মহাসড়কে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণার মধ্য দিয়ে প্রকারান্তরে সরকারের অস্তিত্বহীনতাকেই স্বীকার করে নেয়া হল এমন মন্তব্য করে সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, অচিরেই সরকার দিনের বেলায়ও সব সরকারি অফিস বন্ধ করে দিতে বাধ্য হবে। প্রধানমন্ত্রী চলমান রাজনৈতিক সংকটকে মানবসৃষ্ট দুর্যোগ নামে অভিহিত করেছেন। মূলত পঞ্চদশ সংশোধনীর পক্ষে আওয়ামী নেত্রী শেখ হাসিনার একক সিদ্ধান্ত ও ক্ষমতা চিরস্থায়ীকরণে তার উগ্র বাসনাই কথিত মানবসৃষ্ট দুর্যোগের উৎপত্তির কারণ এবং সেজন্য তিনি ও তার দল দায়ী।
তিনি বলেন, আওয়ামী সরকার অবৈধ ক্ষমতা পাকাপোক্ত করার জন্য এমন কোনো অপকর্ম নেই যা করছে না। সরকারকে যত সন্ত্রাস, কূটকৌশল ও ছলচাতুরীর আশ্রয় নিতে হোক না কেন, তবুও ক্ষমতার মসনদ ত্যাগ করা যাবে না- এ যেন আওয়ামী সরকারের চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে অসৎ উদ্দেশ্যকে সামনে নিয়েই তারা জনপ্রশাসন, পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবিকে বেআইনিভাবে বিরোধী দল দমনে সব নিষ্ঠুর প্রক্রিয়ায় এগুচ্ছে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতাদের ও বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীকে পুলিশি রিমান্ডে অমানবিকভাবে দিনের পর দিন নির্যাতিত হতে হচ্ছে।
সালাহ উদ্দিন দাবি করেন, গণদাবি আদায়ের লক্ষ্যে চলমান আন্দোলনের গতি দেখে জোর করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলকারীরা এখন পতনের প্রহর গুণছে।
অজস্র নির্যাতনের শৃংখল ভেঙ্গেই এই আন্দোলন এখন চূড়ান্ত পরিণতির দিকে অগ্রসরমান। এই আন্দোলন গণতন্ত্র মুক্তি ও গণমানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলন। মানুষের নিশ্চিন্তে ভোট দেয়ার গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরে পাওয়ার আন্দোলন। একটি অমানবিক, নিষ্ঠুর, হিংসাশ্রয়ী, গণতন্ত্র বিনাশী এবং অন্ধ ও অহংকারী সরকারকে ন্যায্য দাবি মানতে বাধ্য করার আন্দোলন।
প্রথম পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close