¦
টিএইচ খানের বাসায় বৈঠক আইনজীবীদের

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী করণীয় ঠিক করতে বৈঠকে বসেন বিএনপিপন্থী সিনিয়র আইনজীবীরা। বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ৯/১৩ তাজমহল রোডে সাবেক বিচারপতি টিএইচ খানের বাসায় বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, সাবেক সভাপতি এজে মোহাম্মদ আলী, বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, ব্যারিস্টার রাগীব রউফ চৌধুরীসহ সিনিয়র আইনজীবীরা।
এদিকে বৈঠকের খবর পেয়ে র‌্যাব সদস্যরা ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলেন। পুলিশের কয়েকটি টিমও ওই বাসায় যায়। এ খবর ছড়িয়ে পড়ায় আইনজীবীদের মধ্যে গ্রেফতার আতংক ছড়িয়ে পড়ে। পরে এ ব্যাপারে খন্দকার মাহবুব হোসেন যুগান্তরকে জানান, ‘সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের আজ (বুধবার) শেষ দিন ছিল। আমাকে চতুর্থবারের মতো সমিতির সভাপতি পদে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সে জন্য সিনিয়র আইনজীবী টিএইচ খানের কাছে দোয়া নিতে গিয়েছিলাম। তারপর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেয়া যায় সে বিষয়েও আলোচনা হয়। এ অবস্থায় র‌্যাব-পুলিশ ওই বাসা ঘিরে ফেলে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আইনশৃংখলা বাহিনীর ধারণা ছিল, রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করার জন্যই হয়তো আমরা মিলিত হয়েছি। এটা তাদের ভুল ধারণা ছিল। তারা ভুলে গিয়েছিল আমরা সিনিয়র আইনজীবীরা কখনও রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করি না।’ পরবর্তী করণীয় নির্ধারণের ব্যাপারে খন্দকার মাহবুব বলেন, এ ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।
রাতে সেখানে গিয়ে দেখা যায়, ওই বাড়ির সামনে র‌্যাবের দুটি গাড়ি অবস্থান করছে। সেখানে পুলিশেরও কয়েকটি গাড়ি ছিল। এ ব্যাপারে মোহাম্মদপুর থানার ওসি আজিজুল হক যুগান্তরকে জানান, এই বাসায় কয়েকজন সিনিয়র আইনজীবী মিলিত হয়েছেন বলে খবর পেয়ে আমরা এখানে এসেছি। তাদের গ্রেফতার বা আটকের কোনো নির্দেশনা পুলিশের নেই। তারা যদি নিজে থেকে ভয় পান সেটা তাদের ব্যাপার। রাত সাড়ে ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত র‌্যাব ও পুলিশ ওই বাসার সামনে অবস্থান করছিল।
 

প্রথম পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close