¦
বুড়িগঙ্গা-মেঘনায় ১৩ লাশ উদ্ধার

যুগান্তর ডেস্ক | প্রকাশ : ০৩ এপ্রিল ২০১৫

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার আলীগঞ্জ এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে যাত্রীবাহী ট্রলারডুবিতে ৭ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। ট্রলারডুবিতে নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ৬ জন। বৃহস্পতিবার ১২টায় চাঁদপুরের মতলবে লেংটার মেলা থেকে ঢাকার লালবাগ যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
এছাড়া মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে ভাসানচরের কাছে বাল্কহেডের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবিতে শিশুসহ আরও ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ যুবক রয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় ওই ট্রলারডুবির ঘটনায় রাতেই অপর এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছিল। এ নিয়ে মেঘনা নদীতে ট্রলারডুবিতে ৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হল। লেংটার মেলায় যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
এদিকে ভোলার মনপুরায় মেঘনা নদীতে ঝড়ের কবলে পড়ে মাছধরার ট্রলারডুবিতে নিখোঁজ রয়েছেন ২৪ জেলে। মুন্সীগঞ্জ থেকে আরিফ উল ইসলাম, গজারিয়া থেকে মকবুল হোসেন, ফতুল্লা থেকে আলামিন প্রধান ও ভোলা দক্ষিণ থেকে হেলাল উদ্দিন জানান-
ফতুল্লা : নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার আলীগঞ্জ এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবিতে অন্তত ৬ জন নিখোঁজ রয়েছে। তাদের মধ্যে নদী থেকে লালবাগ শহীদনগর এলাকার ওহাব মিয়ার ছেলে রুবেল (২০), একই এলাকার নুরুদ্দিন মিয়ার ছেলে জাকির (২৮), হাফেজ মিয়ার ছেলে রুবেল, মিজানের ছেলে সাগর (১১), করমজান বিবি (৫৫), কাজল (২৮), হৃদয়ের (১৮) লাশ উদ্ধার করেছে ডুবরিরা। এছাড়া হাসপাতালে নেয়ার পথে সমির (৩৮) নামে আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে।
বৃহস্পতিবার ১২টায় মতলবের লেংটার মেলা থেকে ঢাকা লালবাগ যাওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটে। নিখোঁজদের উদ্ধারে কোস্ট গার্ড ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নদীতে অনুসন্ধান অব্যাহত রেখেছে।
নিহত সমিরের ছেলে তমাল বলেন, লেংটার মেলা থেকে ঢাকা লালবাগ যাওয়ার পথে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ ও আলীগঞ্জ এলাকা বরাবর আসা মাত্র আমাদের ট্রলারের তেল ফুরিয়ে যায়। এ সময় ঢাকা থেকে ফতুল্লাগামী একটি বালুবাহী ট্রলার আমাদের ট্রলারকে ধাক্কা দেয়। এতে মুহূর্তেই আমাদের ট্রলারটি ডুবে যায়।
অপরদিকে নিহত রুবেলের বড় ভাই রবিন বলেন, আমাদের ট্রলারডুবির ৩ ঘণ্টা পর ডুবে যাওয়া ট্রলারসহ রুবেলকে উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি। এছাড়া রাসেল, হাবিব, জন্টু, আবুল কালামের মা অসি বেগম ও পঙ্গু নারী ঐষী নিখোঁজ রয়েছেন বলে স্বজনরা জানিয়েছেন। নদী থেকে উদ্ধার করা লাশগুলো ফতুল্লার আলীগঞ্জ খেলার মাঠে এনে সারিবদ্ধভাবে রাখা হয়েছে।
এদিকে ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. তোফাজ্জল হোসেন ঘটনাস্থলে এসে সরকারের পক্ষ থেকে দাফনের জন্য নিহতের পরিবারের হাতে ২০ হাজার টাকা করে তুলে দেন।
জেলা প্রশাসক মো. তোফাজ্জল হোসেন জানান, ঘাতক ট্রলারটি শনাক্ত করা হয়েছে এবং সেটিকে আটকের চেষ্টা চলছে।
মুন্সীগঞ্জ : গজারিয়ার মেঘনা নদীতে ভাসানচরের কাছে বাল্কহেডের ধাক্কায় যাত্রীবাহী ট্রলারডুবিতে শিশুসহ আরও ৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে লাশের সংখ্যা দাঁড়াল ৫-এ। নিখোঁজ রয়েছেন কমপক্ষে ৫ জন। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে মা-বাবার দোয়া নামে একটি বাল্কহেড বালুভর্তি করে ঢাকার দিকে যাওয়ার পথে বিপরীতমুখী যাত্রীবাহী ট্রলারের মাঝ বরাবর ধাক্কা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
গজারিয়া থানার ওসি ফেরদৌস হাসান জানান, ট্রলারটি মতলব উত্তর থানার বেলতলী এলাকার সোলায়মান লেংটার বার্ষিক ওরসে যাওয়ার উদ্দেশে দাউদকান্দি ঘাট থেকে ৪০-৫০ জন যাত্রী নিয়ে যাত্রা করে। পথিমধ্যে বালুবাহী একটি বল্কহেডের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে তা ডুবে যায়। তিনি আরও জানান, ঘটনার পর খবর পেয়ে গজারিয়া থানা পুলিশ নদী থেকে ট্রলারটি উদ্ধার করেছে। গজারিয়া থানা পুলিশের সঙ্গে কোস্ট গার্ড উদ্ধার কাজ অব্যাহত রেখেছে।
গজারিয়া থানার সেকেন্ড অফিসার মো. হাবিব মিয়া ঘটনাস্থল থেকে জানান, ট্রলারডুবির ঘটনার পর পরই অজ্ঞাত এক যুবক, ভোররাতে এক শিশু, সকালে এক যুবক ও বেলা ১২টার দিকে আরও দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদল জানান, দমকল বাহিনীর ডুবুরিরা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে।
নদীতে ট্রলারডুবির ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক অনুদান দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রশাসন। গজারিয়া উপজলো প্রশাসন এ আর্থিক অনুদান দেবে।
ভোলা (দক্ষিণ) : ভোলার মনপুরা উপজেলার ঢালচর সংলগ্ন মেঘনায় ২৪ জেলে নিয়ে ঝড়ের কবলে পড়ে এফবি আল্লাহ মালিক নামের একটি ফিশিং ট্রলাল ডুবে গেছে। বৃহস্পতিবার দিনের যে কোনো সময় ট্রলারটি ডুবে যায়। জেলেদের মধ্যে প্রাথমিকভাবে মোবারক, মাহাবুব, বাশার ও এরশাদ নামের ৪ জেলের নাম পাওয়া গেছে।
কুতুবদিয়া মৎস্য আড়ৎদার আবুল কালাম সেলফোনে জানান, কুতুবদিয়া মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের দিদারুল্লাহ দিদারের এফবি আল্লাহ মালিক নামের একটি ফিশিং ট্রলার নিয়ে বুধবার দুপুর ২টার দিকে ২৪ জেলে মাছ শিকারে বের হন। বৃহস্পতিবার দিনের যে কোনো সময় ঝড়ের কবলে পড়ে মাছ ধরার ট্রলারটি ডুবে যায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলেদের সন্ধান মেলেনি। ভোলা কোস্ট গার্ড দক্ষিণ জোনের অপারেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত ট্রলারের জেলেদের উদ্ধারে কোস্ট গার্ডের একটি টিম ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা হয়েছে।
 

প্রথম পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close